পাঁচ ঘণ্টা জেরা হল নেমার দা সিলভা স্যান্টোস জুনিয়রের। তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা ধর্ষণের অভিযোগের তদন্ত করছে সাও পাওলো পুলিশ। এক মহিলা অভিযোগ করেন, সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ব্রাজিলীয় তারকা ফুটবলারের সঙ্গে তাঁর আলাপ। নেমার তাঁকে প্যারিসের হোটেলে ডাকেন এবং ইচ্ছার বিরুদ্ধে সহবাস করেন।

জেরার পরে নেমার সাংবাদিকদের বলে যান, ‘‘একদিন  সত্যিটা সবাই জানবে।’’  ক্রাচে ভর করে আহত নেমার থানায় আসেন বিকেল চারটেয়। ছাড়া পান রাত ন’টায়। অভিযোগকারীর নাম নাজিলা ত্রিনদাদে। যিনি এ’সপ্তাহে টিভি সাক্ষাৎকারে সাও পাওলো পুলিশের বিরুদ্ধে মন্তব্য করেন, ‘‘ওদের নেমার কিনে নিয়েছে।’’ তরুণীর বিরুদ্ধে পুলিশ মানহানির মামলা করেছে। 

নাজিলার দাবি, ধর্ষণের ঘটনার ভিডিয়ো তাঁর ব্যক্তিগত সংগ্রহে ছিল। পুলিশ না কি তদন্ত করার নামে সেটি চুরি করেছে। নাজিলা বলেন, ‘‘আমি কি পাগল যে যা ইচ্ছে তাই বলব? ওই ভিডিয়োটা দেখলে যে কেউ বুঝত দোষটা কার। সেটাই নিয়ে নিল।’’ এ দিকে, কোপা আমেরিকায় শনিবার বলিভিয়ার বিরুদ্ধে ব্রাজিল প্রথম ম্যাচ খেলবে। নেমারের ঘটনায় ফুটবল দল সংক্রান্ত খবর এখন প্রচারমাধ্যমে গুরুত্ব হারিয়েছে বলে ব্রাজিলের প্রাক্তনরা আফসোস করেছেন।