এখনই দেশে লোকসভা নির্বাচন হলে ফের প্রধানমন্ত্রী হবেন নরেন্দ্র মোদী। জনপ্রিয়তার মানদণ্ডে তিনি অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধীর চেয়ে।

তবে সংসদে বিজেপি-র আসন-সংখ্যা কিছুটা কমবে। তার ফলে কেন্দ্রে সরকার গড়ার জন্য এনডিএ শরিকদের মুখাপেক্ষী হয়ে পড়তে হবে মোদীর দলকে।

লোকসভায় ফের একক বৃহত্তম দল হবে বিজেপি। তবে কংগ্রেসও গত লোকসভা ভোটের মতো খুব পিছিয়ে থাকবে না। সংসদে আসন-সংখ্যা অনেকটাই বাড়াতে পারবে কংগ্রেস।

সর্বভারতীয় ম্যাগাজিন ‘ইন্ডিয়া টুডে’র জুলাইয়ের ‘মুড অফ দ্য নেশন’ সমীক্ষা এ কথা জানিয়েছে।

ওই মতামত সমীক্ষা বলছে, এখনই দেশে লোকসভা ভোট হলে প্রধানমন্ত্রী মোদীর দল বিজেপি পাবে বড়জোর ২৪৫টি আসন। পাঁচ বছর আগে ২০১৪-র নির্বাচনে বিজেপি একাই পেয়েছিল ২৮২টি আসন। তার মানে, বিজেপি-র আসন-সংখ্যা ৩৭টি কমবে। ৫৪৩ সদস্যের লোকসভায় সে ক্ষেত্রে বিজেপি ফের একক বৃহত্তম দল হলেও, সরকার গড়ার জন্য এনডিএ-র অন্য শরিকদের ওপর নির্ভরতা বাড়াতে বাধ্য হবে মোদীর দল। পক্ষান্তরে, কংগ্রেস আরও ৮৩টি আসন বেশি পাবে। ফলে, লোকসভায় কংগ্রেসের সদস্য-সংখ্যা পৌঁছবে ১২২-এ। ইউপিএ-র আসন-সংখ্যা অন্তত ২০টি বাড়বে। কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইউপিএ আর বিজেপি-র নেতৃত্বে এনডিএ ছাড়া লোকসভার বাকি ১৪০টি আসন ভাগাভাগি করে নেবে অন্য রাজনৈতিক দলগুলি।

আরও পড়ুন- মোদীর সেরা বিকল্প কে? সমীক্ষা বলল, একে রাহুল, দুইয়ে মমতা

আরও পড়ুন- কেরলে ভারত সরকারের থেকে বেশি ত্রাণ দিচ্ছে আমিরশাহি সরকার​

ওই মতামত সমীক্ষা জানিয়েছে, এখনই দেশে ভোট হলে প্রদত্ত ভোটের ৩৬ শতাংশ পাবে এনডিএ। আর ৩১ শতাংশ ভোট যাবে ইউপিএ-র ঝুলিতে। ২০১৪-য় প্রদত্ত ভোটের ৪০ শতাংশ পেয়েছিল এনডিএ। আর ইউপিএ পেয়েছিল ২৭ শতাংশ। তবে জনপ্রিয়তার নিরিখে রাহুলের চেয়ে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন মোদী। রাহুল ভোট পেয়েছেন ২৭ শতাংশ। আর মোদী ৪৯ শতাংশ।

মতামত সমীক্ষা অবশ্য এও জানিয়েছে, এই সব হিসেবনিকেশ অনেকটাই নির্ভর করছে কয়েকটি ‘যদি’ ও ‘কিন্তু’র ওপর। আগামী বছর এই সময় লোকসভা ভোট হলে এই হিসেবনিকেশ মিলতে পারে যদি নীতীশ কুমারের সংযুক্ত জনতা দল থাকে এনডিএ-তেই। জনতা দল (ধর্মনিরপেক্ষ) যদি হঠাৎ ইউপিএ ছেড়ে বেরিয়ে যায় বা তেলুগু দেশম পার্টি (টিডিপি) ও জম্মু-কাশ্মীরের পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টি (পিডিপি) যদি ইউপিএ বা এনডিএ যে কোনও জোটে ভিড়ে যায়, তা হলে ওই হিসেবনিকেশ একেবারেই বদলে যাবে।

 

কী বললেন প্রধানমন্ত্রী, কী বলছে সংসদ- দেশের রাজধানীর খবর, রাজনীতির খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।