• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

যুবদের আচরণ মানতে পারছেন না কপিল

Kapil
ক্ষুব্ধ: বিষ্ণোইদের বিরুদ্ধে বোর্ডকে কড়া হতে বলছেন কপিল। ফাইল চিত্র

Advertisement

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালের শেষে দু’দেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনায় ক্ষুব্ধ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব। বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ে এক অনুষ্ঠানে রবি বিষ্ণোইদের আচরণের তীব্র সমালোচনা করলেন তিনি।

কপিলকে প্রশ্ন করা হয়, ক্রিকেট ভদ্রলোকদের খেলা। সেখানে এ ধরনের আচরণ মানা যায়? ভারতের প্রাক্তন অধিনায়কের উত্তর, ‘‘কে বলছে ক্রিকেট ভদ্রলোকদের খেলা? আগে হয়তো ছিল। এখন আর নেই।’’ কপিলের উত্তরেই স্পষ্ট, তিনি কতটা ক্ষুব্ধ। বিশ্বকাপ ফাইনাল শেষে হাতাহাতির কারণে পাঁচ ক্রিকেটারের শাস্তি হয়েছে। ভারতের আকাশ সিংহ ও রবি বিষ্ণোইকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশের তৌহিদ হৃদয়, শামিম হোসেন ও রাকিবুল হাসান বেশ কয়েকটি ম্যাচ নির্বাসিত। 

কপিলকে আরও প্রশ্ন করা হয়, এই ঘটনাকে কী ভাবে দেখছেন? তাঁর উত্তর, ‘‘ম্যাচ শেষে যা হয়েছে তা অত্যন্ত ভয়ঙ্কর। যে কোনও দল ম্যাচে হারতেই পারে। কিন্তু এ ধরনের আচরণ একেবারেই কাম্য নয়। চুপচাপ ড্রেসিংরুমে ফিরে আসা উচিত ছিল। দু’দেশের ক্রিকেট বোর্ডের উচিত ওদের বিরুদ্ধে কঠোর সিদ্ধান্ত নেওয়া। যাতে ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা আর না ঘটে।’’

কপিল সব চেয়ে বেশি ক্ষুব্ধ, দু’দেশের সাপোর্ট স্টাফ ও ম্যানেজারের উপরে। বলছিলেন, ‘‘সব চেয়ে বেশি দোষ দেব অধিনায়ক, ম্যানেজার ও যাঁরা ডাগ আউটে বসেছিলেন, তাঁদের। অনেক সময় একজন ১৮ বছর বয়সি ছেলে বুঝতে পারে না কী আচরণ করা উচিত। কিন্তু এ ধরনের কোনও ঘটনা যাতে না ঘটে সেটা তো ম্যানেজারের দেখতে হবে।’’

এ দিকে বিশ্বকাপের ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট যশস্বী জয়সওয়ালের ট্রফি ভেঙে গিয়েছিল। বৃহস্পতিবার তা মেরামতও করে দেওয়া হয়েছে। অনেকে মনে করছেন রাগের মাথায় ট্রফি ভেঙে দিয়েছেন যশস্বী। কিন্তু সংবাদ সংস্থা পিটিআই-কে এক কর্তা বলেন, যাতায়াতের পথে ভেঙে গিয়েছিল ট্রফি। এ ধরনের ঘটনা অস্বাভাবিক কিছু নয়।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন