প্রিয়ঙ্কা বললেন, মোদী দুর্বল
কানপুর লোকসভা কেন্দ্রের দলীয় প্রার্থী শ্রীপ্রকাশ জায়সবালের সমর্থনে আজ রোড শো করেন প্রিয়ঙ্কা। প্রায় পাঁচ কিলোমিটার রোড শো-এ ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো।
Prinka

কানপুরে রোড শোয়ে প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরা। শুক্রবার। পিটিআই

রাহুল গাঁধী আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ‘ভীতু’ বলেছিলেন। এ বার মোদীকে ‘দুর্বল প্রধানমন্ত্রী’ বলে আক্রমণ করলেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরা। তাঁর যুক্তি, প্রধানমন্ত্রী তাঁর সমালোচনা সহ্য করতে পারেন না। মোদীকে ৫৬ ইঞ্চি ছাতি নিয়েও খোঁচা দিতে ছাড়েননি সনিয়া-কন্যা।

কানপুর লোকসভা কেন্দ্রের দলীয় প্রার্থী শ্রীপ্রকাশ জায়সবালের সমর্থনে আজ রোড শো করেন প্রিয়ঙ্কা। প্রায় পাঁচ কিলোমিটার রোড শো-এ ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। প্রদেশ কংগ্রেস নেতাদের দাবি, তরুণদের উপস্থিতি ছিল নজরকাড়া। কংগ্রেস প্রার্থী শ্রীপ্রকাশকে পাশে বসিয়ে দলের কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশে কখনও হাত নাড়তে, কখনও জোড়হাতে নমস্কার করতে দেখা যায় প্রিয়ঙ্কাকে। কানপুরের কর্মসূচিতে প্রধানমন্ত্রীকে কার্যত তুলোধোনা করেন তিনি। প্রিয়ঙ্কার কথায়, ‘‘এক জন প্রকৃত রাজনীতিক কখনও মানুষের কণ্ঠস্বরকে ভয় পায় না। তিনি কখনও ওই কণ্ঠস্বরকে দমিয়ে রাখতে চান না। এই সরকার দুর্বল। প্রধানমন্ত্রীও দুর্বলচিত্তের। তাঁর কোনও মনের জোর নেই।’’ প্রিয়ঙ্কার তির্যক মন্তব্য, ‘‘গত লোকসভা নির্বাচনে উনি ৫৬ ইঞ্চি ছাতি নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছিলেন। কারণ, উনি ভীতু। উনি গণতন্ত্রকে দুর্বল করতে চান।’’

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯

সমালোচনা সহ্য করাও যে রাজনীতিকদের একটা গুণ তা-ও আজ মনে করিয়ে দেন প্রিয়ঙ্কা। মোদীর সঙ্গে রাহুলের ফারাক বোঝাতে বলেন, ‘‘এক জনকে দেখুন, যাঁর সমালোচনা সহ্যের ক্ষমতা নেই। আর এক জনকে প্রতিদিন অপমান করা হচ্ছে। বিজেপি তাঁর বাবা-মা-ঠাকুরমার নাম করে অপমান করছে। তিনি হাসিমুখে তা সহ্য করেন। একেই বলে মনের জোর।’’

 

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত