• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এক তারকার পতন, আজ রজার-জোকার মহারণ

আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক, থিমের হাতে রাফা-বধ

Nadal
ট্রফির স্বপ্ন শেষ। বিধ্বস্ত নাদাল। বুধবার মেলবোর্নে। ডান দিকে, মেলবোর্ন পার্কে প্রথম বার সেমিফাইনালে থিম। এপি, এএফপি

রজার ফেডেরার সাতটি ম্যাচ পয়েন্ট বাঁচিয়ে সেমিফাইনালে উঠেছেন। পারলেন না তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী রাফায়েল নাদাল। 

ফেডেরার থাকলেন অস্ট্রেলীয় ওপেনে। আজ, বৃহস্পতিবার তিনি মুখোমুখি হচ্ছেন আর এক মহাতারকা নোভাক জোকোভিচের। কিন্তু মেলবোর্ন পার্কে আরও এক রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে পিছিয়ে পড়ে দুর্দান্ত ভাবে ফিরে এসেও শেষরক্ষা হল না নাদালের। অস্ট্রিয়ার ডমিনিক থিমের কাছে ৬-৭ (৩), ৬-৭ (৪), ৬-৪, ৬-৭ (৬) হেরে বিদায় নিলেন তিনি। 

তবে হারের দিনে বিতর্কও ছড়াল নাদালকে ঘিরে। আগের দিন ফেডেরারের মতোই তিনি উষ্মা প্রকাশ করেন চেয়ার আম্পায়ারের বিরুদ্ধে। দ্বিতীয় সেটে ৩-২ এগিয়ে যাওয়ার পরে চেয়ার আম্পায়ার তাঁকে অতিরিক্ত সময় নেওয়ার জন্য সতর্ক করেন। ঠিক তার আগেই লম্বা র‌্যালি হয়েছে। সে দিকে আম্পায়ারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে নাদাল গজগজ করতে থাকেন, ‘‘সত্যি কী অদ্ভুত! একটা লম্বা পয়েন্টের পরে আপনি এ রকম কথা শোনাচ্ছেন। আপনি মনে হয় ভাল টেনিস দেখতে চান না।’’

এর পরেই বিশ্রী সার্ভ করতে থাকেন তিনি। থিম সার্ভিস গেম ভেঙে ৪-৪ করে ফেলেন। টিভি ধারাভাষ্যে জিম ক্যুরিয়ারকেও বলতে শোনা যায়, ‘‘ওকে অন্যমনস্ক দেখাচ্ছে। পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে, টাইম ভায়োলেশনের জন্য সতর্কিত হওয়া ওকে নাড়িয়ে দিয়েছে।’’ ক্যুরিয়ার তাঁর পক্ষ নিয়ে বলেন, ‘‘চেয়ার আম্পায়ারের বোঝা উচিত ছিল, আগের দু’টি পয়েন্টে কত লম্বা র‌্যালি হয়েছিল।’’ 

আরও পড়ুন: ১০ নম্বর লি-র কাছে পিবিএলে হার সিন্ধুর

আম্পায়ার বনাম রাফা খটাখটি এখানেই থামেনি। চতুর্থ সেটে থিমের একটি সার্ভিস কোর্টের ভিতরে পড়েছিল কি না, সেই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করতে চান নাদাল। আম্পায়ার বলেন, সময় পেরিয়ে গিয়েছে এবং কোর্টে বলের ছাপ দেখে তিনি ভিডিয়োর সাহায্য নিতে চাইছেন। ক্যুরিয়ার ফের তোপ দাগেন, ‘‘বলের ছাপ দেখার এক্তিয়ার অবশ্যই আছে খেলোয়াড়ের। এটা আবার কেমন কথা?’’ যদিও ভিডিয়োতে দেখা যায়, থিমের সার্ভ ভিতরেই ছিল। 

তত ক্ষণে নাদালের নিজের খেলাতেই তাঁকে মাত করতে শুরু করেছেন থিম। যত লম্বা চলছে র‌্যালি, তত পয়েন্ট জিতে চলেন থিম। প্রথম সেটে ৫-৪ অবস্থায় নাদালের সার্ভিস ভাঙেন থিম। এই সময় চেয়ার আম্পায়ার নাদালকে সতর্ক করেন, যদি এত ক্ষণ ধরে তিনি সার্ভ করতে থাকেন, তা হলে সময় নষ্টের আওতায় পড়তে পারেন। ক্ষিপ্ত নাদাল বলেন, ‘‘আমি যেন স্নানঘরে রয়েছি!’’ ধারাভাষ্যে টড উডব্রিজ বলেন, ‘‘সার্ভিসের জন্য সময়সীমা নিয়ে কড়াকড়ি না থাকলে নাদাল হয়তো আরও পাঁচ-ছয় সেকেন্ড সময় নিয়ে সার্ভ করত।’’ আম্পায়ারের এই বিধান তাঁর ছন্দ নষ্ট করে থাকতে পারে।    

রজার ফেডেরারের ২০টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের রেকর্ড স্পর্শ করার স্বপ্ন মেলবোর্নে পূরণ হল না রাফার। বললেনও, ‘‘অবশ্যই আমি হতাশ। আরও একটি গ্র্যান্ড স্ল্যামের সেমিফাইনালে ওঠার সুযোগ হারালাম।’’ যোগ করেন, ‘‘কিন্তু আমি দুর্দান্ত এক প্রতিপক্ষের কাছে হেরেছি। যার এই জয় প্রাপ্য ছিল। ওকে তাই অভিনন্দন।’’ ২৬ বছরের থিম বলে গেলেন, ‘‘আজ ভাগ্যবান ছিলাম। নাদালের মতো খেলোয়াড়কে হারাতে গেলে ভাগ্যের সহায়তাও দরকার।’’ বুধবারই আবার মেয়েদের সিঙ্গলস সেমিফাইনালে উঠেছেন সিমোনা হালেপ এবং স্পেনের গারবিনে মুগুরুজ়া।

পুরুষদের সেমিফাইনালে আলেকজান্ডার জেরেভের বিরুদ্ধে খেলবেন থিম। অন্য সেমিফাইনালে আজ, বৃহস্পতিবার, মুখোমুখি রজার-জোকার। যে মহারণের দিকে তাকিয়ে টেনিসবিশ্ব। কুঁচকিতে চোট লাগার পরে ফেডেরার বুধবার প্র্যাক্টিসে নামেননি। কোর্টের মধ্যে আপত্তিজনক শব্দ ব্যবহার করার কারণে ৩০০০ মার্কিন ডলার জরিমানা হয়েছে। যা নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করেছেন ফেডেরার। টেনিস দুনিয়ায় অবশ্য বিখ্যাত হয়ে গিয়েছেন সুন্দরী আম্পায়ার মারিজানা ভেলজোভিচ। সতর্ক করার পরে যাঁকে ফেডেরার জিজ্ঞেস করেন, ‘‘আপনি শুনেছেন, আমি কী বলেছি?’’ মারিজানা জবাব দেন, ‘‘সেই শব্দ এখানে দ্বিতীয় বার ব্যবহার করা যাবে না।’’ মেয়েদের টেনিসের তারকা ইউজেনি বুশার্ড পর্যন্ত টুইট করেছেন, ‘‘ফেডেরারের ম্যাচের চেয়ার আম্পায়ার খুব বেশি মাত্রায় সুন্দরী।’’ ইতিমধ্যেই বিশ্বের সব ট্যাবলয়েডে ছবি-সহ কভারেজ পাচ্ছেন মারিজানা। এ দিকে, অস্ট্রিয়া থেকে মাত্র দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসেবে অস্ট্রেলীয় ওপেনের শেষ চারে গেলেন থিম। প্রথম জন থোমাস মুস্টার। যাঁকে এই সপ্তাহেই তাঁর পরামর্শদাতা হিসেবে বরখাস্ত করেন থিম।

  (ফেডেরার-জোকোভিচ ম্যাচ শুরু হওয়ার কথা দুপুর দু’টো থেকে) 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন