ফরাসি ওপেন শুরু হচ্ছে ২৬ মে। এই মরসুমে মাত্র চারটি টুর্নামেন্টে নেমেই প্যারিসে খেলতে দেখা যেতে পারে সেরিনা উইলিয়ামসকে। কিন্তু সেখানেও তিনি শেষ পর্যন্ত খেলবেন কি না, তা নিয়ে সংশয় তৈরি হল। রোমে বুধবার সেরিনা হাঁটুর ব্যথার জন্য নাম তুলে নিলেন। এ দিনই তাঁর খেলার কথা ছিল দিদি ভিনাসের বিরুদ্ধে। রোমে একুশ বছর পরে দুই বোনের লড়াই নিয়ে আগ্রহও ছিল। কিন্তু সেরিনা শেষ পর্যন্ত সবাইকে হতাশ করলেন। অথচ মঙ্গলবারই প্রথম রাউন্ডে জিতে উঠে সেরিনা জানিয়েছিলেন, হাঁটু নিয়ে আর কোনও সমস্যা নেই। তার পরেও সেরিনার সিদ্ধান্তে টেনিস মহল বেশ অবাকই হয়েছে।

সেরিনা বলেছেন, ‘‘হঠাৎই আমার বাঁ হাঁটুতে আবার ব্যথা শুরু হয়েছে। তাই এ বারের টুর্নামেন্ট থেকে সরে যাওয়াই উচিত বলে আমার মনে হল।’’ সঙ্গে যোগ করলেন, ‘‘টেনিস জীবনের শুরু থেকেই রোমে খেলতে ভাল লাগে। এই শহরটাও বড় প্রিয় আমার। এখানে প্রচুর ভক্তও রয়েছেন আমার। তাই এ বার আর খেলব না ভাবলেই খারাপ লাগছে।’’ মার্চে মায়ামিতেও দ্বিতীয় রাউন্ডের পরে হাঁটুর সমস্যার জন্য সরে গিয়েছিলেন সেরিনা। এ মাসের শুরুতে ইন্ডিয়ান ওয়েলসেও ম্যাচের মাঝপথে সরে যান। কিন্তু রোমে প্রত্যাশা জাগিয়ে প্রথম রাউন্ডে রেবেকা প্যাটারসনের বিরুদ্ধে দারুণ খেলে জেতার পরেও খেললেন না।

সেরিনা অবশ্য জানাচ্ছেন, ফরাসি ওপেনে তিনি খেলবেনই। এ ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসীও মেয়েদের টেনিসের সর্বকালের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়। একটি সূত্রের খবর, প্যারিসে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে কোর্টে ফিরতেই রোমে আর খেলার ঝুঁকি তিনি নিলেন না। সেরিনা বলেছেন, ‘‘আপাতত মন দিয়ে আমাকে রিহ্যাব করতে হবে। ফরাসি ওপেনে খেলতে চাই যে কোনও অবস্থায়। খেলব পরের বছর রোমে।’’ সেরিনার বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এখন এগারো। কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ার পরে এক বছর আগে কোর্টে ফেরেন।