Advertisement
১৫ জুলাই ২০২৪
Sandeshkhali Incident

‘পদের অপব্যবহার’ জাতীয় মহিলা কমিশনের প্রধানের! সন্দেশখালিকাণ্ডে রেখার বিরুদ্ধে তদন্ত চায় তৃণমূল

তৃণমূলের দাবি, সন্দেশখালির গোটা ঘটনাপ্রবাহে মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা এক জন ‘চক্রান্তকারী’। তাই তাঁর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করার জন্য নির্বাচন কমিশনের কাছে আর্জি জানাতে চলেছে তৃণমূল।

জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মা।

জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মা। —ফাইল চিত্র

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১০ মে ২০২৪ ১১:০৭
Share: Save:

সন্দেশখালি নিয়ে একের পর এক ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসছে। এ বার এই ভিডিয়োগুলিকে (যেগুলির সত্যতা যাচাই করেনি আনন্দবাজার অনলাইন) সামনে রেখে জাতীয় মহিলা কমিশনের প্রধান রেখা শর্মার বিরুদ্ধে তদন্ত চাইছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল। রেখার বিরুদ্ধে ‘পদের অপব্যবহার’ করার অভিযোগ তুলে ফৌজদারি মামলা রুজু করারও দাবি তোলা হয়েছে।

সম্প্রতি প্রকাশিত হওয়া একটি ভিডিয়োয় এক ‘নির্যাতিতা’ অভিযোগ করেছেন যে, সন্দেশখালিতে ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ তোলা হয়েছিল। যদিও এই ভিডিয়োগুলির সত্যতা যাচাই করেনি আনন্দবাজার অনলাইন। তৃণমূলের বক্তব্য, এক মহিলা অভিযোগ করেছেন যে, দিল্লির মহিলা কমিশনের প্রতিনিধিরা সন্দেশখালিতে গিয়ে সাদা কাগজে ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগে সই করিয়ে নিয়েছেন। মহিলা কমিশনের প্রধান হিসাবে রেখার পদের অপব্যবহার করার দৃষ্টান্ত হিসাবে এই অভিযোগটিকেই সামনে রাখছে বাংলার শাসকদল।

শুক্রবার সকালে সাংবাদিক বৈঠক করেও রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূল মুখপাত্র শশী পাঁজাও রেখার বিরুদ্ধে সন্দেশখালির মহিলাদের দিয়ে ধর্ষণের ‘মিথ্যা অভিযোগ’ দায়ের করানোর অভিযোগ আনেন। দুপুরে আলিপুরে দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলাশাসকের দফতর থেকে বেরিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “বাংলাকে কলুষিত করতে সন্দেশখালির বিষয় নিয়ে চক্রান্ত করেছিল বিজেপি।” তার পরেই জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখাকে আক্রমণ করে তিনি দাবি করেন, ভয় দেখিয়ে গ্রামের মহিলাদের দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ করানো হয়েছে।

তৃণমূলের দাবি, সন্দেশখালির গোটা ঘটনাপ্রবাহে রেখা একজন ‘চক্রান্তকারী’। তাই তাঁর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করার জন্য নির্বাচন কমিশনের কাছে আর্জি জানাতে চলেছে তৃণমূল। সন্দেশখালিতে শাহজাহান শেখ এবং‌ তাঁর দলবলের বিরুদ্ধে জমি দখল, মহিলাদের উপর নির্যাতন করার অভিযোগ ওঠার পরেই সেখানকার পরিস্থিতি সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে আসেন মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা। সেই সময় রেখা বলেছিলেন, “দিনের পর দিন মহিলাদের উপর নির্যাতন হয়েছে। ১৮টা অভিযোগ পেয়েছি। দু’জন ধর্ষণের অভিযোগ জানিয়েছে। পুলিশের উপর মানুষের আস্থা নেই। আমাকে ধরে গ্রামের মহিলারা কাঁদছেন। রাষ্ট্রপতি শাসন ছাড়া কোনও উপায় নেই।’’

গত শনিবার সন্দেশখালির স্টিং অপারেশনের ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসার পরেই কার্যত বিড়ম্বনায় পড়েছে বিজেপি। ওই ভিডিয়োয় যে বিজেপি নেতার বয়ান ঘিরে এত শোরগোল, সেই গঙ্গাধর দাবি করেছেন, সন্দেশখালিতে টাকা নিয়ে ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ পুলিশে দায়ের করানোর বিষয়টি বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর ‘মস্তিষ্কপ্রসূত’! শুভেন্দু অবশ্য সব অভিযোগ অস্বীকার করেন। দাবি করেন, ভিডিয়োটি সম্পূর্ণ ভুয়ো এবং সাজানো হয়েছে। এর নেপথ্যে তৃণমূলের হাত রয়েছে বলেও অভিযোগ করেন শুভেন্দু। বৃহস্পতিবারই সন্দেশখালির এই সমস্ত ভিডিয়ো নিয়ে নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে তাদের সদর দফতরে যায় তৃণমূল। তৃণমূলের প্রতিনিধি তথা রাজ্যসভার সাংসদ সাগরিকা ঘোষ কমিশনের দফতর থেকে বেরিয়ে বলেন, “রাজনৈতিক স্বার্থে সন্দেশখালি নিয়ে চক্রান্ত করেছে বিজেপি। আর তা এখন প্রকাশ্যে চলে আসছে।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE