• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পৃথ্বীর সঙ্গে বোঝাপড়া ভাল, বলে দিলেন প্রত্যয়ী মায়াঙ্ক

Share a good understanding with Prithvi: Mayank Agarwal
উচ্ছ্বাস: জন্মদিনে মায়াঙ্ককে নিয়ে উৎসবে মাতলেন ঋষভ, পৃথ্বী। টুইটার

অবশেষে ছন্দে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল। নিউজ়িল্যান্ড সফরে আসার পর থেকে রান-খরা চলছে তাঁর ব্যাটে। তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম ইনিংসে রান পাননি মায়াঙ্ক। কিন্তু রবিবার, নিউজ়িল্যান্ড একাদশের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ইনিংসে রানে ফিরলেন তিনি। নিজের জন্মদিনে মায়াঙ্কের ব্যাট থেকে এল ৮১ রান। এর আগে চলতি সফরে মায়াঙ্কের স্কোর ছিল যথাক্রমে ৮, ৩২, ২৯, ৩৭, ২৪, ০, ০, ৩২, ৩, ১, ১।

নিউজ়িল্যান্ড সফরে মায়াঙ্কের এই খারাপ ফর্ম প্রশ্ন তুলে দিয়েছিল প্রথম টেস্টে তাঁর সুযোগ পাওয়া নিয়ে। রান পাওয়ার পরে কি এখন কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে? মায়াঙ্কের জবাব, ‘‘নিউজ়িল্যান্ডে খেলা অন্যান্য জায়গার থেকে কিছুটা অন্য রকম, এটা মানতেই হবে। তবে আমি আগে কী হয়েছে, তা মাথায় রাখছি না। যা হয়ে গিয়েছে, তা হয়ে গিয়েছে।’’ কিন্তু এই ইনিংসটা কি আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিচ্ছে না? মায়াঙ্কের জবাব, ‘‘অবশ্যই। প্র্যাক্টিস ম্যাচের এই ৮১ রান আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে। যে আত্মবিশ্বাসটা টেস্টে কাজে আসবে বলেই আমার মনে হয়।’’

নিউজ়িল্যান্ডে তিনি কেন রান পাচ্ছিলেন না, সে নিয়ে মুখ খুলতে চান না মায়াঙ্ক। তবে এটা স্বীকার করেছেন, দলের ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠৌরের সঙ্গে ব্যাটিং নিয়ে আলাদা করে বসেছিলেন। কোচের পরামর্শ নিয়েছিলেন। মায়াঙ্কের কথায়, ‘‘আমি আর বিক্রম স্যর আলোচনায় বসেছিলাম। কোথায়, কোথায় উন্নতি করা যায় এই নিয়ে কথা বলেছি। যে যে জায়গায় উন্নতি করা দরকার বলে মনে হয়েছে, সে সব নিয়ে কথা হয়েছে।’’ ভারতীয় ওপেনার মনে করেন, তাঁর ‘হোমওয়ার্ক’ কাজে দিচ্ছে। তিনি বলেছেন, ‘‘এই প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম ইনিংসে আউট হয়ে যাওয়ার পরে নেটে প্রচুর সময় দিয়েছিলাম। অনেক ক্ষণ ধরে ব্যাট করে গিয়েছি। ভেবে ভাল লাগছে, যে পরিশ্রমটা নেটে করেছিলাম, তার ফল দ্বিতীয় ইনিংসে পেলাম।’’

ঠিক কী পরিবর্তন করেছিলেন নিজের ব্যাটিংয়ে? মায়াঙ্ক শুধু বলছেন, ‘‘আমার স্টান্সে একটু বদল এনেছি। আগের স্টান্সে আমি ঠিক সাবলীল ভাবে খেলতে পারছিলাম না। একটু ‘ক্লোজ’ স্টান্স ছিল। সেটা বদলেছি। তবে ওই নিয়ে বেশি ভাবতে চাইছি না। যা হওয়ার তা হয়ে গিয়েছে। এখন শুধু সামনের দিকে তাকাতে চাই।’’

কোন শটটা মারতে পারলে মনে হয় ছন্দে আছেন? মায়াঙ্ক বলেছেন, ‘‘এই ইনিংসে দুটো অন ড্রাইভ মেরেছিলাম। অন ড্রাইভ এমন শট ঠিক মতো মারতে পারলে আত্মবিশ্বাস বেড়ে যায়। মনে হয়, হ্যাঁ সব কিছু নিখুঁত হচ্ছে। তাই ও রকম দুটো শট খেলতে পারার পরে বুঝে যাই, যা চেয়েছিলাম, সেটা হয়েছে।’’  

নিউজ়িল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু প্রথম টেস্টে ভারতের হয়ে কোন দুই ব্যাটসম্যান ওপেন করবেন, এই নিয়ে জোর আলোচনা চলছে। হরভজন সিংহ বলেছিলেন, মায়াঙ্কের সঙ্গে ওপেন করুক শুভমন গিল। কিন্তু প্রস্তুতি ম্যাচের দুই ইনিংসেই ব্যর্থ হয়েছেন শুভমন। তবে মায়াঙ্ক দ্বিতীয় ইনিংসে রান করায় ধরে নেওয়া হচ্ছে তাঁকে শুরুতেই দেখা যাবে। সঙ্গী খুব সম্ভব পৃথ্বী শ। 

ওয়েলিংটনে প্রথম টেস্টে সঙ্গী কি তা হলে পৃথ্বীই? মায়াঙ্ক বলেন, ‘‘আমি আর পৃথ্বী একসঙ্গে অনেক ক্রিকেট খেলেছি। বোঝাপড়াও ভাল। ব্যাটিং করার সময় নিজেদের মধ্যে যখন যে আলোচনা করা দরকার, তা আমরা করে নিই।’’ আরও বলেন, ‘‘কখনও আমি পৃথ্বীকে পরামর্শ দিই, কখনও ও আমাকে দেয়। এই দলে কিন্তু সিনিয়র-জুনিয়র ব্যাপারটা নেই। আমরা সব সময় একে অন্যকে সাহায্য করতে তৈরি থাকি।’’ 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন