নরেন্দ্র মোদী পৌঁছনোর আগেই ফোন এল সনিয়া গাঁধীর। শুভেচ্ছা জানালেন রাহুল গাঁধীও। 

বিজেপির প্রবীণ নেতা লালকৃষ্ণ আডবাণী আজ ৯১ বছর পূর্ণ করলেন। মোদী ক্ষমতায় আসার পরে দলের প্রবীণ নেতারা ব্রাত্য হয়েছেন। বিরোধী দলের নেতাদের সঙ্গে শাসক শিবিরের কোনও সমন্বয় নেই। তবে জন্মদিনে আজ আডবাণীকে শুভেচ্ছা জানানোর ঢল পড়ল বিরোধী শিবির থেকেও। আডবাণীর সঙ্গে ফোনে অনেক ক্ষণ কথা বলেন সনিয়া। ফেসবুকে রাহুল আডবাণীর সঙ্গে নিজের ছবিও দেন। লেখেন, ‘আডবাণীর জন্মদিনে শুভেচ্ছা। তাঁর স্বাস্থ্য, দীর্ঘায়ু ও আনন্দ কামনা করি।’’ আডবাণীকে ঘিরে কংগ্রেসের মাতামাতি দেখে সকালে নরেন্দ্র মোদী আর অমিত শাহ প্রায় একই ভাষায় টুইট করলেন। দু’জনেই দু’টি করে। সেখানে মোদী বিজেপিকে তৈরি করা থেকে শুরু করে ভারতীয় রাজনীতিতে আডবাণীর অবদানের গুণ গাইলেন। পরে প্রতিবারের মতো গেলেন তাঁর বাড়িতেও।

অরুণ জেটলি, রবিশঙ্কর প্রসাদ, সুষমা স্বরাজও গিয়ে দেখা করেন। কচি কলাপাতা রঙের জ্যাকেটে আজ আরও ‘নবীন’ আডবাণী নিজে অবশ্য অটলবিহারী বাজপেয়ীর মৃত্যুর জন্য জন্মদিন পালন করেননি। গতকাল শামিল হননি দেওয়ালি উৎসবেও।