বল-বিকৃতি কাণ্ডে জড়িয়ে পড়ায় এক বছর ধরে নির্বাসনের জ্বালা সহ্য করেছেন তাঁরা। স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। আইপিএলের আসরে মাঠে ফিরেছেন দু’জনেই। শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ার সেই দুই তারকা একে অপরের মুখোমুখি হতে চলেছেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ঘরের মাঠে। যেখানে ওয়ার্নাররা খেলবেন স্মিথের রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে। 

আইপিএলে ক্রিকেটবিশ্বের নজরে আছেন দুই তারকা। বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়াকে কত শক্তিশালী করতে পারবেন তাঁরা, তার আন্দাজ পাওয়া যাবে যে এই লিগেই। অস্ট্রেলিয়ার মিডিয়ারও নজর তাই আইপিএলেই। বিশেষ করে শুক্রবারের ম্যাচের দিকে। ওয়ার্নার কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে ৫৩ বলে ৮৫ রানের ইনিংস দিয়ে আইপিএল শুরু করার পরই সে দেশের মিডিয়ায় তাঁকে নিয়ে নানা আশার কথা লেখা শুরু হয়ে গিয়েছে। এখন স্মিথকেও রানে ফিরতে দেখতে চায় তারা। শুক্রবার হায়দরাবাদে দুই তারকার লড়াই কতটা জমে ওঠে, তার উপর অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ ভবিষ্যৎ অনেকটাই নির্ভর করছে বলে সে দেশের সংবাদমাধ্যমের ধারণা। 

কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে ব্যাট হাতে তেমন জ্বলে উঠতে পারেননি স্মিথ। ১৬ বলে ২০ রানের বেশি সে ম্যাচে তুলতে পারেননি তিনি। তাই শুক্রবার রানে ফেরার তাগিদে মাঠে নামবেন স্মিথ। হায়দরাবাদের বিরুদ্ধেই তিনি জ্বলে উঠতে পারেন কি না, সেটাই এই ম্যাচের অন্যতম আকর্ষণীয় বিষয়। ম্যাচের আগের দিন গিটার হাতে ফুরফুরে মেজাজে পাওয়া গেল স্মিথকে। যে ভিডিয়ো রাজস্থান রয়্যালসের টুইটারেও দেখা গেল।

ওয়ার্নার মাঠে ফেরার সঙ্গে রানে ফিরলেও দলকে জেতাতে পারেননি। কেকেআরের বিরুদ্ধে ম্যাচে আন্দ্রে রাসেলের ব্যাটে ওঠা ঝড় আটকাতে পারেননি তাঁর দলের বোলাররা। বিশেষ করে শেষ দিকের বোলিং ডুবিয়ে দেয় ওয়ার্নারদের। শেষ দু’ওভারে ভুবনেশ্বর কুমার ও সিদ্ধার্থ কল ৪০ রান দেওয়ায় ম্যাচ জিতে নেয় কেকেআর। অনেকে শিশিরকে এর কারণ হিসেবে দেখালেও সেই অজুহাত দিতে রাজি নন সিদ্ধার্থ। তাঁর মতে, ‘‘শিশিরের জন্য এটা হয়নি। পরিকল্পনা অনুযায়ী বল করতে পারিনি বলেই অত রান দিয়ে ফেলেছি আমরা। তা ছাড়া রাসেল ও রকম রুদ্রমূর্তি ধরলে ওকে আটকানো কঠিন।’’ তাই ওয়ার্নারের সামনে এখন দলকে জেতানোর চ্যালেঞ্জ। 

হায়দরাবাদের মতো রাজস্থানও তাদের প্রথম ম্যাচে জয় পায়নি। স্মিথ বড় রান না পেলেও জস বাটলার, সঞ্জু স্যামসনরা দলকে জয়ের দিকে নিয়ে গিয়েছিলেন ঠিকই। কিন্তু মাত্র ১৬ রানের মধ্যে তাদের শেষ সাত উইকেট পড়ে যাওয়ায় জয় থেকে অনেক দূরে সরে যান তাঁরা। এর মধ্যে মাঁকড়ীয় আউট বিতর্কও ছিল, যার ফলে বাটলারকে হারিয়ে কার্যত ম্যাচও হারতে হয় স্মিথদের। সেই বিতর্কের ধাক্কা সামলে আজ জয়ে ফেরার লড়াই রাজস্থান রয়্যালসের।