• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আশা ছাড়ছেন না সোলসার, সময়ও কিন্তু দাঁড়িয়ে নেই

Anthony Martial
হতাশা: গোল করেও দলকে জেতাতে পারলেন না মার্শিয়াল। এএফপি

সাউদাম্পটনের কাছে সোমবার রাতের ম্যাচের একেবারে শেষ প্রহরে সংযুক্ত সময়ে গোল খেয়ে লিগ টেবলে পঞ্চমেই থেকে যায় ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড। যদি তারা জিতত, তিনে উঠে আসতে পারত। তা হলে প্রথম চারের মধ্যে থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার যোগ্যতা সরাসরি অর্জন করার রাস্তা অপেক্ষাকৃত সহজ দেখাত। মঙ্গলবার রাতের খেলায় আবার ৫৯ মিনিট পর্যন্ত নরউইচ সিটির বিরুদ্ধে ১-০ এগিয়ে চেলসি। প্রথমার্ধের সংযুক্ত সময়ে গোল করেন অলিভিয়ের জিহু।

২-২ ড্রয়ের পরেও অবশ্য প্রবল ভাবে আশাবাদী ম্যান ইউনাইটেড ম্যানেজার ওলে গুন্নার সোলসার। তিনি বলে দিচ্ছেন, তাঁর ফুটবলারেরা ঘুরে দাঁড়াবে। সব কিছু ঠিক করবে এবং লিগ টেবলে উপরের দিকে উঠে আসবে। ‘‘এই মরসুমে নানা বাধাবিঘ্নের মধ্যে দিয়ে আমরা গিয়েছি। কিন্তু ছেলেদের মানসিকতা দুর্দান্ত ছিল। প্রথম চারে থাকাটা আর একটা বড় পরীক্ষা। তার জন্য সকলে প্রস্তুত,’’ বলছেন সোলসার। যোগ করছেন, ‘‘আমি অবশ্যই হতাশ। কিন্তু হতাশার সঙ্গে ইতিবাচক দিকগুলোও দেখতে হবে। আমি ছেলেদের দক্ষতায় ভীষণ ভাবেই আস্থা রাখছি। আমি নিশ্চিত, ছেলেরা ভুল থেকে শিক্ষা নেবে। আমরা ঠিকই পারব।’’ যদিও সময় দ্রুত বেরিয়ে যাচ্ছে সোলসারের হাত থেকে।  

ম্যান ইউনাইটেড ২-১ এগিয়ে থাকা অবস্থায় ৯৬তম মিনিটে (সংযুক্ত সময় ধরে) সাউদাম্পটনের পরিবর্ত খেলোয়াড় মাইকেল ওবাফেমি গোল করে সমতা ফেরান। তার আগে ১২তম মিনিটে সাউদাম্পটনকে এগিয়ে দেন স্টুয়ার্ট আর্মস্ট্রং। অ্যান্থনি মার্শিয়ালের দুরন্ত পাস থেকে মার্কাস র‌্যাশফোর্ড সমতা ফেরান। তার পর মার্শিয়াল নিজেই দুরন্ত গোল করে এগিয়ে দেন ‘রেড ডেভিল্‌স’-কে। শেষ মুহূর্তের গোলটি না খেয়ে ম্যাচ জিতলে চেলসি এবং লেস্টারকে পিছনে ফেলে তারা লিগ টেবলে তিনে উঠে আসতে পারত। 

সাউদাম্পটন চলতি মরসুমে ‘জায়ান্ট কিলার’-এর আখ্যা পেতে পারে। কয়েক দিন আগে দুরন্ত ছন্দে থাকা পেপ গুয়ার্দিওলার ম্যাঞ্চেস্টার সিটিকে তারা ১-০ হারিয়ে দেয়। শেষ পাঁচটি ম্যাচে তারা হেরেছে একটিতে।  সোমবার ড্র করার পরে শেষ তিনটি ম্যাচের তিনটিতে জিততে পারলে প্রথম চারের মধ্যে থাকতে পারবে ম্যান ইউ। কাজ মোটেও সহজ নয়। গোড়ালিতে মোচড় লেগে খোঁড়াতে খোঁড়াতে মাঠ ছাড়া লিউক শ এবং প্রতিপক্ষ ফুটবলারের সঙ্গে সংঘর্ষে মাথায় আঘাত পাওয়া ব্র্যান্ডন উইলিয়ামসকে নিয়ে চিন্তা থাকছে সোলসারের। ‘‘শেষ সময়ে এসে ওই গোলটা খাওয়া খুবই দুর্ভাগ্যজনক। এর চেয়ে বাজে কিছু হয় না। তবে ফুটবলে এ রকম হয়। আমরাও এ ভাবে শেষ মুহূর্তের গোলে অনেক ম্যাচ জিতেছি,’’ বলছেন ম্যান ইউ বস্‌ সোলসার। যোগ করছেন, ‘‘সাউদাম্পটন ভাল দল। ওরা বলকে তাড়া করে। আমরা সেরা ছন্দে ছিলাম না। তবে দু’টো দুর্দান্ত গোল করেছি। ছেলেরা ফিরে আসবে।’’ 

ম্যাচ পরিসংখ্যান জানাচ্ছে, বল দখলের লড়াইয়ে মোটেও পিছিয়ে ছিল না সাউদাম্পটন। তাদের দখলে বল ছিল ৫৩ শতাংশ, ম্যান ইউয়ের ৪৭ শতাংশ। গোল লক্ষ্য করে শটও তারা মেরেছে ৯টি, ম্যান ইউ ৮টি। কর্নারে সাউদাম্পটন ৬, ম্যান ইউ ৪। সোলসার যা-ই বলুন, সারা বিশ্বে ছড়িয়ে থাকা ভক্তদের আস্থা ফের অর্জন করতে গেলে লাল জার্সিধারীদের অনেক উন্নতি করতে হবে। না হলে ‘লাল’ বলতে ম্যান ইউ নয়, লিভারপুলকেই ধরা হবে। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন