ভাড়া বাড়ি খুঁজে দেওয়ার নাম করে গুরুগ্রামে বিদেশি তরুণীকে ধর্ষণ। অভিযুক্ত চলচ্চিত্র জগতের সঙ্গে যুক্ত। গুরুগ্রাম পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, স্পেনের বাসিন্দা ওই তরুণী সফ্টঅয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। বছর খানেক আগে ভারতের একটি নামী বহুজাতিক সংস্থায় ইন্টার্ন হিসাবে যোগ দিয়েছিলেন। বাড়ি ভাড়া নিয়েছিলেন গুরুগ্রামে। তবে সম্প্রতি অন্যত্র বাড়ি খুঁজছিলেন তিনি। সেই সূত্রে একটি ফেসবুক গ্রুপে অভিযুক্তর সঙ্গে আলাপ তাঁর।

বাড়ি খুঁজতে সাহায্য করবে বলে গত ১৪ জুন ডিএলএফ ফেজ ১-এ নিজের বাড়ির পার্টিতে ওই তরুণীকে ডেকে পাঠায় অভিযুক্ত। প্রাথমিক আলাপের পর সেখানে দু’জনের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা হয়। কিন্তু যৌনতার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন নির্যাতিতা। পরে অভিযুক্তের জোরাজুরিতে সেখানে রাত কাটাতে রাজি হয়ে যান তিনি। কিন্তু ঘুম ভাঙলে দেখেন তাঁর পাশে বসে হস্তমৈথুন করছে অভিযুক্ত। সেখান থেকে বেরিয়ে আসতে গেলে তাঁকে ধর্ষণ করে সে।

আরও পড়ুন: নবান্নর পরিবর্তে কোথায় হতে পারে বৈঠক? মতভেদ আন্দোলনকারী জুনিয়র ডাক্তারদের মধ্যেই​

আরও পড়ুন: পুলওয়ামার কায়দায় ফের হামলা হতে পারে কাশ্মীরে, এ বার সতর্ক করল পাকিস্তান​

শনিবার সকালে প্রথমে পুলিশ কন্ট্রোল রুমে ফোন করে কেউ এক জন ধর্ষণের অভিযোগ করে বলে দাবি পুলিশের। তার পর বেলার দিকে এক বন্ধুর সঙ্গে ওই তরুণী ডিএলএফ-১ থানায় এসে হাজির হন। ডাক্তারি পরীক্ষার পর নগর আদালতে তাঁর বয়ান রেকর্ড করা হয়। তার পর গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্তকে। ৩৬ বছরের ওই যুবকের নাম আনজানে। আদতে দিল্লির আনন্দবিহারের বাসিন্দা সে। উদ্যোগ বিহারের একটি প্রযোজনা সংস্থায় কর্মরত। তার বিরুদ্ধে ৩৭৬ ধারায় (ধর্ষণ) এবং ৩৪২ ধারায় (বন্দি করে রাখা) মামলা দায়ের হয়েছে। অভিযুক্ত জেরায় অপরাধ স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছেন ডিএলএফ-এর এসিপি কর্ণ গয়াল।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের YouTube Channel - এ।