মঙ্গলবার যেখানে মেলবোর্নে শুরু হচ্ছে বক্সিং ডে টেস্ট সেখানে আইসিসির নতুন নিয়মে টেস্ট খেলতে নামছে অন্য দুই দেশ। দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম জিম্বাবোয়ের মধ্যে রাত-দিনের এই টেস্ট হবে চার দিনের। ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকাকে নতুন পরীক্ষা-নিরিক্ষা করার জন্য ছাড়পত্র দিয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল।

এতদিন ধরে যে ভাবে টেস্ট খেলা হয়ে আসছে তার থেকে এই টেস্টে অনেক কিছু অন্যরকম হবে। প্রতিদিন খেলা হবে সাড়ে ছ’ঘণ্টা করে। পাঁচ দিনের ম্যাচের থেকে আধঘণ্টা বেশি। দিনে ৯০ এর জায়গায় ৯৮ ওভার করে বল করতে হবে।

প্রথম দুটো সেশনকে ভাগ করা হয়েছে দু’ঘণ্টার জায়গায় এক ঘণ্টা ১৫ মিনিট করে। প্রথম অর্ধের পর লাঞ্চ ব্রেকের বদলে হবে ২০ মিনিটের টি-ব্রেক। আর দ্বিতীয় অর্ধের পর ৪০ মিনিটের ডিনার ব্রেক। দিনের খেলায় যে সময় নষ্ট হবে সেটা পরের দিনে নিয়ে যাওয়া হবে না। ফলো-অন ২০০ রানের বদলে ১৫০ রানে করানো যাবে।

আরও পড়ুন

হাতে চোট পেলেন স্টিভ স্মিথ

খেলা শুরু হবে দুপুর ১.৩০ থেকে প্রতিদিন। পোর্ট এলিজাবেথে প্রতিদিন সূর্যাস্ত হয় ৭.৩০-৭.৩১। যে কারণে শেষ অর্ধে আধঘণ্টা রাখা হবে। এত বছরে টেস্ট ম্যাচে‌ নানা পরিবর্তন হয়েছে। তিন দিন থেকে ছ’দিন। কখনও অনির্দিষ্ট কালের জন্য। শেষ অনির্দিষ্ট কালের জন্য ম্যাচ হয়েছিল ১৯৩৮-৩৯এ। সে বার ডারবানে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ডের ম্যাচ শেষ পর্যন্ত থেমেছিল ১০দিন পর ইংল্যান্ডের জাহাজ ধরার জন্য।

দক্ষিণ আফ্রিকা-জিম্বাবোয়ের মধ্যে ম্যাচটি হতে চলেছে অষ্টম দিন-রাতের টেস্ট। দক্ষিণ আফ্রিকায় এই প্রথম দিন-রাতের ম্যাচ খেলা হচ্ছে। আগের চারটি দিন-রাতের টেস্ট হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া।