লিগের প্রথম ম্যাচেই শক্ত প্রতিপক্ষের সামনে পড়ে গেলেন মোহনবাগান কোচ কিবু ভিকুনা।

ডুরান্ড কাপ শুরুর পাঁচ দিন আগেই শুরু হয়ে যাচ্ছে কলকাতা লিগ। সোমবার বিকেলে ১২ দলের প্রতিনিধিকে নিয়ে লটারি করে যে সূচি প্রকাশিত হল আইএফএ দফতরে, তাতে উদ্বোধনী ম্যাচেই গতবারের চ্যাম্পিয়ন মোহনবাগানের মুখোমুখি রানার্স পিয়ারলেস। খেলা হবে শুক্রবার, অর্থাৎ ২৬ জুলাই। 

সুব্রত ভট্টাচার্যের মহমেডানের প্রথম খেলা পড়েছে এরিয়ানের বিরুদ্ধে ২৯ জুলাই। ইস্টবেঙ্গলের প্রথম ম্যাচ ৩১ জুলাই। আলেসান্দ্রো মেনেন্দেসের দলের প্রতিপক্ষ জর্জ টেলিগ্রাফ। ১৪ অগস্ট পর্যন্ত যে সূচি প্রকাশ করেছে আইএফএ, তাতে ইস্টবেঙ্গল এবং মোহনবাগানের দু’টি করে ম্যাচ দেওয়া হয়েছে। মহমেডান খেলবে তিনটি ম্যাচ। এ বার লিগে মোট ৩৩টি ম্যাচ সম্প্রচার করা হবে। ময়দানের তিনটি ঘেরা মাঠেই হবে তিন প্রধানের ম্যাচ। তবে তা গতবারের মতো ফ্লাড লাইটে হবে কি না তা জানাতে পারেনি আইএফএ। সচিব জয়দীপ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘৩৩টি ম্যাচ সম্প্রচার করা হবে। ওদের কাছ থেকে সবুজ সঙ্কেত পেলেই খেলার সময় জানিয়ে দেব।’’ ঘোষণা না হলেও জানা গিয়েছে,  কলকাতা ডার্বিতে ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগান মুখোমুখি হবে ১৭ অগস্ট। ম্যাচ করার জন্য পুলিশের অনুমতি চেয়েছে আইএফএ।

হাতে মাত্র আর তিন দিন। এই অবস্থায় গোয়ায় আবাসিক শিবির থেকে ফিরে সোমবার সকালেই মাঠে নেমে পড়লেন মোহনবাগান কোচ কিবু ভিকুনা। তবে এ দিন চার স্প্যানিশ মাঠে নামেননি। নতুন আসা দুই স্প্যানিশ জোসিবো বেইতিয়া এবং ফ্রান গঞ্জালেস গিয়েছিলেন মেডিক্যাল পরীক্ষা দিতে। আজ, মঙ্গলবার সম্ভবত দু’জনে মাঠে নামবেন। তবে প্রথম ম্যাচেই তাঁদের নামানো হবে কি না তা ঠিক করেননি সবুজ-মেরুনের স্প্যানিশ কোচ। ‘‘ওরা অনুশীলনের মধ্যে আছে কি না সেটা দেখার পরই সিদ্ধান্ত নেব,’’ ফুটবল বিভাগের কর্তাদের জানিয়েছেন কিবু।

তবে আবাসিক শিবিরে যে দু’জন স্প্যানিশ ফুটবলার নজর কেড়েছিলেন সেই ফ্রান মোরান্তা এবং স্ট্রাইকার সালভা চামোরো মানিয়ে নিয়েছেন দলের সঙ্গে। তাঁদের মাথায় কলকাতা লিগ ছাড়াও ঢুকে পড়েছে ডার্বি। ২০১৭-১৮ মরসুমে স্পেনের দ্বিতীয় ডিভিশনের ক্লাব নগ্রেনেসের হয়ে একই সঙ্গে খেলেছিলেন চামোরো এবং ইস্টবেঙ্গলের স্টপার বোরখা গোমেজ। চামোরো এ বারই প্রথম কলকাতায় খেলবেন। বোরখার প্রসঙ্গ উঠতেই তিনি বলে দিয়েছেন, ‘‘বোরখা আমার বন্ধু। ভাল ডিফেন্ডার। আমরা একসঙ্গে একই ক্লাবে খেলেছি। ওর ভাল, মন্দ সব জানি। ডার্বিতে ওর বিরুদ্ধে খেলব এবং জিতব আশা করছি।’’ চামোরো মাধ্যমেই ফ্রান মোরান্তা বলছিলেন, ‘‘এ বার আমাদের রক্ষণ খুব ভাল। সুখদেব, গুরজিন্দর সিংহ, কিমকিমা আছে। সমস্যা হবে না। এ বার অন্য মোহনবাগানকে দেখা যাবে।’’

ইস্টবেঙ্গলে তিন বিদেশি নেমে পড়েছেন মাঠে। আগেই এসে পড়েছিলেন খাইমে সান্তোস কোলাদো। বোরখা এবং কাশিম আইদারাও এসে গিয়েছেন। কাশিমই দুই প্রধানের মধ্যে একমাত্র বিদেশি যিনি স্প্যানিশ নন। এ দিন তিনি বললেন, ‘‘শুরু থেকেই এ বার খেলতে চাই। দলে এবার তরুণ ফুটবলার অনেক। তাদের সাহায্য করব।’’ 

মোহনবাগান রত্ন: অলিম্পিক্সে জোড়া সোনা জয়ী কেশব দত্তকে এ বার ‘মোহনবাগান রত্ন’ দিয়ে সম্মান জানানো হবে। জীবদ্দশাতেই কিংবদন্তি হকি তারকার পাশাপাশি ক্লাব ও দেশের সর্বকালের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় ও সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ও পাচ্ছেন এই সম্মান। ২৯ জুলাই মোহনবাগান দিবসে ‘রত্ন’ প্রদান করা হবে ক্লাবের পক্ষ থেকে। দুই ‘রত্ন’ ছাড়াও আরও কিছু পুরস্কার দেওয়া হবে ওই দিন। জীবনকৃতি সম্মানে ভূষিত হবেন প্রখ্যাত ফুটবলার অশোক চট্টোপাধ্যায়। বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ভাল খেলার জন্য বিশেষ সম্মান দেওয়া হবে মহম্মদ শামিকে।  

মোহনবাগানের খেলা—পিয়ারলেস (২৬ জুলাই), কাস্টমস (৬ অগস্ট)। ইস্টবেঙ্গলের খেলা— জর্জ টেলিগ্রাফ (৩১ জুলাই), বিএসএস (৯ অগস্ট)। মহমেডানের খেলা—এরিয়ান (২৯ জুলাই), সাদার্ন সমিতি (৮ অগস্ট), রেনবো (১১ অগস্ট)।