শুরুটা ভালই হয়েছিল। প্রথম পাঁচ ম্যাচের চারটিতেই জিতে আট পয়েন্ট-সহ আইপিএল প্লে-অফের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স।

কিন্তু ৭ এপ্রিল জয়পুরে রাজস্থান রয়্যালসকে আট উইকেটে হারানোর পরে দু’সপ্তাহ আর কোনও ম্যাচ জেতেনি নাইটরা। এই সময়ের মধ্যে টানা পাঁচ ম্যাচ হেরে সেই আট পয়েন্টেই দাঁড়িয়ে রয়েছে দীনেশ কার্তিকের দল। 

লিগ টেবলের শীর্ষে থাকা মহেন্দ্র সিংহ ধোনির চেন্নাইয়ের সঙ্গে প্লে-অফের দিকে যখন দিল্লি, মুম্বই, হায়দরাবাদ এমনকি কিংস ইলেভেন পঞ্জাবও এগিয়ে যাচ্ছে, তখন টানা পাঁচ হারের ধাক্কায় নাজেহাল শাহরুখ খানের দল। রবিবার সানরাইজার্সের কাছে পাঁচ ওভার বাকি থাকতে নয় উইকেটে হারের পরে প্লে-অফের অঙ্ক আরও জটিল হল কলকাতার কাছে।

আরও পড়ুন: দল নির্বাচন না মানসিকতা, ঠিক কোন জায়গায় সমস্যা হচ্ছে প্রায় ছিটকে যাওয়া নাইটদের

নাইটদের অধিনায়ক দীনেশ কার্তিকও সে কথা মানছেন। ম্যাচ হেরে তিনি বলছেন, ‘‘হারলে চাপ তো বাড়বেই। তবে জিতে ফিরে আসার চ্যালেঞ্জটা নিচ্ছি আমরা।’’

সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে হার নিয়ে তিনি বলছেন, ‘‘উপ্পলের উইকেটে বোলিং ঠিকঠাক হলে ১৬০ রান নিয়েও লড়াই করা যায়। খুব খারাপ রানও ওঠেনি। কিন্তু বোলিং ঠিক হয়নি। গোটা আইপিএল জুড়েই বোলাররা ঠিক সময়ে জ্বলে উঠতে ব্যর্থ। তার সঙ্গে এ দিন খারাপ ফিল্ডিংয়ের খেসারত দিতে হল।’’ 

কার্তিক এ দিন সমালোচিত হয়েছেন ক্যারিবিয়ান আন্দ্রে রাসেলকে পরের দিকে নামানো নিয়েও। টুইটারে যা নিয়ে সমালোচনা করেছেন মার্ক ওয়-এর মতো প্রাক্তন ক্রিকেটারও। ম্যাচের পরেই তিনি টুইট করেন, ‘‘আইপিএলে কেকেআরের ম্যাচ দেখলাম। মাস্টার ব্লাস্টার আন্দ্রে রাসেলকে কেন সাত নম্বরে নামানো হল তা বুঝলাম না। এটা অপচয়।’’

অবধারিত ভাবে সাংবাদিক সম্মেলনেও এই প্রশ্ন উঠেছে। যার উত্তরে কার্তিক বলেন, ‘‘রাসেল যখন ব্যাট করতে আসে তখন ২৭ বল বাকি ছিল। ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে ও অখুশি নয়। কোনও অভিযোগও করেনি। রাসেলের জন্য একটা স্লট থাকে। আমাদের রণনীতি হল শুরুর দিকের ব্যাটসম্যানরা রান করে রাসেলকে বাকি কাজটা করতে দেয়। দলের প্রয়োজনে যে কোনও পরিস্থিতিতে গিয়ে রান করবে, এটাই রাসেলের ভাবমূর্তি আমাদের কাছে।’’  

সানরাইজার্সের বিরুদ্ধে কুলদীপ যাদবকে খেলায়নি কেকেআর। এ বারের আইপিএলে এই চায়নাম্যান বোলার ৩৩ ওভার বল করে পেয়েছেন চারটি উইকেট। তাই এ দিন তার পরিবর্তে দলে নেওয়া হয়েছিল কে সি কারিয়াপ্পাকে। দু’ওভার বল করে যিনি দিয়েছেন ৪৩ রান! কুলদীপ বাদে কেকেআর স্পিনাররা হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে নয় ওভারে সম্মিলিত ভাবে দিয়েছেন ১০৬ রান। কেন রবিবার কুলদীপকে দলের বাইরে রেখে কেকেআর নেমেছিল, তা জানতে চাইলে দীনেশ কার্তিক বলেন, ‘‘কুলদীপ ছন্দে নেই। গত ম্যাচেও কিছু করতে পারেনি। তাই আজ ওকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছিল। কারণ, পরের ম্যাচগুলোকে ফের তরতাজা অবস্থায় কুলদীপকে চাই আমরা।’’ কেকেআর অধিনায়ক সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘ওয়ার্নার ও বেয়ারস্টো আজ ভাল ব্যাট করেছে। কিন্তু দুর্বল ফিল্ডিং এই হারের অন্যতম একটা কারণ।’’