উত্তরপ্রদেশের সোনভদ্র জেলায় হিংসা এবং জনজাতি হত্যার ঘটনায় আজ সংসদে সরব হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল। পাশাপাশি, দলনেত্রীর নির্দেশে রাজ্যসভার দলনেতা ডেরেক ও’ব্রায়েনের নেতৃত্বে তৃণমূলের একটি প্রতিনিধি দল কাল যাচ্ছে সোনভদ্র জেলার ঘোরোয়াল থানার সেই উভভা গ্রামে। এখানেই গত বুধবার জমি বিবাদকে কেন্দ্র করে তুমুল সংঘর্ষ হয়। 

আজ ওই গ্রামে ঢুকতে বাধা পেয়ে কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা বঢরা ধর্নায় বসেছিলেন। সূত্রের খবর, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফোনে কথা বলেছেন প্রিযঙ্কার সঙ্গে। তৃণমূল সাংসদেরও জানিয়েছেন, ওই গ্রামে গিয়ে নিহতদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলতে চান তাঁরা। 

আজ রাজ্যসভায় বিষয়টি তুলে তৃণমূলের সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায় বলেন, ধনী কৃষকেরা গরীবদের জমি ছিনিয়ে নিয়ে তাদের খুন পর্যন্ত করছে। ২০০ ট্রাক নিয়ে এসে তাণ্ডব চালানো হয়েছে উত্তরপ্রদেশের গ্রামে। সুখেন্দুশেখরের প্রশ্ন, ‘‘পশ্চিমবঙ্গে পান থেকে চুন খসলে অ্যাডভাইসারি পাঠানো হয়। কিন্তু সোনভদ্রের মর্মান্তিক ঘটনার পরেও সেই রাজ্যে কেন অ্যাডভাইসারি পাঠানো হবে  না? কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সংসদে এসে এই ঘটনার ব্যাখ্যা দিন।’’ 

তৃণমূলের পক্ষ থেকে একটি বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, কাল সকালে ডেরেক ও’ব্রায়েন, সুনীল মণ্ডল, আবীররঞ্জন বিশ্বাস এবং উমা সোরেন সকালে বিমানে বারাণসী যাবেন। সেখান থেকে গাড়িতে উভভা গ্রামে যাওয়ার কথা রয়েছে তাঁদের।