বিশ্বকাপের দলে জায়গাই হল না ঋষভ পন্থের। জাতীয় নির্বাচকদের সিদ্ধান্তে বিস্মিত প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সুনীল গাওস্কর। তিনি জানিয়েছেন, উইকেটকিপার এবং ব্যাটসম্যান হিসেবে সাম্প্রতিক সময়ে ঋষভ যে উন্নতি করেছে, তার পরে বিশ্বকাপের দলে জায়গা না পাওয়া অত্যন্ত বিস্ময়ের।

সোমবার একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে গাওস্কর বলেছেন, ‘‘সাম্প্রতিক সময়ে ঋষভ যে ক্রিকেট খেলেছে, তাতে ওর বিশ্বকাপের দলে না থাকা আমাকে অবাক করেছে।’’

সেখানেই না থেমে সানি আরও বলেছেন, ‘‘শুধু আইপিএল বলেই নয়। তার আগেও তো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ঋষভ খুব ভাল খেলেছে। তা ছাড়া উইকেটকিপার হিসেবেও ও নিজেকে ধীরে ধীরে উন্নত করে তুলছিল। আর বিশ্বকাপের প্রেক্ষিতে বাঁ হাতি হওয়ার সুবাদে ভারতীয় দলের অনেক বেশি সুবিধাই হত ওকে দলে রাখলে। সে ভাবে দেখলে ভারতের প্রথম ছয় জন ব্যাটসম্যানের মধ্যে শিখর ধওয়ন ছাড়া দ্বিতীয় কোনও বাঁ হাতি ব্যাটসম্যান নেই।’’

আরও পড়ুন: রায়ুডু-পন্থ নয়, বিশ্বকাপের বিমানে উঠছেন কার্তিক-শঙ্কর-রাহুল

বাঁ হাতি ব্যাটসম্যান ঋষভ বিশ্বকাপে যে বোলারদের চাপে রাখতে পারতেন, তাও জানিয়েছেন গাওস্কর। তিনি বলেছেন, ‘‘বাঁ হাতি ব্যাটসম্যানদের বিরুদ্ধে এমনিতেই বোলারদের একটু চাপে থাকতে হয়। ওদের বিরুদ্ধে সঠিক লাইন এবং লেংথ ধরে রাখা কঠিন হয়ে থাকে। তা ছাড়া ফিল্ডিংয়েও অনেক বেশি পরিবর্তন করতে হয় বাঁ হাতি ব্যাটসম্যানদের জন্য। আমি মনে করি, এই দলে ঋষভ থাকলে ভারতীয় ব্যাটিং লাইন আপ শক্তিশালী হত। অনেক নতুন সম্ভাবনার রাস্তা তৈরি হত ও দলে থাকলে।’’

চলতি আইপিএলে এখনও পর্যন্ত ঋষভ ২৪৫ রান করেছেন। সেখানে তাঁর পরিবর্তে নির্বাচকেরা যাঁকে বেছে নিলেন, সেই দীনেশ কার্তিক করেছেন মাত্র ১১১ রান। তা হলে কেন তাঁকে বঞ্চিত করা হল? গাওস্কর বলেছেন, ‘‘কোনও এক সকালে উঠে দেখা গেল জ্বরের কারণে মহেন্দ্র সিংহ ধোনি খেলতে পারছেন না। তখন সকলে খুঁজবেন দ্বিতীয় ভাল উইকেটকিপারকে। আমার মনে হচ্ছে, সেই জায়গা থেকেই দীনেশ কার্তিককে দলে রাখা হয়েছে। ওর উইকেটকিপিং দক্ষতাকেই হয়তো নির্বাচকেরা গুরুত্ব দিয়েছেন।’’ বিশ্বকাপের দলে বিজয় শঙ্করকে নেওয়া গাওস্কর বলেছেন, ‘‘গত এক বছরে বিজয় কিন্তু নিজের খেলায় অনেক উন্নতি করেছে। আগের চেয়ে আত্মবিশ্বাস অনেক বেড়েছে এবং আমি মনে করি, এই ভারতীয় দলের জন্য বিজয় খুব কার্যকরী হয়ে উঠবে।’’ সেখানেই না থেমে সানি আরও বলেছেন, ‘‘ব্যাটিংটা বেশ ভাল করে বিজয়। পাশাপাশি ফিল্ডিংটা খুবই ভাল করে। প্রয়োজনে বলও করে দিতে পারবে। এই তিন রকমের গুণ আছে বলেই বিশ্বকাপের দলে বিজয়ের আসা সহজ হয়েছে।’’

তবে আর এক প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার সঞ্জয় মঞ্জরেকর কিন্তু ঋষভের দলে না থাকার সিদ্ধান্ত মানতে পারেননি। টুইট করেছেন, ‘‘সকলকে খুশি রেখে হয়তো দল তৈরি করা যায় না। তবে কার্তিককে দলে দেখে অবাক হয়েছি। আমার মনে হয়, এ ক্ষেত্রে নির্বাচকেরা ধারাবাহিকতা দেখাতে পারেননি। যাকে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে তেমন গুরুত্বই দেওয়া হয়নি, তাকে রাতারাতি বিশ্বকাপের দলে নিয়ে নেওয়া হল।’’ পাশাপাশি বিজয় শঙ্করেরে বিশ্বকাপের দলে ডাক পাওয়া নিয়ে মঞ্জরেকর টুইট করেছেন, ‘‘বিজয়কে খুব ভাগ্যবান বলতে হবে। বিশ্বকাপের দলে জায়গা পেল।’’

তবে শুধু গাওস্কর বলেই নন। ঋষভ পন্থকে বিশ্বকাপের দলে না দেখে অবাক হয়েছেন প্রাক্তন ইংল্যান্ড অধিনায়ক মাইকেল ভনও। তিনি টুইট করেছেন, ‘‘বিশ্বকাপের দলে ঋষভ নেই। একটু বেশিই পাগলামি হল!’’ প্রাক্তন ক্রিকেটার মহম্মদ কাইফ টুইট করেছেন, ‘‘ছ’মাস আগেও কেউ মহম্মদ শামিকে বিশ্বকাপের জন্য চিন্তা করতে পারেননি। কিন্তু কঠোর পরিশ্রম করে ও নিজেকে যোগ্য হিসেবে প্রমাণ করেছে। খুশি হয়েছি রবীন্দ্র জাডেজাকে দেখেও। তবে বেশ কিছু নাম নিয়ে আপত্তি থাকছে।’’ আকাশ চোপড়ার টুইট, ‘‘চার নম্বরের জন্য বিজয়কে রাখা হল। কিন্তু ও যে সফল হবেই, তার নিশ্চয়তা কি কেউ দিতে পারবেন?’’