• শুভজিৎ মজুমদার
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সূচি নিয়ে তোপ দেগে নেরোকা ম্যাচের মহড়া আলেসান্দ্রোর

East Bengal
প্রস্তুতি: অনুশীলন শুরুর আগে ফুটভলিতে ব্যস্ত জবি জাস্টিন ও খাইমে সান্তোস কোলাদো। বুধবার যুবভারতীতে। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

যুবভারতীতে ইস্টবেঙ্গলের প্রতিপক্ষ নেরোকা এফসি। কিন্তু  ম্যাচের চব্বিশ ঘণ্টা আগে কোচ আলেসান্দ্রো মেনেন্দেস গার্সিয়ার ভাবনায় যেন শুধুই রিয়াল কাশ্মীর!

জনি আকোস্তা তিনটি হলুদ কার্ড দেখে রয়েছেন। নেরোকার বিরুদ্ধে ফের কার্ড দেখা মানেই দল থেকে ছিটকে যাবেন কোস্টা রিকার হয়ে দু’টো বিশ্বকাপ খেলা ডিফেন্ডার। এই পরিস্থিতিতে আকোস্তাকে খেলানোর ঝুঁকি কি নেবেন লাল-হলুদ কোচ? আবার তাঁকে না খেলানোর সিদ্ধান্তও ব্যুমেরাং হয়ে যেতে পারে। 

বুধবার সকালে যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন সংলগ্ন মাঠে ম্যাচ প্র্যাক্টিসে একাধিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করলেন আলেসান্দ্রো। শুরুতে প্রথম দলে রাখলেন আকোস্তাকে। পরে তাঁকে বাদ দিয়েই রক্ষণ সাজালেন। শেষ পর্যন্ত কী করবেন, তা অবশ্য সময়ই বলবে। তবে লালরাম চুলোভার খেলা নিয়ে আপাতত কোনও সংশয় নেই। পুরোদমেই অনুশীলন করেছেন এই লাল-হলুদ ডিফেন্ডার।

নেরোকার বিরুদ্ধে আজ, বৃহস্পতিবার ম্যাচ ইস্টবেঙ্গলের। শনিবার জবি জাস্টিনদের শ্রীনগর রওনা হওয়ার কথা। এ দিন গোকুলম এফসিকে হারিয়ে আই লিগের শীর্ষ স্থান দখল করা রিয়াল কাশ্মীরের বিরুদ্ধে ম্যাচ রবিবার। অর্থাৎ, পর্যাপ্ত বিশ্রাম তো দূরের কথা, প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগও কার্যত নেই। কাশ্মীর ম্যাচের চার দিন পরেই আবার লাজং এফসি-র বিরুদ্ধে খেলা। (১৪ ফেব্রুয়ারি)। এবং এর তিন দিন পরে প্রতিপক্ষ চার্চিল ব্রাদার্স (১৭ ফেব্রুয়ারি)। ১১ দিনে চারটি ম্যাচ খেলতে হবে জবি জাস্টিনদের। ক্ষুব্ধ আলেসান্দ্রো সাংবাদিক বৈঠকে বললেন, ‘‘ক্রীড়াসূচিতেই স্পষ্ট পরিকল্পনার অভাব। এর ফলে ফুটবলারদের সঙ্গে দলগুলোর ক্ষতি হচ্ছে।’’ তিনি যোগ করেন, ‘‘খুব অল্প সময়ের মধ্যে আমাদের একাধিক ম্যাচ খেলতে বাধ্য করা হচ্ছে। আই লিগকে জনপ্রিয় ও সফল করতে হলে এই ব্যাপারগুলোয় নজর দিতেই হবে। শুধু ব্যবসার কথা ভাবলে চলবে না।’’

আই লিগে ইস্টবেঙ্গল শেষ ম্যাচ খেলেছিল ২৭ জানুয়ারি মোহনবাগানের বিরুদ্ধে। ১১ দিন পরে তারা নেরোকার বিরুদ্ধে খেলতে নামছে। অথচ এখন খেলতে হবে ১১ দিনে চারটি ম্যাচ! কেন? আই লিগের চিফ এগজিকিউটিভ অফিসার (সিইও) সুনন্দ ধর দিল্লি থেকে ফোনে বললেন, ‘‘প্রত্যেকটা দলকেই আই লিগের ক্রীড়াসূচির খসড়া পাঠানো হয়েছিল। ওদের অনুমোদনের পরেই চূড়ান্ত ক্রীড়াসূচি হয়েছে। এখন হঠাৎ প্রশ্ন তোলার কোনও যুক্তি নেই।’’ 

এর আগে মোহনবাগানের প্রাক্তন কোচ সঞ্জয় সেন ক্রীড়াসূচি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে ফেডারেশনের শাস্তির কবলে পড়েছিলেন। আলেসান্দ্রোর ক্ষেত্রেও কি তাই হবে? আই লিগের সিইও বলছেন, ‘‘ফেডারেশনের বিরুদ্ধে মন্তব্য করা যায় না। সব খতিয়ে দেখেই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’’

তবে যে নেরোকা-কে হারিয়ে আই লিগে অভিযান শুরু করেছিল ইস্টবেঙ্গল, সেই দল এখন অনেক বদলে গিয়েছে। গত মরসুমে মিনার্ভা এফসি-কে চ্যাম্পিয়ন করার অন্যতম কারিগর চেঞ্চো গেলতসেন কয়েক দিন আগেই বেঙ্গালুরু এফসি থেকে লোনে যোগ দিয়েছেন মণিপুরের দলে। নিজেকে প্রমাণ করতে মরিয়া তিনি। কাতসুমি ইউসা ও এদুয়ার্দো ফেরেইরাকে এ বার রাখেনি ইস্টবেঙ্গল। পুরনো দলের বিরুদ্ধে নামার আগে দুই তারকাই ফুটছেন। বুধবার সকালে অনুশীলনের পরে এদুয়ার্দোর হুঙ্কার, ‘‘প্রচুর পরিশ্রম করেছি। প্রায় দশ কেজি ওজন কমিয়েছি। ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে একশো নয়, দুশো শতাংশ দেওয়ার জন্য তৈরি।’’ নেরোকা কোচ ম্যানুয়েল রেতামেরো বলেছেন, ‘‘ওরা আমাদের হারিয়েছিল আই লিগের প্রথম ম্যাচে। এখন পরিস্থিতি বদলে গিয়েছে। আমরা কলকাতায় বেড়াতে আসিনি। ইস্টবেঙ্গল যদি ভাবে সহজে জিতবে, ভুল করবে।’’

বৃহস্পতিবার আই লিগে: ইস্টবেঙ্গল বনাম নেরোকা এফসি (যুবভারতী, বিকেল ৫টা)।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন