• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ওমান ম্যাচে প্রথম দলে বদলের ভাবনা ইগরের

Igor Stimac
—ফাইল চিত্র।

Advertisement

পরের ধাপে পা রাখতে গ্রুপের যে দুটি ম্যাচে জেতা জরুরি ছিল, সেই আফগানিস্তান ও বাংলাদেশের কাছেই আটকে গিয়েছেন সুনীল ছেত্রীরা। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের অনেক নীচের দিকে থাকা দুই দলের বিরুদ্ধেই হারতে হারতে বেঁচেছে ইগর স্তিমাচের ভারত। 

হতাশ ভারতীয় দলের কোচ শুক্রবার বলেছেন, ‘‘বেশিরভাগ ফুটবলারেরই বয়স কম। অনেকই নতুন। আমি খুশি পিছিয়ে থেকেও পরপর দুই ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ানোয়।’’ তিনি যোগ করেছেন, ‘‘আমার হাতে অনেক ভাল ফুটবলার আছে। তাই ওমানের বিরুদ্ধে একেবারে নতুন দল নামাতে ভয় পাচ্ছি না।’’

কিন্তু প্রশ্ন হল, ভারত কি কোনও অঙ্কেই পরের পর্বে যেতে পারবে? খাতায়-কলমে সম্ভাবনা বেঁচে থাকলেও তা বাস্তবায়িত হওয়া কঠিন। কারণ, বাকি চারটি ম্যাচের সব ক’টিতে জিততে হবে সুনীলদের। ১৯ নভেম্বর ওমানের বিরুদ্ধে খেলার পরে সুনীলদের প্রতিপক্ষ কাতার (ঘরের মাঠে), আফগানিস্তান (ঘরের মাঠে), বাংলাদেশের (বাইরে) বিরুদ্ধে। চার ম্যাচে ভারতের পয়েন্ট ৩। সেখানে কাতার (১০ পয়েন্ট) এবং ওমান (৯ পয়েন্ট) অনেক এগিয়ে গিয়েছে। আফগানিস্তানও (৪ পয়েন্ট) ভারতের আগে। পিছনে একমাত্র বাংলাদেশ (১ পয়েন্ট)। বাকি সব কটি ম্যাচ জিতলে ভারতের পয়েন্ট হবে ১৫।

আরও পড়ুন: জোকোভিচকে হারিয়ে লন্ডনে সেমিফাইনালে ফেডেরার

পরের পর্বে যাওয়ার নিয়মটা কি? আটটি গ্রুপ থেকে মোট বারোটি দল পরের রাউন্ডে যাবে। গ্রুপের প্রথম আটটি দল যাবে দ্বিতীয় রাউন্ডে। সঙ্গে চারটি দ্বিতীয় স্থানে থাকা সেরা দল যাবে পরের পর্বে। কাতার ২০২০ বিশ্বকাপের সংগঠক দেশ, তাই তারা যদি গ্রুপ শীর্ষে থেকে পরের রাউন্ডে যায়, তা হলে দ্বিতীয় স্থানে থাকা আর একটি দল অর্থাৎ মোট পাঁচটি দল যাবে। ভারতের গ্রুপের যা অবস্থা, তাতে ইগরের দলের রানার্স হওয়া একেবারেই সহজ নয়।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন