বিহারে কংগ্রেসকে ৯টি আসন দিল আরজেডি
বিহারে আসন সমঝোতা নিয়ে গত কয়েক মাস ধরেই কংগ্রেস ও আরজেডি-র মধ্যে আলোচনা চলছিল।
RJD

রাহুল গাঁধী ও তেজস্বী যাদব। —ফাইল চিত্র।

বিজেপিকে রুখতে বিহারে একজোট রাষ্ট্রীয় জনতা দল এবং কংগ্রেস। শুক্রবার আসন সমঝোতার কথা ঘোষণা করল তারা।

এ দিন সকালে পটনায় সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন রাষ্ট্রীয় জনতা দলের (আরজেডি) মুখপাত্র মনোজ ঝা। তিনি জানান, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিহারের ৪০টি আসনের মধ্যে ২০টিতে লড়বে তাঁদের দল। কংগ্রেস প্রার্থী দাঁড় করাবে ৯টি আসনে।

৫টি আসনে প্রার্থী দাঁড় করাবে উপেন্দ্র কুশবাহার রাষ্ট্রীয় লোক সমতা পার্টি (আরএসএলপি)। বাকি আসনে প্রার্থী দেবে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী হিন্দুস্তানি আওয়াব মোর্চা, বিকাশ ইনসাফ পার্টি এবং সিপিআই-এমএল।

আরও পড়ুন: ইয়াসিন মালিকের জেকেএলএফ নিষিদ্ধ ঘোষিত

আরও পড়ুন: নতুন লোগোয় মুছে গেল কংগ্রেস, ম্লান হয়ে গেল গেরুয়া, পরিস্থিতি মেপে নতুন পথে তৃণমূল​

২০১৬ সালে মহাজোট ভেঙে বিজেপির হাত ধরার পর দলবিরোধী কাজের অভিযোগে শরদ যাদবকে বহিষ্কার করেছিল নীতীশ কুমারের সংযুক্ত জনতা দল। তার জেরে রাজ্যসভার সাংসদ পদটিও খোয়াতে হয় তাঁকে। এ বছর তিনি লালুপ্রসাদের দলের টিকিটেই ভোটে দাঁড়াতে চলেছেন বলেও এ দিন ঘোষণা করেন মনোজ ঝা। বলা হয়, নির্বাচন মিটলে নিজের লোকতান্ত্রিক জনতা দল নিয়ে আরজেডির সঙ্গে জোটে যোগ দেবেন শরদ যাদব।

বিহারে আসন সমঝোতা নিয়ে গত কয়েক মাস ধরেই কংগ্রেস ও আরজেডি-র মধ্যে আলোচনা চলছিল। শুরুতে ১১টি আসনে প্রার্থী নামানোর দাবি করেছিল কংগ্রেস। তবে তা গৃহীত হয়নি। তবে নির্বাচনের পর রাজ্যসভার প্রথম যে আসনটি খালি হবে, তাতে কংগ্রেস প্রার্থীকেই বসানো হবে বলে জানিয়েছে আরজেডি।

(কী বললেন প্রধানমন্ত্রী, কী বলছে সংসদ- দেশের রাজধানীর খবর, রাজনীতির খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত