শনিবার সাড়া জাগিয়ে অলিম্পিক টেস্ট ইভেন্টে অভিযান শুরু করেছিল ভারতীয় পুরুষ এবং মহিলা হকি দল। রবিবার কিন্তু বড় ধাক্কা খেলেন হরমনপ্রীত সিংহ এবং রানি রামপালের দল।

রবিবার নিউজ়িল্যান্ডের কাছে ১-২ গোলে হেরেছে ভারত। তুলনায় কিছুটা ভদ্রস্থ ফলাফল করেছে মেয়েরা। তারা ২-২ ড্র করেছে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে। শনিবার মালয়েশিয়ার বিরুদ্ধে ৬-০ গোলে জয়ের পরে অনেকেই মনে করেছিলেন, রবিবারও সেই আগ্রাসী মেজাজ দেখা যাবে। কিন্তু বাস্তবে তা হয়নি। ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটে পেনাল্টি কর্নার থেকে অধিনায়ক হরমনপ্রীত গোল করে দলকে এগিয়ে দেন। কিন্তু তার পরেই ম্যাচ থেকে হারিয়ে যায় ভারত। ৪৭ মিনিটে জ্যাকব স্মিথ গোল করে সমতা ফেরান ম্যাচে। ৬০ মিনিটে স্যাম লেন গোল করে নিউজ়িল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করে দেন। ম্যাচের তৃতীয় পর্বে ফের গোল করার সুযোগ পেয়েছিলেন হরমনপ্রীত। কিন্তু তাঁর শট দারুণ দক্ষতার সঙ্গে বাঁচিয়ে দেন নিউজ়িল্যান্ড দলের গোলকিপার রিচার্ড জয়েস। তার পরে তেমন কোনো ইতিবাচক গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেনি ভারত। দুই ম্যাচে ছয় পয়েন্ট নিয়ে টেবলের শীর্ষে রয়েছে নিউজ়িল্যান্ড। দু’ম্যাচে তিন পয়েন্ট ভারতের। আগামী মঙ্গলবার তাদের পরের ম্যাচ জাপানের বিরুদ্ধে।

ম্যাচের পরে হতাশ হরমনপ্রীত বলেছেন, ‘‘আমাদের শুরুটা ভাল হলেও সেই গতি ধরে রাখা যায়নি। এটা নিয়ে অবশ্যই ভাবনাচিন্তা করতে হবে। জাপান ম্যাচের আগে হাতে সময় থাকছে। তার মধ্যে নিজেদের খেলার স্টাইলের তীক্ষ্ণতা বাড়িয়ে ফেলতে হবে।’’ তিনি আরও জানান, দলের রক্ষণকে আরও বেশি সতর্ক থাকতে হবে। এ দিন রক্ষণের ভুলেই স্যাম লেন গোল করে যান।

বরং তুলনায় ভারতের মেয়েরা দুর্দান্ত লড়ই করেছেন। দু’বার পিছিয়ে পড়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচ ড্র করে মাঠ ছাড়েন রানি রামপালরা। ম্যাচের ১৪ মিনিটে ক্যাথলিন নব্‌স গোল করে এগিয়ে দেন অস্ট্রেলিয়াকে। ৩৬ মিনিটে সমতা ফেরান বন্দনা কাতারিয়া। কিন্তু তার পরে ৪৩ মিনিটে গ্রেস স্টুয়ার্ট ফের গোল করে চাপে ফেলে দেন ভারতীয় দলকে। কিন্তু চলতি আসরে দারুণ ফর্মে থাকা গুরজিৎ কৌর দলকে নিশ্চিত হার থেকে রক্ষা করেন। প্রসঙ্গত প্রথম ম্যাচেও গোল পেয়েছিলেন গুরজিৎ।

দু’ম্যাচে চার পয়েন্ট নিয়ে টেবলের এক নম্বরে রয়েছে ভারত। দু’ম্যাচে তিন পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে রয়েছে চিন। যাদের বিরুদ্ধে আগামী মঙ্গলবার খেলবে ভারত। অধিনায়ক রানি বলেছেন, ‘‘দুবার পিছিয়ে পড়েও অস্ট্রেলিয়ার মতো দলের বিরুদ্ধে সমতা ফেরানো বড় প্রাপ্তি বলে মনে হয়েছে। তবে আমাদের অনেক বেশি সতর্ক থাকতে হবে।’’