ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ভারতীয় মহিলা দলের ওয়ান ডে সিরিজ। তার জন্য প্রস্তুতি সেরে নিলেন কিংবদন্তি পেসার ঝুলন গোস্বামী। কারণ, আসন্ন সিরিজ আইসিসি উইমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপের আওতায় পড়ছে। সিরিজ জিতে পর্যাপ্ত পয়েন্ট সংগ্রহ করতে পারলে ঝুলনরা আরও এক ধাপ এগিয়ে যাবেন বিশ্বকাপের রাস্তায়।

শনিবার সল্টলেকের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে বাংলার মহিলা দলের ফিজিয়ো রাহুল দেবের সঙ্গে ফিটনেস ট্রেনিং করলেন ঝুলন। জানা গেল টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নেওয়ার পরে ট্রেনিংয়ের সময় ও মাত্রা আরও বাড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। ৫০ ওভার টিকে থাকার জন্য নিজেকে ফিটনেসের শীর্ষে নিয়ে যেতে চান ভারতীয় পেসার। ট্রেনার রাহুল বলছিলেন, ‘‘ওর ফিটনেস ট্রেনিংয়ের মাত্রা বাড়ানোর কারণ রয়েছে। বর্তমানে ও শুধু ওয়ান ডে খেলছে। আন্তর্জাতিক ম্যাচ বেশি পাচ্ছে না। তাই নিজেকে ফিটনেসের শীর্ষে রাখার জন্য ট্রেনিংয়ের মাত্রা বাড়িয়েছে ঝুলন। বলতে কোনও দ্বিধা নেই, ওর ফিটনেস আরও বেড়েছে। নেটে স্পট বোলিং করার পরেও ট্রেনিং করতে কোনও সমস্যা হয় না ওর।’’

শেষ চার দিন ধরে রাহুলের সঙ্গে ফিটনেস ট্রেনিং করছেন ঝুলন। ইংল্যান্ড সিরিজের জন্য সোমবার ভারতীয় শিবিরে যোগ দিতে হবে তাঁকে। আসন্ন সিরিজ নিয়ে কী ভাবছেন কিংবদন্তি পেসার? প্রস্তুতির শেষে ঝুলন বলে গেলেন, ‘‘আমাদের কাছে এই মুহূর্তে সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইংল্যান্ডকে হারানো। উইমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপের প্রত্যেকটি সিরিজ থেকে পয়েন্ট সংগ্রহ করতে পারলে গত বারের মতো বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে খেলতে হবে না। ২০২১ বিশ্বকাপের টিকিট সরাসরি হাতে পাওয়া যাবে।’’

কিন্তু গত বার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজ খেলতে না চাওয়ায় ভারতকে যোগ্যতা অর্জন পর্ব খেলে বিশ্বকাপের টিকিট পাকা করতে হয়েছিল। এ বারও সেই পরিস্থিতি আসতে পারে। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ফের উইমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ পড়লে কী করবেন ঝুলনেরা? ভারতীয় পেসারের সাফ উত্তর, ‘‘ভারতীয় বোর্ড ও ভারত সরকার যা সিদ্ধান্ত নেবে, আমাদের তা মেনেই খেলতে হবে। যদি সে দেশে খেলতে যেতে হয়, তা হলে যেতে হবে। গত বছর যদিও আমরা খেলিনি। ওদের ছয় পয়েন্ট দিতে রাজি হয়েছিলাম। ফের বাছাই পর্বে চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিশ্বকাপ খেলেছি। এ বার দেখা যাক কী হয়।’’