এ বারের লোকসভা নির্বাচন একেবারেই অবাধ এবং সুষ্ঠু হয়নি বলে অভিযোগ করলেন বেশ কয়েক জন প্রাক্তন আমলা। নির্বাচন কমিশনকে লেখা একটি চিঠিতে তাঁদের অভিযোগ, গত তিন দশকে এমন ‘ত্রুটিপূর্ণ’ নির্বাচন হয়নি। কমিশনের ভূমিকা দেখে মনে হয়েছে, একটি নির্দিষ্ট দলের প্রতি পক্ষপাতিত্ব করা হয়েছে।

লোকসভা নির্বাচন চলাকালীন একাধিক বিরোধী দল কমিশনের ভূমিকা নিয়ে উষ্মাপ্রকাশ করেছিল। কমিশনকে লেখা চিঠিতে ওই বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন ওই প্রাক্তন আমলারা। স্বাক্ষরকারীরা জানিয়েছেন, অতীতে দুর্বৃত্ত, বাহুবলী এবং অসৎ রাজনৈতিক নেতাদের প্রভাব সত্ত্বেও কমিশন অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট পরিচালনা করেছে। অথচ এ বারের লোকসভা নির্বাচন দেখে মনে হয়েছে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে কমিশনই ধ্বংস করছে।

মহারাষ্ট্রে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্বাচনী সভার আগে নীতি আয়োগের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল কংগ্রেস। অভিযোগ ওঠে, মোদী পৌঁছনোর আগে রাজ্যের তিন জেলাশাসকের কাছে চিঠি পাঠিয়ে ওই জেলার বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে জানতে চেয়েছিল আয়োগের আধিকারিকেরা। ওই ঘটনার উল্লেখ করে প্রাক্তন আমলাদের চিঠিতে বলা হয়েছে, শাসক দলের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে অপব্যবহারের যে অভিযোগ উঠেছিল, কমিশন তাতে গুরুত্ব দেয়নি। মোদী এবং বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ নির্বাচনী প্রচারে লাগাতার পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলা এবং বালাকোট অভিযানের প্রসঙ্গ তুলে আদর্শ আচরণবিধি ভঙ্গ করেছেন, কিন্তু কমিশন তা কার্যত উপেক্ষাই করেছে।

প্রাক্তন আমলাদের অভিযোগ, নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা এবং কোথায় কত দফায় ভোট হবে তা ঠিক করার ক্ষেত্রেও পরোক্ষে বিজেপির সুবিধা করে দিয়েছে কমিশন।