সোনা জিতে আবার এশীয় সেরা হলেন বজরঙ্গ পুনিয়া। বিশ্বের এক নম্বর ভারতীয় কুস্তিগির চিনের জিয়ানে মঙ্গলবার টানা দশ পয়েন্ট তুলে চমকে দিলেন। এশীয় চ্যাম্পিয়শিপে পুরুষদের ৬৫ কেজি ফ্রিস্টাইল কুস্তি বিভাগে বজরঙ্গের লড়াইটা ছিল কাজাখস্তানের সায়াতবেক ওকাসভের সঙ্গে। যে লড়াই ভারতীয় তারকা শেষ পর্যন্ত জেতেন ১২-৭ ফলে।

বজরঙ্গ কিন্তু এ দিন বেশ নাটকীয় ভাবে সোনা জেতেন। একটা সময় তিনি ২-৭ ফলে পিছিয়ে ছিলেন। লড়াই শেষের ঘণ্টা বাজতে মাত্র ৬০ সেকেন্ড বাকি ছিল। দেওয়ালে কার্যত পিঠ ঠেকে যাওয়া অবস্থা থেকে ঝাঁপিয়ে পড়েন কমনওয়েলথ ও এশিয়ান গেমসে সোনাজয়ী বজরঙ্গ। টানা তিন বার কুস্তির প্যাঁচে বিপক্ষকে ফেলে দেওয়ার কৌশল কাজে লাগিয়ে আট পয়েন্ট তুলে নেন। সঙ্গে প্রতিপক্ষকে একই জায়গায় দাঁড় করিয়ে জিতে নেন আরও দু’টি মূল্যবান পয়েন্ট। 

ভারতীয় তারকার এমন আকস্মিক ও মারাত্মক আক্রমণের সামনে কাজাখস্তানের কুস্তিগিরকে রীতিমতো ক্লান্ত, বিধ্বস্ত ও হতচকিত দেখিয়েছে। শেষ পর্যন্ত বজরঙ্গের মনোবল আর বুদ্বির সঙ্গে তিনি পেরে ওঠেননি। এই প্রতিযোগিতায় এ বারেরটা নিয়ে দু’টি সোনা জেতা হয়ে গেল বজরঙ্গের। এই অবিশ্বাস্য পারফরম্যান্সের পরে বিশ্লেষকরা বলে দিলেন, ২০২০ সালের টোকিয়ো অলিম্পিক্সে তিনিই সম্ভাব্য সোনাজয়ী।  

এশীয় আসরে এ বার ফাইনালে ওঠার পথে তিনি মাত্র একটি পয়েন্ট খুইয়েছেন। উজবেকিস্তানের নামী কুস্তিগির সিরোজিদ্দিন খাসানভকে তিনি সেমিফাইনালে ১২-১ ফলে হারিয়ে রীতিমতো চমকে দেন। তার আগে শ্রীলঙ্কার চার্লস ফার্ন ও ইরানের পেমান বিয়াবানি কার্যত কোনও প্রতিরোধই গড়তে পারেননি বজরঙ্গের আগ্রাসী কুস্তির সামনে। 

এশীয় আসরে ভারত কিন্তু এ বার আরও একটি সোনা জিততে পারে। কারণ ৭৯ কেজি বিভাগে ফাইনালে উঠেছেন পরভিন রানা।