উপ-মুখ্যমন্ত্রীর পর এবার সমবায় মন্ত্রী। ফের রাম মন্দির তৈরি নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য উত্তরপ্রদেশের বিজেপি নেতার। এবার সরাসরি সুপ্রিম কোর্টকে জড়িয়ে। যোগী আদিত্যনাথ মন্ত্রিসভার সমবায় মন্ত্রী মুকুট বিহারী বর্মা বলেন, অযোধ্যায় রাম মন্দির হবেই। কারণ সুপ্রিম কোর্ট আমাদের। মন্ত্রীর এই মন্তব্যের পরই শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক। বিরোধীদের তোপ তো রয়েছেই, সঙ্গে মুকুট বিহারী আদালত অবমাননার দায়ে পড়তে পারেন বলে মনে করছেন আইনজ্ঞদের একটা বড় অংশ।

শনিবার উত্তরপ্রদেশের বাহরাইচ জেলায় একটি সাংবাদিক বৈঠক করেন মন্ত্রী মুকুট বিহারি বর্মা। সেখানেই তিনি বলেন, ‘‘অযোধ্যায় রাম মন্দির তৈরি করা আমাদের শপথ। সুপ্রিম কোর্ট আমাদের। আইন ব্যবস্থা, এই দেশ এবং রাম মন্দিরও আমাদের।’’ সাংবাদিকদের তিনি আরও বলেন, উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিজেপি ক্ষমতায় এসেছিল ঠিকই, কিন্তু একই সঙ্গে অযোধ্যায় রাম মন্দির তৈরি করতেও বদ্ধপরিকর তাঁদের দল।

মন্ত্রীর এই মন্তব্যের পরই বিতর্কের ঝড় ওঠে। মুসলিম কট্টরপন্থী সংগঠন ও নেতারা মন্ত্রীর সমালোচনায় সরব হন। সোশ্যাল মিডিয়াতেও মন্ত্রীর সমালোচনায় সরব হন নেটিজেনরা। তার পর অবশ্য চাপে পড়ে অন্য একটি ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন মন্ত্রী। মন্ত্রীর সাফাই, ‘‘সুপ্রিম কোর্ট ‘আমাদের’ বলতে আমি বোঝাতে চেয়েছি, ‘আমাদের দেশের’। কখনওই বলতে চাইনি, শীর্ষ আদালত বিজেপি সরকারের।’’ কিন্তু সুপ্রিম কোর্টে যখন রাম মন্দির মামলা বিচারাধীন, তখন মন্ত্রীর এই মন্তব্যে নতুন করে বিতর্কে ইন্ধন জুগিয়েছে।

আরও পড়ুন: শর্মিলা-পটৌডীর বিয়ে নিয়েও প্রশ্ন সঙ্ঘের অনুষ্ঠানে

আরও পডু়ন: উচ্চবর্ণের সংরক্ষণের সমর্থনে মুখ খুললেন রামবিলাস পাসোয়ান

গত মাসেই উত্তরপ্রদেশের উপ-মুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌর্যও রাম মন্দির নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন। তিনি বলেন, অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণ করতে সংসদে বিল পেশ করতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার। সব পথ বন্ধ হয়ে গেলে এবং রাজ্যসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার পর সেই বিল আনা হতে পারে। তা নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। সেই রেশ কাটতে না কাটতেই সে রাজ্যেরই আরেক মন্ত্রীর মন্তব্য ঘিরে রাম মন্দির বিতর্কের পারদ চড়ছে।

(দেশজোড়া ঘটনার বাছাই করা সেরা বাংলা খবর পেতে পড়ুন আমাদের দেশ বিভাগ।)