মরণ-বাঁচন ম্যাচের আগেও সরফরাজ়কে বিঁধছে ভারত-কাঁটা
ভারতের বিরুদ্ধে হারের যন্ত্রণা এখনও রয়েছে পাক ভক্ত থেকে শুরু করে সাংবাদিকদের মধ্যেও। শনিবার তার প্রতিফলন আবারও দেখা গেল। এবং দু’টি বিষয় নিয়ে সাংবাদিকরা তীক্ষ্ণ প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন অধিনায়ক সরফরাজ় আহমেদের দিকে।
Sarfaraz

বিপন্ন: আজ মরণ-বাঁচন ম্যাচ সরফরাজ়দের। এএফপি

দু’দলের কাছেই অঙ্কটা খুব পরিষ্কার। টিকে থাকতে হলে জয় পেতেই হবে। এমনই পরিস্থিতিতে আজ, রবিবার লর্ডসে খেলতে নামার আগে পাকিস্তান এবং দক্ষিণ আফ্রিকা শিবিরের ছবিটা বিপরীতধর্মী।

ভারতের বিরুদ্ধে হারের যন্ত্রণা এখনও রয়েছে পাক ভক্ত থেকে শুরু করে সাংবাদিকদের মধ্যেও। শনিবার তার প্রতিফলন আবারও দেখা গেল। এবং দু’টি বিষয় নিয়ে সাংবাদিকরা তীক্ষ্ণ প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন অধিনায়ক সরফরাজ় আহমেদের দিকে। প্রথমত ভারতের বিরুদ্ধে হারের ধাক্কা সামলে দল কতটা তৈরি দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোর ব্যাপারে। দ্বিতীয়ত ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচে মাঠে দাঁড়িয়ে পাক অধিনায়কের হাই তোলার ঘটনা।

সরফরাজ় অবশ্য দারুণ ভাবেই সামলে দিয়েছেন দুই বাউন্সারসুলভ প্রশ্ন। তিনি বলেছেন, ‘‘এমন ভাবে ব্যাপারটাকে দেখা হচ্ছে যেন, এই প্রথমবার ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তান হারল!’’ সেখানেই না থেমে তিনি আরও বলেছেন, ‘‘বিশ্বকাপের মঞ্চে ভারতের কাছে  হারলে যে কোনও পাক অধিনায়কই মানসিক চাপে পড়ে যান। তবে সেই হার মেনে নিয়েই দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচের জন্য আমরা নিজেদের তৈরি করে ফেলেছি। আশা করি, রবিবার দল ঘুরে দাঁড়াবে।’’

আরও পড়ুন: জিতলেও আফগানরা বিরাটদের যে ত্রুটিগুলো চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল​

আর মাঠে দাঁড়িয়ে হাই তোলা? এ বার কিছুটা বিরক্তই হতে দেখা যায় সরফরাজ়কে। তিনি বলেন, ‘‘হাই তুলে বিরাট অপরাধ করে ফেলেছি বলে মনে হয় না। বরং খুব খারাপ লেগেছে এটা দেখে যে, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইটে ক্রিকেটারদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে যে ধরনের অবাঞ্ছিত কথাবার্তা বলেছেন সমর্থকরা, তা খুবই আহত করেছে আমাদের। ওঁদের থেকে এমন প্রতিক্রিয়া কাঙ্ক্ষিত ছিল না।’’  

এ বারের বিশ্বকাপের ফাইনাল যে মাঠে হবে, সেই লর্ডসেই দু’দল আজ খেলতে নামবে। দু’দলই একটি করে ম্যাচ জিতেছে। দু’দলেরই পয়েন্ট তিন। দক্ষিণ আফ্রিকার চেয়ে এক ম্যাচ কম খেলে (৫ ম্যাচ) দশ দলের বিশ্বকাপে পাকিস্তান রয়েছে নয় নম্বরে। আট নম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকা। পাশাপাশি লর্ডসের পিচ কী রকম আচরণ করবে, তা অজানা দু’পক্ষের কাছেই। ফলে দুই শিবিরেই রয়েছে চাপা উদ্বেগ। 

ভারতের বিরুদ্ধে বল হাতে মহম্মদ আমির ছন্দে থাকলেও ব্যাটে দাপট দেখাতে পারেননি ফখর জ়মানরা। শোয়েব মালিকের পারফরম্যান্স নিয়েও সমালোচনা চলছে পাকিস্তান জুড়ে। বিশেষজ্ঞদের অনুমান বাকি বিশ্বকাপে শোয়েবের প্রথম দলে থাকার সম্ভাবনা খুব কম। যদিও অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের কাছে হারের পরে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হওয়ার আগে রীতিমতো ভিতরে ভিতরে ফুটছেন পাক পেসার ওয়াহাব রিয়াজ়। বলছেন, ‘‘চাপে পড়লেই আসল খেলাটা বেরিয়ে আসে পাকিস্তানের। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধেই সেটা দেখা যাবে। আমরা সেমিফাইনাল ও ফাইনালে যাবই।’’ যোগ করেছেন, ‘‘এখানে আমরা সবাই একটা পরিবারের মতো। আমাদের পনেরোজনের মিলিত প্রচেষ্টাই পারে ফের পাকিস্তানকে বিশ্বকাপে স্বমহিমায় ফেরাতে। তাই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে আমাদের মিলিত ভাবে ঝাঁপাতে হবে।’’ পাশাপাশি, অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের হারের ব্যাখ্যাও দিয়েছেন রিয়াজ়। তাঁর কথায়, ‘‘শুরুতে উইকেট না পাওয়াতেই অস্ট্রেলিয়া ও ভারত ম্যাচে পাকিস্তান চালকের আসনে বসতে পারেনি।’’

ম্যাচের
Live
স্কোর