ব্রিটেন আর ফ্রান্সকে পিছনে ফেলে দেবে ভারত। অর্থনীতিতে।

ইউরোপের ওই দু’টি দেশকে পিছনে ফেলে অর্থনীতির শক্তি-সামর্থের নিরিখে বিশ্বের পঞ্চম শক্তিশালী দেশ হয়ে উঠবে ভারত। মার্কিন ডলারের দাঁড়িপাল্লায়। আগামী বছরেই।

চিনও পিছিয়ে থাকবে না। আমেরিকাকে টপকে বিশ্বে সবচেয়ে শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ হয়ে উঠবে। তবে আরও ১৪ বছর পর, ২০৩২-এ।

সামনের দিনগুলো খুব একটা ভালো নয় রাশিয়ার অর্থনীতির পক্ষে। আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম যে ভাবে উত্তরোত্তর পড়ছে, তাতে ১৪ বছর পর, ২০৩২-এ রাশিয়ার অর্থনীতি পিছতে পিছতে শক্তিশালী অর্থনীতির দেশগুলির তালিকায় চলে যাবে ১৭ নম্বরে।

আরও পড়ুন- রিফান্ড সঙ্কটে কোপ গয়না রফতানিতে​

আরও পড়ুন- নববর্ষে ৭% বৃদ্ধির ইঙ্গিত বণিকসভার​

এই পূর্বাভাস দিয়েছে ‘সেন্টার ফর ইকোনমিক্স অ্যান্ড বিজনেস রিসার্চ’ (সিইবিআর)। লন্ডনের এই সংস্থাটি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অর্থনৈতিক শরীর-স্বাস্থ্যের হালহকিকতের ওপর নজর রাখে।

সিইবিআর-এর তরফে এও জানানো হয়েছে, শুধু ভারতই নয়, আগামী ১৫ বছরে দ্রুত এগিয়ে যাবে গোটা এশিয়ার অর্থনীতি। তা বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ১০টি দেশের অর্থনীতির ওপর গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলবে।

গত ৭টি কোয়ার্টারের (ত্রৈমাসিক) মধ্যে ৬টিতে ভারতে জিডিপি-র হার পর পর গোঁত্তা খাওয়ার পর এ দেশের অর্থনীতি নিয়ে হা-হুতাশ শুরু হয়ে গেলেও, ভারতীয় অর্থনীতির ওপর যথেষ্টই ভরসা রেখেছেন সিইবিআর-এর বিশেষজ্ঞরা।

সিইবিআর-এর ডেপুটি চেয়ারম্যান ডগলাস ম্যাকউইলিয়ামস বলেছেন, ‘‘সাময়িক ভাবে পিছু হঠলেও, ফ্রান্স ও ব্রিটেনের অর্থনীতির সঙ্গে তাল মিলিয়েই চলেছে ভারতের অর্থনীতি। শুধু তাই নয়, যে গতিতে এগিয়ে চলেছে, তাতে ২০১৮ সালে ভারতের অর্থনীতি ছাপিয়ে যাবে ব্রিটেন ও ফ্রান্সের অর্থনীতিকে। ভারতই হয়ে উঠবে বিশ্বের পঞ্চম শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ।’’