• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

চার দিনের টেস্টে ‘না’ বোথাম, মাহেলাদের

Ian Botham
কিংবদন্তি অলরাউন্ডার ইয়ান বোথাম।

টেস্ট ক্রিকেটকে চার দিনে নামিয়ে আনার আইসিসি প্রস্তাবের বিরুদ্ধে ক্রমশ ক্ষোভ বাড়ছে। এ বার বিরোধীদের সুরে গলা মিলিয়েছেন কিংবদন্তি অলরাউন্ডার ইয়ান বোথাম। উত্তরসূরি বেন স্টোকসের দাপটে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে পঞ্চম দিনের শেষ ঘণ্টায় গিয়ে রুদ্ধশ্বাস জিতেছে ইংল্যান্ড। তা দেখার পরেই আইসিসি-র উদ্দেশে বোথামের মন্তব্য, ‘‘টেস্ট ক্রিকেটকে একলা ছেড়ে দিন। শেষ দিনে এমন রুদ্ধশ্বাস ভঙ্গিতে ম্যাচ শেষ হচ্ছে। এত লোকে তা উপভোগ করছে। মাঠে বসে দেখছে। একা ছেড়ে দিন!’’ 

বোথামের আগে সচিন তেন্ডুলকর থেকে শুরু করে বিরাট কোহালি, অনেক মহাতারকাই টেস্ট ক্রিকেটকে পাঁচ থেকে চার দিনে বদলানোর বিপক্ষে মত দিয়েছেন। রিকি পন্টিংয়ের মুখেও একই সুর শোনা গিয়েছে। কোহালি বলেছেন, ‘‘দিনরাতের টেস্ট পর্যন্ত পরিবর্তনই ঠিক আছে, তার বেশি নয়।’’ এ দিন মাহেলা জয়বর্ধনেও জানিয়েছেন, তিনি ব্যক্তিগত ভাবে চার দিনের টেস্টের বিরোধী। জয়বর্ধনে আইসিসি-র ক্রিকেট কমিটিতে রয়েছেন। যে কমিটির প্রধান অনিল কুম্বলে এবং যারা টেস্ট ক্রিকেটের এই প্রস্তাবিত বদল নিয়ে আলোচনা করবে ২৭-৩১ মার্চের বৈঠকে। তার আগে শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন অধিনায়ক বলছেন, ‘‘মার্চে আমাদের বৈঠকে এ নিয়ে আলোচনা হবে ঠিকই, তবে আমি নিজে চাই না কোনও বদল হোক। ব্যক্তিগত ভাবে আমার মত, টেস্ট ক্রিকেট পাঁচ দিনেরই থাকুক।’’ এই কমিটিতে রাহুল দ্রাবিড়, শন পোলক, অ্যান্ড্রু স্ট্রসরাও আছেন। আইসিসি ২০২৩ থেকে টেস্টকে চার দিনের করার কথা ভাবছে। তা নিয়েই তর্ক-বিতর্ক শুরু হয়েছে এবং কুম্বলে-দ্রাবিড়দের হাতেই থাকবে অন্তিম সিদ্ধান্তের দায়িত্ব। 

আইসিসি-র প্রস্তাব ২০২৩ থেকে ২০৩১ মরসুমে যে টেস্ট বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপ হবে, সেখানেই শুরু হবে চার দিনের টেস্ট। কিন্তু চার দিনের টেস্ট আয়োজন করার উদ্দেশ্য বছরে ক্রিকেট ম্যাচের সংখ্যা বাড়ানো। কী ভাবে টেস্টের একটি দিন কমিয়ে তা ব্যবহার করা হবে, সে বিষয়ে ধারণা নেই কোনও ক্রিকেটারের। এমনকি আইসিসি-ও ঠিক করে উঠতে পারেনি টেস্টের দিন কমিয়ে কী ভাবে ব্যবহার করা হবে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের ফেডারেশন (ফিকা) জানিয়েছে, টেস্টের এক দিন কমিয়ে তা কী ভাবে ব্যবহার করতে চায় আইসিসি, সে বিষয়ে পরিষ্কার ধারণা না দিলে চার দিনের টেস্টকে মানা হবে না। বুধবার একটি বিবৃতিতে ফিকা বলেছে, ‘‘বিশ্বের একাধিক ক্রিকেটারের সঙ্গে আলোচনা ও তথ্য সংগ্রহ করার পরে একটি বিষয় পরিষ্কার, চার দিনের টেস্টকে ঘিরে ক্রিকেটবিশ্ব সন্তুষ্ট নয়। ক্রিকেটের সব চেয়ে পুরনো ফর্ম্যাটে সংস্কারের প্রয়োজন দেখছে না অনেকেই।’’

২০১৭ সালে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে চার দিনের ম্যাচ শুরু হয়। ফর্ম্যাটের সূচনা হয় দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম জ়িম্বাবোয়ে ম্যাচে। গত বছর আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধেও একটি চার দিনের ম্যাচ খেলে ইংল্যান্ড। সম্প্রতি অ্যাশেজ ছাড়া পাঁচ দিনের আগেই শেষ হয়েছে বেশ কিছু ম্যাচ। যা প্রশ্ন তুলেছে পঞ্চম দিনের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে। ফিকার বিবৃতি, ‘‘চার দিনের টেস্ট আয়োজন করা হলে যে ক’টা দিন বাচবে, তা কী ভাবে ব্যবহার করা হবে। তা দ্রুত জানানো হোক। এ বিষয়ে পরিষ্কার হওয়া না গেলে ক্রিকেটারদের সঙ্গে আলোচনাও করা যাচ্ছে না।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন