একটি আবাসনের দেওয়াল ধসে মৃত্যু হল ৪ শিশু এবং ২ মহিলা-সহ মোট ১৫ জনের। পুলিশ জানায়, প্রবল বৃষ্টির জেরে শুক্রবার রাত দেড়টা থেকে দু’টোর মধ্যে পুণের কোন্ডওয়া এলাকার বড় তালাব মসজিদ অঞ্চলে নির্মাণ শ্রমিকদের অস্থায়ী ছাউনির উপর ভেঙে পড়ে দেওয়ালটি। মৃতেরা সকলেই বিহারের কাটিহার জেলার বাসিন্দা। তাঁরা দেওয়ালটির পাশের এক নির্মীয়মাণ ভবনে শ্রমিকের কাজ করতে এসেছিলেন। ঘটনার সময়ে সকলেই ঘুমোচ্ছিলেন। ধ্বংসস্তূপের নীচে থেকে তিন জনকে জীবিত উদ্ধার করতে পেরেছেন দমকল ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। তবে ভারী বৃষ্টির জেরে বারবার উদ্ধারকাজ ব্যহত হচ্ছে বলে প্রশাসন জানিয়েছে। আবাসনের নির্মাণকারী সংস্থার পরিচালক বিবেক আগরওয়াল ও বিপুল আগরওয়ালকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নির্মাণকারী সংস্থার বিরুদ্ধে অনিচ্ছাকৃত হত্যার মামলা করা হয়েছে।

২২ ফুট উঁচু দেওয়ালটির বিপজ্জনক অবস্থাতেই ছিল। তা কোনও দিন ভেঙে পড়ার আশঙ্কা ছিলই। গত ৪৮ ঘণ্টা ধরে প্রবল বৃষ্টি হচ্ছে ওই অঞ্চলে। গত ২৪ ঘণ্টায় এই মরসুমের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর। বৃষ্টির কারণে মাটি ফাঁকা হয়ে গিয়ে দেওয়ালটি ধসে পড়ে বলে প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে। তা ছাড়া ঠিক পাশের জমিতে ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন’ ভাবে খনন চালানোর দিকেও আঙুল তুলেছেন পুরসভার কমিশনার সৌরভ রাও। ঘটনার তদন্তের স্বার্থে একটি পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী সাত দিনের মধ্যে রিপোর্ট জমা দেওয়ার কথা এই কমিটির।

পুণের জেলা শাসক নভল কিশোর রামকে ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফডণবীস। মৃতদের পরিবারকে পাঁচ লক্ষ টাকা দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। ময়না-তদন্তের পরে মৃতদেহগুলি বিমানে করে পটনা পৌঁছে দেওয়া হবে। সেখান থেকে নিয়ে যাওয়া হবে তাঁদের গ্রামে। ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। মৃতদের পরিবারকে দু’লক্ষ টাকা করে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন তিনি।

প্রবীণ বিজেপি নেতা চন্দ্রকান্ত পাটিল জানান, অতিরিক্ত জেলা শাসক, এক পুলিশ আধিকারিক এবং পুণে পুরসভার এক সদস্যকে নিয়ে এক তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হবে। নির্মাণ সংস্থার পক্ষে আইন ভঙ্গের অভিযোগ খতিয়ে দেখে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রিপোর্ট জমা দিতে হবে ওই কমিটিকে। ওই  শ্রমিকদের কী ভাবে এখানে আনা হয়েছিল এবং নিয়োগ সংক্রান্ত সব নিয়ম মানা হয়েছিল কি না তাও খতিয়ে দেখবে এই কমিটি। ওই জায়গাটিতে এখন সব রকম নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার নোটিস ঝুলিয়ে দিয়েছেন পুণের মেয়র মুক্তা তিলক। ঘটনার পরে শাসকদল বিজেপির পুণেকে ‘স্মার্ট সিটি’ বানানোর প্রচেষ্টাকে কটাক্ষ করে আইনি নির্মাণ এবং সেই সূত্রে হওয়া দুর্ঘটনা এড়াতে কেন্দ্রকে আরও কড়া হওয়ার দাবি জানান এনসিপি নেত্রী তথা বারামতীর সাংসদ সুপ্রিয়া সুলে।

মুম্বইয়ের আন্ধেরিতেও এ দিন সকালে ম্যারল এলাকার একটি আবাসনের দেওয়াল ধসে পড়ে। হতাহতের খবর নেই। শুক্রবার বৃষ্টির জেরে দাদর ও গোভান্ডি এলাকায় দু’টি দেওয়াল ধসে পাঁচ জন আহত হন।