• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বুম বুম বুমরায় ভিভের দেশে ক্রিকেটে দাপুটে জয় বিরাটদের

India Won against West Indies by 318 runs
কারিগর: বল হাতে বুমরার ঝড়। এএফপি

Advertisement

ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম ইনিংসে বল হাতে মাত্র এক উইকেট পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে সেই যশপ্রীত বুমরাই চূর্ণ করলেন ক্যারিবিয়ান ব্যাটিংকে। বুমরার দাপটেই দ্বিতীয় ইনিংসে ২৭ ওভারের মধ্যে ১০০ রানে চূর্ণ হয়ে গেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ক্যারিবিয়ান সফরে প্রথম টেস্টে ভারত জিতল ৩১৮ রানে। তাও আবার এক দিন বাকি থাকতেই প্রথম টেস্ট জিতে নিল বিরাট কোহালির দল। সিরিজে ১-০ এগিয়ে গেল রবি শাস্ত্রীর ছেলেরা। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথম ম্যাচ জিতে ৬০ পয়েন্ট পেল ভারত।

রবিবার অ্যান্টিগায় বুমরার ভয়ঙ্কর স্পেলের সামনে দ্বিতীয় ইনিংসে সম্পূর্ণ বিপর্যস্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং। আট ওভার বল করে সাত রান দিয়ে পাঁচ উইকেট তুলে নেন বুমরা। ভারতের দেওয়া ৪১৯ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে চতুর্থ দিনের চা বিরতির পরে ১৯ ওভারের মধ্যে ৪৮ রানে সাত উইকেট হারায় জেসন হোল্ডারের দল। ভারতের হয়ে বাকি উইকেট নেন ইশান্ত শর্মা (৩-৩১) ও মহম্মদ শামি (২-১৩)।

ভারতকে জিতিয়ে খেলা শেষে বুমরার প্রতিক্রিয়া, ‘‘প্রথম ইনিংসে বল ভিজে যাওয়ায় সে রকম সুইং পাইনি। দ্বিতীয় ইনিংসে বৃষ্টি না হওয়ায় সেই অসুবিধার মধ্যে পড়তে হয়নি। এর আগেও ইংল্যান্ডে ডিউকস বল হাতে সাফল্য পেয়েছিলাম। এখানেও সেই ডিউকস বল সামলাতে তাই অসুবিধা হয়নি।’’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘ক্রমাগত টেস্ট খেলায় একটা আত্মবিশ্বাস তৈরি হয়। যা কাজে লাগিয়েই এই সাফল্য।’’

বুমরা পাঁচ উইকেট পেলেও অজিঙ্ক রাহানে দুই ইনিংসে রান না পেলে এত সহজে জিততে পারত না ভারত। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ভারতীয় দলে সুযোগ না পেয়ে যে তিনি হতাশ হয়েছিলেন, তা আগে বলেছিলেন অজিঙ্ক রাহানে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে সুযোগ পেয়েই তা কাজে লাগাতে শুরু করেছেন এই ব্যাটসম্যান। প্রথম ইনিংসে অল্পের জন্য সেঞ্চুরি পাননি তিনি। দ্বিতীয় ইনিংসে করে গেলেন ১০২ রান। রাহানে এবং হনুমা বিহারীর (৯৩) ইনিংসের সৌজন্যে দ্বিতীয় ইনিংসে সাত উইকেটে ৩৪৩ রান তুলে ডিক্লেয়ার দিয়ে দেয় ভারত। 

ভারতের সীমিত ওভারের ক্রিকেট থেকে দূরে থাকার সময় ইংল্যান্ডে কাউন্টিতে ডুবে ছিলেন রাহানে। দেখা যাচ্ছে, সেখানে পাঁচ দিনের ক্রিকেটের প্রস্তুতি ভালই মতোই সেরে নিয়েছেন এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। একই সঙ্গে তাঁর উপর টিম ম্যানেজমেন্টের আস্থার মর্যাদা দিলেন বিহারীও। মনঃসংযোগে সামান্য চিড় ধরায় সেঞ্চুরিটা রবিবার ফস্কে যায় তাঁর। তবে রোহিত শর্মার বদলে তাঁকে খেলিয়ে যে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট ভুল করেনি, তা বুঝিয়ে দিলেন বিহারী। 

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই চাপে পড়ে গিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যশপ্রীত বুমরা এবং ইশান্ত শর্মা দুটি করে উইকেট তুলে নেন। এই টেস্টে ইশান্তও দারুণ ছন্দে রয়েছেন। প্রথম ইনিংসে তিনি তুলে নিয়েছিলেন পাঁচ উইকেট। এ বারও নতুন বলে উইকেট পেলেন এই পেসার।     

রাহানে নিয়ে ক্রিকেট মহল প্রশংসা করলেও সমালোচনার মুখে কিন্তু কে এল রাহুল। তাঁর সম্পর্কে বরাবরের অভিযোগ জমে যাওয়ার পরেও উইকেট ছুড়ে দিয়ে আসেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের দু’ইনিংসে যে ছবিটা দেখা গিয়েছে। রাহুল নিজেও স্বীকার করে নিচ্ছেন, এই ভাবে আউট হয়ে তিনিও হতাশ হয়ে পড়েছেন। 

অ্যান্টিগা টেস্টের তৃতীয় দিনের শেষে সাংবাদিক বৈঠকে রাহুল বলে যান, ‘‘এই ভাবে আউট হওয়ায় আমি অত্যন্ত হতাশ। তবে আমি অনেক কিছু ঠিকঠাকও করেছি। আমাকে এখন আরও বেশি ধৈর্য ধরে ব্যাট করে যেতে হবে।’’ তাঁকে কী করতে হবে, সেটাও বুঝে গিয়েছেন রাহুল। ভারতীয় ওপেনারের মন্তব্য, ‘‘প্রথম ৬০-৭০ বলে যে রকম ধৈর্য ধরে ব্যাট করছি, সেটা যদি আরও ২০০-২৫০ বলে করতে পারি, তা হলে আমার সঙ্গে আমার দলও উপকৃত হবে।’’

নিজে ওপেনার হলেও রাহুল টেকনিকের উপরে বেশি জোর দিতে চান না। তিনি বলছেন, ‘‘টেকনিক নিয়ে একটু বেশি মাতামাতি হয়। রান পেলেই সব কিছু খুব ভাল দেখায়। তাই দু’ইনিংসে যে ক্রিজে কিছুটা সময় কাটাতে পেরেছি, এটা আমার কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ।’’ অ্যান্টিগা টেস্টে প্রথম ইনিংসে ৪৪ রান করার পরে দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৮ করেন রাহুল। 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন