জন্মদিনেও মুখে হাসি নেই  কামো স্তেফানে বায়ো-র!

প্র্যাকটিস শেষ হওয়ার পর সকলের আগে থমথমে মুখে এক সমর্থকের বাইকের পিছনে বসে ক্লাব তাঁবু ছেড়ে বেরিয়ে গেলেন তিনি।

হঠাৎ কী হল মোহনবাগান স্ট্রাইকারের?

সাদার্ন সমিতিকে ৩-০ গোলে হারিয়ে কলকাতা প্রিমিয়ার লিগে অভিযান  শুরু করেছে মোহনবাগান। সেই ম্যাচে আনসুমানা ক্রোমা, শিল্টন ডি’সিলভা ও আজহারউদ্দিন মল্লিক গোল করলেও ব্যর্থ কামো। আর তাই হতাশ গত মরসুমে আইজল এফসি-র আই লিগ জয়ের অন্যতম নায়ক। কামো বললেন, ‘‘আমি প্রত্যেকটা ম্যাচেই গোল করার লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামি। প্রথম ম্যাচে গোল করতে না পারার যন্ত্রণা ভোলা কঠিন।’’ সেই সঙ্গে জানিয়ে দিলেন আজ, শুক্রবার রেলওয়ে এফসি-র বিরুদ্ধে গোল করাই তাঁর একমাত্র লক্ষ্য। দিদিয়ে দ্রোগবার দেশের স্ট্রাইকারের শপথ, ‘‘রেলওয়ে এফসি-র বিরুদ্ধে আমাকে গোল করতেই হবে।’’

গোলে ফিরতে কামো কতটা মরিয়া, তা এ দিন প্র্যাকটিসেই বোঝা গিয়েছে। ম্যাচের আগের দিন বলে হাল্কা অনুশীলন করিয়েছেন কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তী। ওয়ার্ম আপের পর প্রথমে রাগবি। তার পর অর্ধেক মাঠে মিনিট কুড়ির ম্যাচ প্র্যাকটিস। কিন্তু কামো-কে দেখে বোঝা যায়নি যে প্র্যাকটিস ম্যাচ খেলছেন। শিল্টনের সঙ্গে জুটি বেঁধে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ঝাঁপিয়েছেন। তবে প্রতিপক্ষ রেলওয়ে এফসি সম্পর্কে একেবারেই ধারণা নেই তাঁর। কামো বললেন, ‘‘প্রতিপক্ষকে যেই হোক, আমাকে গোল করতেই হবে।’’

মোহনবাগানের প্রতিপক্ষ রেলওয়ে এফসি প্রথম ম্যাচেই ধাক্কা খেয়েছে। টালিগঞ্জ অগ্রগামীর বিরুদ্ধে ০-১ গোলে হেরেছে তারা। শুধু তাই নয়। দুই বিদেশি দলের সঙ্গে নিয়মিত প্র্যাকটিস করলেও তাঁদের খেলা নিয়ে ধোঁয়াশা অব্যাহত। তবে সৈকত সাহারায়, সুখেন দে, মিঠুন সাহা-র মতো বড় ক্লাবে খেলা বেশ কয়েকজন অভিজ্ঞ ফুটবলার আছেন রেল দলে। যদিও প্রতিপক্ষকে দুর্বল বলতে সবুজ-মেরুন কোচ একেবারেই নারাজ। বৃহস্পতিবার সকালে মোহনবাগান মাঠে ঘণ্টাখানেক প্র্যাকটিসের পর শঙ্করলাল বললেন, ‘‘শুনলাম ওরা দুই বিদেশিকে সই করানোর চেষ্টা করছে। তা ছাড়া সিনিয়র ও জুনিয়রদের নিয়ে তৈরি রেলওয়ে এফসি-র ফুটবলারদের মধ্যে বোঝাপড়া খুব ভাল।’’ সঙ্গে যোগ করলেন, ‘‘বিদেশি থাক বা না থাক, কোনও ম্যাচই কিন্তু সহজ নয়।’’ আর রেলওয়ে এফসি কোচ সমীরণ পাল খোলাখুলিই জানাচ্ছেন, তাঁর প্রধান লক্ষ্য মোহনবাগানের জয়ের পথে কাঁটা ছড়িয়ে দেওয়া।

শুধু প্রতিপক্ষই নয়, শঙ্করলালের উদ্বেগ বাড়িয়েছেন নিজের দলেরই স্ট্রাইকার ক্রোমা। সাদার্ন সমিতির বিরুদ্ধে আগের ম্যাচে গোল করেছিলেন তিনি। কিন্তু এ দিন প্র্যাকটিসই করেননি। ফিজিক্যাল ট্রেনারের কাছে আলাদা ভাবে অনুশীলন করেন ক্রোমা। মোহনবাগান কোচ জানালেন, সামান্য চোট রয়েছে ক্রোমার। তাই প্র্যাকটিসের বদলে শুধু রি-হ্যাব করেছেন ফিজিক্যাল ট্রেনারের কাছে। শঙ্করলাল বললেন, ‘‘ম্যাচের আগে আর এক বার চোট ক্রোমার চোট পরীক্ষা হবে। তার পরেই বোঝা যাবে ও খেলতে পারবে কি না।’’ যদিও সবুজ-মেরুন অন্দরমহলের খবর, লাইবিরিয়ার স্ট্রাইকারের চোট গুরুতর নয়। রেলওয়ে এফসি-র বিরুদ্ধে তাঁর খেলার সম্ভাবনাই বেশি।

কলকাতা প্রিমিয়ার লিগ: মোহনবাগান বনাম রেলওয়ে এফসি (মোহনবাগান, বিকেল ৫.০০)।