চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রেফারির বিতর্কিত সিদ্ধান্তে লাল কার্ড দেখলেও ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো সম্ভবত রবিবারই ফুটবলে ফিরছেন। জুভেন্তাসের হয়ে সেরি আ-য় তাঁকে দেখা যাবে ফ্রোসিননের বিরুদ্ধে।

জুভেন্তাস কোচ মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রিরও ধারণা, রবিবারের ম্যাচেই মাঠে নামবেন রোনাল্ডো। ‘‘ভ্যালেন্সিয়ার বিরুদ্ধে লাল কার্ড দেখে ও খুবই ভেঙে পড়েছিল। এখন মাথা ঠান্ডা করার জন্য ওকে কিছুটা সময় দিতেই হবে। তবে লাল কার্ডের ঘটনা ভুলে নিজেকে ফিরে পাওয়ার কাজ শুরু করাই ওর প্রধান কর্তব্য,’’ বলেছেন আলেগ্রি। 

রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে আসার পরে জুভেন্তাসের হয়ে রোনাল্ডো প্রথম গোল পান সাসউয়োলোর বিরুদ্ধে। কিন্তু তার পরেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগে লাল কার্ডের ঘটনা। এখন যা পরিস্থিতি তাতে ইউরোপের সেরা প্রতিযোগিতায় ইয়ং বয়েজের বিরুদ্ধে তিনি খেলতে পারবেন না। এখন দেখার উয়েফা তাঁকে একাধিক ম্যাচের জন্য নির্বাসিত করে কি না। ফুটবল বিশ্লেষকদের ধারণা, এক ম্যাচের বেশি নির্বাসন হবে না রোনাল্ডোর। কারণ তাঁর অপরাধ তেমন মারাত্মক নয়। ইংল্যান্ডের ট্যাবলয়েডগুলির বিশ্বস্ত সূত্র জানিয়েছে, উয়েফার শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি গোটা ঘটনার ভিডিয়ো দেখে তার বিশ্লেষণ করেছে। কমিটির মনে হয়েছে, কোনওভাবেই তাঁকে এক ম্যাচের বেশি নির্বাসিত করাটা ঠিক হবে না। ফলে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে তাঁর খেলা আটকাবে না। যদিও রেফারি লাল কার্ড দেখানোর অনেক পরে তিনি মাঠ থেকে বেরিয়েছিলেন।  

ফুটবল জীবনে রোনাল্ডো এই নিয়ে এগারো বার লাল কার্ড দেখলেন। প্রিমিয়ার লিগ ও লা লিগায় দেখেছিলেন চার বার করে। স্প্যানিশ সুপার কাপ ও স্প্যানিশ কাপে দেখেছেন এক বার করে। তবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে লাল কার্ড দেখলেন এই প্রথম। ফুটবল বিশ্লেষকরা মনে করছেন, ভ্যালেন্সিয়া ম্যাচের আগে যে ক’বার তিনি লাল কার্ড দেখেন তার প্রতিটি ক্ষেত্রেই অপরাধ গুরুতর ছিল। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন্স লিগে হলুদ কার্ড দেখালেই সেটা যথেষ্ট হত। 

এ দিকে রোনাল্ডোর বোন কাতিয়া আভেইরো টুইট করেছেন, ‘‘ঈশ্বর আছেন। একদিন না একদিন ঠিকই সুবিচার পাওয়া যাবে।’’ এখানেই থামেননি আভেইরো। তিনি আরও লিখেছেন, ‘‘এক অজানা শক্তি আমার ভাইয়ের ফুটবল জীবনকে ধ্বংস করার খেলায় নেমেছে। ভ্যালেন্সিয়ায় যা ঘটছে তা ফুটবলের লজ্জা।’’ পাশাপাশি খানিকটা উল্টো পথে হেঁটে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডে তাঁর প্রাক্তন সতীর্থ ওয়েন রুনির মন্তব্য করেছেন, ‘‘হতে পারে ভ্যালেন্সিয়ার বিরুদ্ধে ওকে লাল কার্ড দেখানোর সিদ্ধান্তটা ভুল। কিন্তু ভুললে চলবে না,  অতীতে বহু বার ও এর চেয়েও বড় অপরাধ করে বেঁচে গিয়েছে।’’