‘কিউএস ইন্ডিয়া র‌্যাঙ্কিং’য়ে গত বছরের স্থান ধরে রাখল খড়্গপুর আইআইটি। মঙ্গলবার প্রকাশিত এই র‌্যাঙ্কিংয়ে খড়্গপুর আইআইটি পঞ্চমস্থান অধিকার করেছে। গত বছরও পাঁচ নম্বরেই ছিল এই প্রতিষ্ঠান। 

র‌্যাঙ্ক ধরে রাখতে পারায় খুশির হাওয়া খড়্গপুর আইআইটি চত্ত্বরে। কিউএস-এর আন্তর্জাতিক  র‌্যাঙ্কিং সামনে এনে মানোন্নয়নের দাবিও করছেন আইআইটি কর্তৃপক্ষ। গত বছরের র‌্যাঙ্কিংয়ে ২৯৫ নম্বরে থাকা এই প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান আন্তর্জাতিক র‌্যাঙ্কিংয়ে এ বার ২৮১ নম্বর স্থান পেয়েছে। খড়্গপুর আইআইটি-র রেজিস্ট্রার ভৃগুনাথ সিংহ বলেন, “আন্তর্জাতিক র‌্যাঙ্কিংয়ে এ বার আমরা অনেক এগিয়ে ২৮১ নম্বরে রয়েছি। ভারতীয় র‌্যাঙ্কিংয়ে পঞ্চমস্থান ধরে রেখেছি। এমনকি আগের তুলনায় অনেক বেশি নম্বর পেয়েছি। আমরা সবাই খুব খুশি। আগামী দিনে  প্রথম স্থান দখলের অপেক্ষায় রয়েছি।”       

গত কয়েকবছর ধরেই আন্তর্জাতিক স্তরের র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে আসছে এই খড়্গপুর আইআইটি। ২০১৮ সালে আন্তর্জাতিক র‌্যাঙ্কিংয়ে ৩০৮ নম্বরে ছিল এই প্রতিষ্ঠান। এ বার তারা পৌঁছেছে ২৮১ নম্বরে। গত বছরের ভারতীয় র‌্যাঙ্কিংয়ের পঞ্চম স্থানও ধরে রাখতে পেরেছে। বোম্বে আইআইটি, বেঙ্গালুরু আইআইএসসি, দিল্লি আইআইটি ও মাদ্রাজ আইআইটির পরেই  রয়েছে খড়্গপুর আইআইটির স্থান। এক্ষেত্রে শিক্ষা, কর্মদাতা, ছাত্র-শিক্ষক অনুপাত-সহ বেশ কয়েকটি বিষয়ে মানদণ্ড বিচারের পরে এই স্থান অর্জন করেছে খড়্গপুর আইআইটি। সব মিলিয়ে প্রথম স্থানে থাকা বোম্বে আইআইটি সাড়ে ৮৮ নম্বর পেয়েছে। আর খড়্গপুর আইআইটি পেয়েছে প্রায় ৭৮ নম্বর। গত বছর খড়্গপুর আইআইটি পেয়েছিল প্রায় সাড়ে ৭৬ নম্বর।