• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিনোদন

‘ডাস্কি’ থেকে ‘ফর্সা’ হয়েছেন যে বলি নায়িকারা

শেয়ার করুন
Bollywood Actress
এই উপমহাদেশে কালো এবং ফর্সা রঙের সমীকরণটা খুবই গোলমেলে। সুন্দরী মানেই ফর্সা ও পেলব ত্বকের তকমা সেঁটে দেওয়া হয়। বি-টাউনও সেখানে ব্যতিক্রম নয়। রীতিমতো সার্জারি এবং স্কিন ট্রিটমেন্ট করিয়ে ‘ডাস্কি’ থেকে ফর্সা হয়েছেন এমন নায়িকার উদাহরণ ভুরি ভুরি। চলুন দেখে নেওয়া যাক এমনই কয়েকজন বলিউড ডিভাকে।
Kajol
কাজল: মেলানিন সার্জারি করিয়ে বি-টাউনে সবচেয়ে বেশি সমালোচিত হয়েছেন যে নায়িকা তাঁর নাম কাজল। সুন্দরী হিসেবে তাঁর পরিচিতি ছিল গাঢ় রঙের জন্যই। ‘বাজিগর’ ছবির কথা মনে আছে? সেখানে নিজের রিয়েল লুকেই ধরা দিয়েছিলেন কাজল। কিন্তু ক্রমশ এই রঙের বদল হতে থাকে। বর্তমানে নিজের দুধে-আলতা রঙের রহস্য প্রকাশ্যে আনেননি নায়িকা। তবে মিডিয়ার দাবি, মেলানিন সার্জারি করিয়ে স্থায়ীভাবে ত্বকের রঙে বদল করিয়েছেন কাজল।
Priyanka Chopra
প্রিয়ঙ্কা চোপড়া: বিশ্ব সুন্দরীর খেতাব জেতা ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রিয়ঙ্কা আর বর্তমানের প্রিয়ঙ্কার মধ্যে বেশ অনেকটাই ফারাক। শোনা গিয়েছে, বারংবার সার্জারি করিয়ে গায়ের রং ফর্সা করিয়েছেন নায়িকা। তবে, শুধু রং নয়, তাঁর চেহারাতেও এসেছে অনেক বদল। রহস্যটা কী? মুখ খোলেননি নায়িকা।
Shilpa Shetty
শিল্পা শেট্টি: লক্ষ্য করলেই দেখবেন কেরিয়ারের শুরুর দিকের শিল্পা এবং কুন্দ্রা ঘরণী শিল্পার মধ্যে আকাশ-পাতাল পার্থক্য। বি-টাউনে গুঞ্জন, সার্জারি করিয়ে তামাটে থেকে ফর্সা রঙের হয়েছেন এই বলি ডিভা। তবে নায়িকার দাবি, সার্জারি নয় এটা নিছকই নাকি ‘প্রেগন্যান্সি গ্লো।’
Bipasha Basu
বিপাসা বসু: ২০০৫ এবং ২০০৭ সালে এশিয়ার ‘সেক্সিয়েস্ট ওম্যান’-এর খেতাব জিতেছিলেন বি-টাউনের ‘ডাস্কি বিউটি’ বিপাসা। নিন্দুকদের মুখ বন্ধ করতে, নিজের গায়ের রঙের জন্য তিনি গর্বিত বলেও জানিয়েছিলেন নায়িকা। কিন্তু তারপর? সিলিকন সার্জারি থেকে ‘স্কিন লাইটনিং ট্রিটমেন্ট’— ফর্সা এবং আকর্ষণীয় হয়ে উঠতে কোনও কিছুই বাদ দেননি নায়িকা।
Sridevi
শ্রীদেবী: দুধে-আলতা রং না হলেও ফর্সাই ছিলেন নায়িকা। তবে শোনা গিয়েছে, আরও গ্ল্যামারাস হয়ে উঠতে নাকি একাধিক বার প্লাস্টিক সার্জারি করিয়েছিলেন তিনি। কেরিয়ারের শুরুতে অনেক তামিল সিনেমাতে যে লুকে দেখা গিয়েছিল নায়িকাকে পরের ছবিগুলিতে তার অনেকটাই বদল লক্ষ্য করা গিয়েছিল।
Rekha
রেখা: চিরযৌবনা রেখার গায়ের রং নিয়ে অনেক চর্চা হয়েছে। নায়িকা নিজেই জানিয়েছিলেন, অভিনয় জগতে পা রাখার পরে নিজের গায়ের রং নিয়ে অনেক মন্তব্য এবং সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল তাঁকে। সার্জারির কথা প্রকাশ্যে না আনলেও, পরবর্তীকালে কৃষ্ণবর্ণা রেখার চেহারায় এবং গায়ের রঙে অনেক বদল দেখা গিয়েছে।
Hema Malini
হেমা মালিনী: বলিউডের ‘ড্রিম গার্ল’ও কিন্তু কৃষ্ণবর্ণা ছিলেন। চমকে গেলেন? শোনা গিয়েছে, এই রঙের জন্যই নাকি কেরিয়ারের শুরুতে ফিল্ম পেতে অসুবিধা হত নায়িকার। শোনা যায়, সার্জারি করিয়ে ত্বকের রং বদলে ফেলেন তিনি।

Advertisement

Advertisement

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
বাছাই খবর
আরও পড়ুন