ব্রিজের শিলান্যাস করেছেন নেতা। এমন ‘মহান’ কাজ করায় নেতার পা ধোয়াতে এগিয়ে এলেন এক কর্মী। নেতাও অবলীয়ায় এগিয়ে দিলেন পা। সবাইকে অবাক করে পা ধোয়ানো সেই নোংরা জলই ঢক ঢক করে খেয়ে নিলেন ওই কর্মী। তাতেও হেলদোল নেই নেতার। বরং ফলাও করে পোস্ট করলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাতেই বিতর্কের ঝড়। কিন্তু তারপরেও ওই নেতার সাফাই, কৃষ্ণও তো সুদামার পা ধুয়ে দিয়েছিলেন। এতে অন্যায় কোথায়।

বিতর্কের কেন্দ্রে ঝাড়খণ্ডের গোড্ডার বিজেপির সাংসদ নিশিকান্ত দুবে। গিয়েছিলেন গোড্ডা এলাকায় একটি ব্রিজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করতে। সেখানেই এই কাণ্ড। অনুষ্ঠানের পরেই পবন শাহ নামে এক কর্মী একটি থালা এবং জলের পাত্র নিয়ে আসেন সাংসদের কাছে। তাঁর পা ধোয়ানোর আর্জি জানান। মন্ত্রীও হাঁটুর কাছে প্যান্ট তুলে এগিয়ে দেন পা। একটি থালার উপর রেখে জল ঢেলে পা ধুয়ে দেন পঙ্কজ। এরপর সেই জল খেয়ে নেন।

সাংসদ নিশিকান্তও ঘটনায় বেশ গর্ববোধ করেন। একই সঙ্গে পবনের নামে জয়ধ্বনিও ওঠে ওই অনুষ্ঠানে। এরপর গোটা ঘটনার ভিডিয়ো ফেসবুকে পোস্ট করেন নিশিকান্ত। সঙ্গে লেখেন আবেগঘন বক্তব্য। আর তারপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল বিতর্ক শুরু হয়। সাংসদকে আক্রমণ করতে শুরু করেন নেটিজেনরা।

 

আক্রমণ এসেছে রাজনৈতিক মহল থেকেও। উত্তরপ্রদেশে কংগ্রেস নেতারা সাংসদের তীব্র সমালোচনা করেন। বহুজন সমাজ পার্টির নেতা সুধীন্দ্র ভাদোরিয়া বলেছেন, ‘‘বিজেপি নেতাদের ঔদ্ধত্য চরম সীমায় পৌঁছেছে। এই নিশিকান্ত মোদীর ঘনিষ্ঠ। ক্ষমা চাওয়ার বদলে নিজেকে দেবতা মনে করছেন তিনি। মোদী-অমিত কি এই সংস্কৃতির কথাই বলেন?

আরও পডু়ন: বিমানে গিয়ে ডাকাতি, বিমানেই চম্পট, পুলিশের জালে অভিজাত গ্যাং

কিন্তু এত সমালোচনার মুখে পড়েও ক্ষমা চাওয়া বা দুঃখ প্রকাশ করার কোনও লক্ষণ নেই নিশিকান্তের। উল্টে নিজেকে সুদামার সঙ্গেও তুলনা করেছেন। আর পবন নামে ওই কর্মীকে কৃষ্ণের সঙ্গে তুলনা করে পাল্টা প্রশ্ন তুলেছেন, ‘‘কৃষ্ণ কি সুদামার পা ধুয়ে দেননি? কোনও কর্মী যদি ভালবেসে তাঁর পা ধুয়ে দেন, তাতে অন্যায়ের কী আছে?’’

আরও পডু়ন: কর ছাড়লে ৩৫/৪০ টাকায় পেট্রল, ডিজেল দিতে পারি, বলছেন রামদেব

এটাই অবশ্য প্রথম নয়। এর আগেও গরু চোর সন্দেহে গণপিটুনিতে ধৃতদের পক্ষে মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছেন বিজেপি নেতা নিশিকান্ত। সেই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গণপিটুনিতে ধৃত চার জনের সমস্ত আইনি খরচ তিনি দেবেন। প্রশ্ন তোলেন, গোটা গ্রামের লোক পেটালেও শুধু চার জনকে কেন ধরা হবে? তাঁদের গরু চুরি গিয়েছিল বলেই কি?