• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ফিরে গেলেন বোরখা, কর্তাদের কাছে তিন ফুটবলার চান কোচ

Coach seeking three footballer
প্রস্তুতি: লাল-হলুদের অস্ত্র মার্কোস (বাঁ-দিকে) ও কোলাদো। নিজস্ব চিত্র

ছেলে দূরারোগ্য রোগে আক্রান্ত এই খবর পেয়ে দেশে ফিরে গিয়েছেন বোরখা গোমেস পিরেস। তাঁর ছোট ছেলের শারীরিক যা অবস্থা, তাতে চলতি মরসুমে এই স্পেনীয় ডিফেন্ডারকে হয়তো আর পাবেন না কোচ অলেসান্দ্রো মেনেন্দেস।

এমনিতে চার্চিল ব্রাদার্সের কাছে হারের পরে তীব্র চাপে লাল-হলুদ শিবির। এই অবস্থায় আই লিগের মাঝে বোরখা স্পেনে চলে যাওয়ায় সমস্যায় ইস্টবেঙ্গল। বিনিয়োগকারীরা তাঁর জায়গায় আর কোনও বিদেশি আনবেন, সে রকম পরিস্থিতিও নেই। শোনা যাচ্ছে, চুক্তিভঙ্গের মুখে আর কোনও টাকা খরচ করতে রাজি নয় তারা।

দলের এই ডামাডোলের মধ্যেই মঙ্গলবার সকালে কোচ আলেসান্দ্রোর সঙ্গে আলোচনা করতে দল বেঁধে হাজির হয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গলের শীর্ষ কর্তারা। এর আগে অনুরোধ করলেও স্পেনীয় কোচ আলোচনায় বসেননি। এ বার অবশ্য ক্লাব প্রেসিডেন্ট, সহ সচিব, ফুটবল সচিব এবং শীর্ষ কর্তাদের সঙ্গে অনুশীলনের পরে কথা বলেন আলেসান্দ্রো। সূত্রের খবর, দল গঠন নিয়ে তাঁর অসন্তোষ গোপন করেননি খেইমে কোলাদোদের কোচ। বোরখার চলে যাওয়া নিয়ে চিন্তার পাশাপাশি ইস্টবেঙ্গল তিনটি জায়গার জন্য ভাল ভারতীয় ফুটবলার চেয়েছেন। একজন স্ট্রাইকার, একজন উইঙ্গার এবং একজন মিডিয়ো চেয়েছেন তিনি। ক্লাবের শীর্ষ কর্তা বললেন, ‘‘আমরা এই তিনটি জায়গায় ভাল ফুটবলারের খোঁজ করেছি। দু’তিনদিনের মধ্যে কিছু নাম কোচের সামনে রাখব। ওঁর পছন্দ হলে নেবেন।’’ আলেসান্দ্রো অবশ্য বৈঠক নিয়ে কোনও কথা বলেননি। তিনি উঠে পড়েন গাড়িতে।

কোচের সঙ্গে কর্তাদের এই বৈঠক শেষে আই লিগে দলের ফল ভাল হওয়ার কোনও সোনালি রেখা অবশ্য পাওয়া যায়নি। ক্লাবের এক কর্তা বললেন, ‘‘ভাল ভারতীয় ফুটবলার পাওয়া কঠিন। তা ছাড়া এমন ফুটবলার বাছতে হবে, যারা আমাদের দলের ফুটবলারদের চেয়ে ভাল। আইএসএলের বিভিন্ন দলের রিজার্ভ বেঞ্চে বেশ কিছু ভাল ফুটবলার আছে। কিন্তু কেউই এখন তাঁদের ছাড়তে চাইবে না।’’ কিন্তু ক্লাব কর্তাদের বেছে দেওয়া ফুটবলার নিতে কোচ রাজি হলেও বিনিয়োগকারীরা কি তাঁদের সই করার অনুমতি দেবে? শীর্ষ কর্তা বললেন, ‘‘মনে হয় সমস্যা হবে না।’’ জানা গিয়েছে, বিনিয়োগকারী কর্তাদের সঙ্গে দল নিয়ে লাল-হলুদ কর্তাদের কথা চলছে। গন্ডগোল এড়িয়ে কী ভাবে দলকে ভাল করা যায়, সেই চেষ্টা চলছে। কিন্তু পরিস্থিতি যা, তাতে এ দিন রাত পর্যন্ত পুরো বিষয়টি নিয়ে কোনও সমাধানসূত্র বেরোয়নি। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন