• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কুটিনহোর হুঙ্কারে ম্লান জয়োৎসব

Philippe Coutinho

রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ। নাটকীয় জয়। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন্স লিগ প্লে-অফে হফেনহাইমের বিরুদ্ধে লিভারপুলের জয়ের উল্লাস উধাও ফিলিপে কুটিনহোর হুঙ্কারে!

মঙ্গলবার রাতে ঘরের মাঠে ম্যাচের ১২ মিনিটেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ ছিল হফেনহাইমের। কিন্তু আন্দ্রেই ক্রামারিচের পেনাল্টি কিক বাঁচিয়ে দেন লিভারপুল গোলরক্ষক সিমন মিগনোলেট। এর ২৩ মিনিটের মধ্যেই ফ্রি-কিক থেকে বিশ্বমানের গোল করে লিভারপুলকে এগিয়ে দেন ট্রেন্ট আলেকজান্ডার আর্নল্ড। লিভারপুল অ্যাকাডেমি থেকেই উঠে এসেছেন আঠারো বছর বয়সি এই স্ট্রাইকার। উচ্ছ্বসিত ক্লপ বলেছেন, ‘‘অসাধারণ গোল করেছে আর্নল্ড। ভবিষ্যতে তারকা হয়ে ওঠার যাবতীয় উপাদান ওর মধ্যে মজুদ। গত বছর ওকে অনূর্ধ্ব-২৩ দলের হয়ে ফ্রি-কিকে গোল করতে দেখেছি। তার পর আমিই আর্নল্ডকে ফ্রি-কিক মারার পরামর্শ দিয়েছিলাম।’’

৭৪ মিনিটে হফেনহাইমের ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার হাভার্ট নর্তভেইতের আত্মঘাতী গোলে ফের এগিয়ে যায় লিভারপুল। ৮৭ মিনিটে তাঁর পাস থেকেই অবশ্য মার্ক ব্যবধান কমান মার্ক উথ।

আরও পড়ুন: ক্যাচ ধরে বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন নাসির হুসেন, দেখুন ভিডিও

ম্যাচের পর সাংবাদিক বৈঠকে ম্যানেজার য়ুর্গেন ক্লপ বলেছেন, ‘‘হফেনহাই তাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলেছে। কিন্তু অনেক বেশি ঝুঁকি নিয়েছিলাম। প্রথমার্ধে নিজেরাই নিজেদের বিপদ ডেকে এনেছিলাম। এখন আমি অ্যানফিল্ড গ্রান্ডে দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচের অপেক্ষায় রয়েছি।’’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘‘আমাদের ভুলেই ওরা গোল করতে পেরেছে।’’ যদিও ক্লপের দাবি উড়িয়ে দিয়ে হফেনহাইম ম্যানেজার জুলিয়ান নাগেলম্যান বলেছেন, ‘‘ম্যাচে আমাদেরই আধিপত্য ছিল।’’

আর্নল্ডের উত্থানের রাতেই লিভারপুলের বিরুদ্ধে কার্যত যুদ্ধ ঘোষণা করলেন কুটিনহো। ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘‘ক্লপকে বলে দিন, কোনও অবস্থাতেই আমি লিভারপুলে আর খেলব না।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন