গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি দেশের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। শুক্রবার সকালে বুকে ব্যাথা এবং শ্বাসকষ্ট শুরু হলে দিল্লির এমসে নিয়ে যাওয়া হয় বিজেপির এই শীর্ষ নেতাকে। সেখানে কার্ডিও-নিউরো বিভাগে চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যেই তাঁকে দেখতে এমস পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। হাসপাতালে রয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহও।

অরুণ জেটলির স্বাস্থ্য নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করেননি বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। তবে তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানিয়েছেন এমস কর্তৃপক্ষ। সংবাদ সংস্থা পিটিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, এন্ডোক্রিনোলজিস্ট, কার্ডিয়োলজিস্ট এবং নেফ্রোলজিস্ট-সহ একাধিক চিকিৎসকের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন তিনি।   

দীর্ঘ দিন ধরেই অসুস্থ অরুণ জেটলি। ডায়াবিটিসের রোগী তিনি। অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন গতবছর কিডনি প্রতিস্থাপনও হয় তাঁর। যে কারণে ফেব্রুয়ারি মাসে অন্তর্বর্তী বাজেটের সময় সংসদে দেখা যায়নি তাঁকে। শারীরিক অসুস্থতার জেরে মে মাসেও এক বার এমসে ভর্তি হন জেটলি। সেই থেকে সক্রিয় রাজনীতিতে সে ভাবে আর দেখা যায়নি তাঁকে।

আরও পড়ুন: পাকিস্তানকে হতাশ করল ‘বন্ধু’ও! দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় সমস্যা মেটানোর ডাক চিনের​

এমনকি এ বছর লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদী দ্বিতীয় বার ক্ষমতায় ফিরলেও, মন্ত্রিত্ব নিতে রাজি হননি জেটলি। প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখে জানিয়েছিলেন, বেশ কিছু দিন ধরে অসুস্থ তিনি। চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাই এ বার নিজের জন্য একটু সময় চান। নতুন সরকারে তাঁকে কোনও দায়িত্ব না দিলেই ভাল।

আরও পড়ুন: কাশ্মীর ‘আজাদ’ করতে বাংলাতেও লড়াইয়ের ডাক আল কায়দার​

তবে সক্রিয় রাজনীতি থেকে সরে গেলেও, সোশ্যাল মিডিয়ায় বরাবরই সক্রিয় অরুণ জেটলি। মোদী সরকারের বিভিন্ন সিদ্ধান্তের পক্ষে নিয়মিত সওয়ালও করেন তিনি।