• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নৌঘাঁটির উড়ান বাড়ানোর আর্জি

Flight
কোচি নৌঘাঁটিতে নামল যাত্রিবাহী বিমান। সোমবার।

কোচির নৌসেনা ঘাঁটি থেকে যাতে আরও বেশি উড়ান চালানো যায়, সেই চেষ্টাই করছে কেন্দ্রীয় সরকার। সোমবার বিমানমন্ত্রী সুরেশ প্রভু টুইট করে জানান, এ দিন উড়ান চালু করেছে অ্যালায়েন্স। অন্য বেসরকারি উড়ান সংস্থাগুলিকেও কোচির ওই নৌসেনা ঘাঁটি থেকে বিমান চালাতে অনুরোধ করা হয়েছে।

আপাতত ২৬ অগস্ট পর্যন্ত কোচি বিমানবন্দর বন্ধ। ফের কবে তা চালু হবে, ঠিক নেই। ওই বিমানবন্দরের এক কর্তা জানান, জল নেমে গেলেও বিমানবন্দর ডুবে রয়েছে অন্ধকারে। তাঁর কথায়, ‘‘মঙ্গলবার আমরা যন্ত্রপাতি পরীক্ষা করব।’’ দীর্ঘ ক্ষণ জলের তলায় থাকা বহু যন্ত্রপাতির অবস্থা নিয়ে সংশয় রয়েছে। নতুন যন্ত্র লাগাতে হলে তার পরীক্ষানিরীক্ষার জন্য আরও সময় লাগবে।

এর মধ্যেই কোচিতে আটকে পড়া যাত্রীদের একটি বড় অংশকে যাতে বিমানে অন্য শহরে পৌঁছে দেওয়া যায়, সেই বিষয়ে সচেষ্ট হয়েছে কেন্দ্র। এয়ার ইন্ডিয়া জানিয়েছে, এ দিন তাদের তিনটি উড়ান কোচির গারুদা নৌঘাঁটি থেকে যাত্রী নিয়ে ওঠানামা করেছে। প্রতিটি ক্ষেত্রেই ৭০ আসনের এটিআর বিমান ভর্তি ছিল। জেট ও স্পাইসজেট জানায়, খুব তাড়াতাড়িই তারা কোচির নৌঘাঁটি থেকে উড়ান চালাবে। ওখানে শুধু ছোট বিমান ওঠানামা করতে পারবে।

কোচি ছাড়া অন্য বিমানবন্দর থেকে টিকিটের আকাশছোঁয়া দাম নেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ। বিমানমন্ত্রী জানান, তিরুঅনন্তপুরম, কালিকট, কোয়ম্বত্তূর থেকে ছোট রুটে টিকিটের দাম হিসেবে সর্বাধিক সাত হাজার এবং লম্বা রুটে সর্বাধিক ১০ হাজার টাকা নেওয়া যাবে। ভাড়ার উপরে বিমান পরিবহণ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ডিরেক্টরেট জেনারেল অব সিভিল অ্যাভিয়েশন (ডিজিসিএ)-এর তরফে নজরদারি চালানো হবে।

ইন্টারনেটে জনপ্রিয় সাইটে দেখা যাচ্ছে, শুধু এয়ার ইন্ডিয়ার ভাড়াই কম। মঙ্গল ও বুধবার তিরুঅনন্তপুরম থেকে দিল্লির যাওয়ার জন্য জেট, বিস্তারা ও স্পাইসজেটের ভাড়া ১০ হাজার টাকার বেশি। মঙ্গলবার কালিকট থেকে দিল্লি যাওয়ার জন্য ইন্ডিগো ও স্পাইসজেটের ভাড়া ১০ হাজার টাকার বেশি। জেট জানায়, তাদের ওয়েবসাইটে টিকিট কাটলে দিল্লি থেকে কেরলের যে-কোনও শহরে যাওয়ার ভাড়া ১০ হাজার টাকার মধ্যেই থাকছে। অন্য সাইটে কী ভাড়া দেখাচ্ছে, তার দায়িত্ব জেট নেবে না। বিস্তারা জানিয়েছে, তাদের ভাড়া ১০,৪৫৭ টাকা। কর হিসেবে অতিরিক্ত ৪৫৭ টাকা নেওয়া হচ্ছে। সেটা বিস্তারার ঘরে আসবে না। ফলে অতিরিক্ত ওই টাকার দায়িত্ব বিস্তারা নেবে না। স্পাইসজেট ও ইন্ডিগোর কোনও বক্তব্য জানা যায়নি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন