বৃদ্ধা বিধবা মা-কে ধর্ষণের অপরাধে সোমবার ৪২ বছরের এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দিল গুজরাতের একটি আদালত। ওই ব্যক্তির ৫ হাজার টাকা জরিমানাও করেছে আদালত। 

মা-কে ধর্ষণ করার ঘটনায় অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি বাপোড় এলাকায় মায়ের সঙ্গেই থাকত। ওই ব্যক্তি নিয়মিত মদ্যপান করত বলেও জানিয়েছে পুলিশ। ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে মত্ত অবস্থায় বাড়ি ফেরে সে। এরপরই মায়ের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয় তাঁর। সে সময় মা তাঁকে অন্য জায়গায় গিয়ে শুতে বলে। রাগে সেই রাতে নিজের মাকে ধর্ষণ করেছিল সে। ছেলের হাতে অত্যাচারিত হয়ে শরীরে একাধিক জায়গায় আঘাত পান ওই বৃদ্ধা।

পরে এই ঘটনার কথা বৃদ্ধা নিজের মেয়েকে জানান। তখনই বোপাড় পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করা হয় ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে। কিন্তু পুলিশি জেরার মুখে মায়ের উপর অত্যাচারের কথা অস্বীকার করে ওই ব্যক্তি। তাঁকে পৈত্রিক সম্পত্তি থেকে ব়ঞ্চিত করারও অভিযোগ তোলেন মায়ের বিরুদ্ধে। কিন্তু ছেলের হাতে অত্যাচারিত বৃদ্ধার মেডিক্যাল টেস্টের পর তাঁর ছেলেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

আরও পড়ুন: রেললাইনের উপরে সেলফি তুলতে গিয়ে প্রাণ হারালেন তিন তরুণী

সেই মামলারই সোমবার রায় দিয়েছে আদালত। জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তি আগে ধাতু কারখানায় কাজ করতেন ওই ব্যক্তি। কিন্তু ওই ব্যক্তির স্ত্রী তাঁকে ছেড়ে চলে যাওয়ার পর তিনি কাজ ছেড়ে মায়ের সঙ্গে থাকা শুরু করেন। তারপরই একদিন ওই ঘটনা ঘটিয়েছিলেন তিনি। 

আরও পড়ুন: অসুস্থ বাবাকে বিশ্রাম দিতে ক্ষুর-কাঁচি হাতে তুলে নিয়েছে মেয়েরা