• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিতর্ক বাড়াবেন না, কেজরীকে হাইকোর্ট

Arvind Kejriwal
অরবিন্দ কেজরীবাল।

Advertisement

মুখ্যসচিব বিতর্কে এ বার অরবিন্দ কেজরীবালের সরকারকে সতর্ক করল দিল্লি হাইকোর্ট। আদালত আজ তাদের পর্যবেক্ষণে কেজরীবাল সরকারকে জানিয়েছে, মুখ্যসচিব অংশু প্রকাশকে প্রিভিলেজ কমিটির সামনে ডাকার অর্থ হল, বিতর্কে আরও ইন্ধন দেওয়া। যা অর্থহীন।

গত তিন সপ্তাহ ধরে দিল্লির মুখ্যসচিব অংশু প্রকাশের সঙ্গে সংঘাত চলছে কেজরীবাল সরকারের। গত মাসে মুখ্যমন্ত্রী কেজরীবালের বাড়িতে বৈঠক করতে গেলে তাঁকে মারধরের অভিযোগ তোলেন অংশু। পরে ওই ঘটনায় গ্রেফতার হন দুই আপ বিধায়ক। তার পর থেকেই মুখ্যসচিবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্যাঁচ কষছিল আপ শিবির।

দিল্লি বিধানসভার অধিবেশন শুরু হতেই আজ প্রিভিলেজ কমিটির সামনে অংশু প্রকাশকে হাজির হওয়ার জন্য সমন পাঠানো হয়। যে হেতু বিধানসভার তরফে পাঠানো সমন প্রত্যাখ্যান করা সম্ভব নয়। তাই কৌশলে সেটি বাতিল করার জন্য মুখ্যসচিব দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন। আজ সেই মামলার শুনানিতে হাইকোর্ট কেজরীবাল সরকারকে মাথা ঠান্ডা রেখে চলার পরামর্শ দেয়। আদালতের বক্তব্য, ওই ধাঁচের নোটিসে সমস্যার সমাধান তো হবেই না, উল্টে বিতর্ক বাড়াবে।

আদালতের ওই পর্যবেক্ষণ আসার আগেই অবশ্য আজ প্রিভিলেজ কমিটি মুখ্যসচিবের বিরুদ্ধে নিজেদের রায় জানিয়ে দেয়। কমিটি জালিয়াতির অভিযোগে মুখ্যসচিবের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কেন এমন সিদ্ধান্ত, তার ব্যাখ্যায় আপ বিধায়ক সৌরভ ভরদ্বাজ বলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে কী বিষয়ে বৈঠক হয়েছিল, তা নিয়ে আদালতে ভুল তথ্য দিয়েছেন মুখ্যসচিব।’’ তাঁর আরও অভিযোগ, ‘‘দিল্লির একটি সমবায় ব্যাঙ্কের ১০০ কোটি টাকার প্রতারণা ও অভিযুক্তদের বাঁচাতেই নজর ঘোরানোর চেষ্টা করছেন মুখ্যসচিব।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন