• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

৩৩০ কোটির রাম মূর্তির জন্য দরবার আদিত্যনাথের

Yogi Adityanath

তিনশো তিরিশ কোটি টাকা খরচ করে সরযূ নদীর ধারে একশো মিটার উঁচু রামের মূর্তি তৈরির জন্য এ বার বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের দিকে হাত বাড়ালেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। তাঁর সরকারের আশা, কর্পোরেট সংস্থাগুলি তাদের সামাজিক দায়বদ্ধতা (কর্পোরেট সোশ্যাল রেসপন্সিবিলিটি বা সিএসআর) সংক্রান্ত বাজেট থেকে কয়েকশো কোটি টাকা খরচ করবে রামের মূর্তি বানানোর জন্য।

দশ দিন আগে এ ব্যাপারে রাজ্যের পর্যটন দফতর একটি বুকলেট প্রকাশ করেছে। তাতে সিএসআর-এ বিনিয়োগের সুযোগের কথা রয়েছে। রয়েছে অযোধ্যা, বারাণসী এবং গোরক্ষপুর-সহ আরও বেশ কিছু শহরে ৮৬টি পর্যটন প্রকল্পের কথাও।

কিন্তু রাম মূর্তি তৈরির জন্য এই ভাবে যোগী সরকার টাকা চাইতে পারে কি? বিষয়টি নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক বিতর্ক। সমাজবাদী পার্টির মুখপাত্র জুহি সিংহ প্রশ্ন তুলেছেন, ‘‘সিএসআর-এ আখেরে লাভ হয় ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলির। কারণ, তারা কর ছাড় পায়। তার মানে টাকা যাচ্ছে সাধারণ মানুষের পকেট থেকেই। যোগীজি আপনাদের তো বড় দল। টাকার জন্য দলের কাছে যাচ্ছেন না কেন? সিএসআর-এর টাকা এ ধরনের কাজে লাগানো যায় না। তবে প্রতি দিনই সামাজিক দায়বদ্ধতার নয়া সংজ্ঞা তৈরি করছেন উনি।’’

যোগী সরকারের দাবি, এমন নয় যে এ ঘটনা প্রথম হচ্ছে। গুজরাতে সর্দার বল্লভভাই পটেলের মূর্তি তৈরির সময়ে ১২১ কোটিরও বেশি টাকার ব্যয়ভার বহন করেছিল বেসরকারি বেশ কয়েকটি তৈল সংস্থা। সেটি সংস্থার সিএসআর থেকেই এসেছিল।

হাসপাতাল তৈরি না করে সিএসআর-এর টাকায় রাজ্যে রামের মূর্তি তৈরি কি যথাযথ? পর্যটনমন্ত্রী রীতা বহুগুণা জোশীর বক্তব্য, ‘‘কাউকে বাধ্য করা হচ্ছে না। একে ধর্ম নিয়ে পর্যটন ভাববেন না। বলুন তো কোন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান মন্দিরে বিনিয়োগ করে না?’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন