এটিকে-তে স্প্যানিশ জমানা শেষ হয়েও হচ্ছে না।

চোটের জন্য টিমের মহাতারকা রবি কিন বাইরে চলে যাওয়ায় লা লিগায় খেলা স্প্যানিশ ডিফেন্ডার ইয়র্দি ফিগুয়েরাস মন্তেল-কে টিমের অধিনায়ক বেছে দিলেন ব্রিটিশ কোচ টেডি শেরিংহ্যাম। বুধবার রাতে কোচিতে পৌঁছে ডিনার টেবলে সে কথা এটিকে কোচ জানিয়েও দিলেন।

যা খবর তাতে, রবি কিন জানুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে চোট সারিয়ে ফিরলেও অন্তত চারটে ম্যাচ খেলতে পারবেন না ই পি এলের অন্যতম সেরা ফুটবলার। ফলে ওই ম্যাচগুলিতে অধিনায়ক হিসাবে দেখা যাবে স্টপার ইয়র্দি-কে। টিম সূত্রের খবর, রক্ষণে দাঁড়িয়ে তাঁর অধিনায়কোচিত শরীরী ভাষার জন্যই বেছে নেওয়া হয়েছে আন্তোনিও হাবাস, হোসে মলিনার দেশের ছেলেকে।

কিন, কার্ল বেকার-সহ জনা চারেক ফুটবলার চোট পেয়ে ইতিমধ্যেই মাঠের বাইরে। তবে সব ফুটবলারকেই উদ্বোধনী ম্যাচে সঙ্গে করে নিয়ে এসেছেন টেডি। যাতে পুরো টিমের মনোবল বাড়ে। কেরল ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে দুর্দান্ত ট্র্যাক রেকর্ড রয়েছে এটিকে-র। যে দু’বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা প্রতিবারই কেরলকে হারিয়ে। প্রথমবার মহম্মদ রফিকের জয়ের সেই গোল ও গত বছর টাইব্রেকারে যে পেনাল্টি কিকে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল এটিকে, সেই গোলগুলোকে বিপণনের অঙ্গ হিসেবে তুলে ধরতে চলেছে এটিকে শিবির।  যেখানে একদল পাড়ার  ফুটবলারের সঙ্গে কোচ হিসাবে দেখা যাবে সাংসদ-অভিনেতা দেবকে। সঙ্গে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কেও। দু’একদিনের মধ্যেই সেটা দেখা যাবে হোডিং এবং টিভিতে। কিন্তু এ বার কেরলের বিরুদ্ধে খেলতে নামার আগে পরিস্থিতি একটু অন্যরকম। এটিকে-র অন্দরের চেহারাটাই বদলে গিয়েছে এ বার। তার উপর চোট-আঘাত। টিম হোটেলে অবশ্য টেডি-কে দেখে কোনওরকম চাপে আছেন বলে মনে হল না।

কোচি স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের কাজ চলছে পুরোদমে। এ দিন কোচির বিভিন্ন রাস্তায় গোল পোস্টে জাল লাগিয়ে আর বল নিয়ে মিছিল হল। সেখানে বল পায়ে দেখা গেল জেভিয়ার পায়াসের মতো প্রাক্তন ফুটবলারকে। তবে আই এম বিজয়ন, জো পল আনচেরিদের দেখা যায়নি। গতবার উদ্যোক্তারা গ্যালারির টিকিট না দেওয়ায় ওরা খেলা বয়কট করেছিলেন। এ বারও সামিল হচ্ছেন না।