বল বিকৃতি কাণ্ডে এক বছরের জন্য নির্বাসিত। তারই মধ্যে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের মাঝপথ থেকে কনুইয়ের চোটের জন্য দেশে প্রত্যাবর্তন এবং অস্ত্রোপচার। বিশ্বকাপের আগে আইপিএল সমস্ত দিক থেকেই স্টিভ স্মিথের কাছে এ বার বড় পরীক্ষার মঞ্চ।

তবে সেই আনুষঙ্গিক উৎকণ্ঠাকে মন থেকে ঝেড়ে ফেলে নতুন ভাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে মরিয়া অস্ট্রেলীয় তারকা। সোমবার রাজস্থান রয়্যালসের ওয়েবসাইটে ভক্তদের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে স্মিথ বলেছেন, ‘‘রয়্যালস দলটা একটা স্নেহশীল পরিবারের মতো। অধীর আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করেছি, কবে আবার এই পরিবারে ফিরতে পারব। এখন খুব হাল্কাবোধ করছি।’’ আরও বলেছেন, ‘‘এত দিন ধরে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে খেলছি। কিন্তু এর আগে জয়পুরে কখনও ম্যাচ খেলার সুযোগ পাইনি। এ বার তাকে কাজে লাগাতে চাই। আশা করছি, প্রথম ম্যাচ থেকে সমর্থকদের প্রত্যাশাপূরণ করতে পারব।’’ জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে বিশ্বকাপের চেয়ে অগ্রাধিকার দিচ্ছেন আইপিএলকে। বলেছেন, ‘‘অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলা বরাবরই গর্বের। তবে এখন আইপিএল নিয়েই বেশি ভাবতে চাই।’’

কনুইয়ের অস্ত্রোপচারের পরে খুব বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়নি। আগামী সোমবার কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের আগে খেলতে নামার আগে তাই সতর্ক থাকছেন স্মিথ। বলেছেন, ‘‘কয়েক সপ্তাহ আগে থেকে সামান্য ব্যাটিং শুরু করেছি। ম্যাচ খেলেই আমাকে ধীরে ধীরে ছন্দ ফিরিয়ে আনতে হবে। তাড়াহুড়ো করতে চাই না।’’ যদিও স্মিথ এও বলেছেন, ‘‘যতটা ব্যাটিং করেছি তাতে এটা বুঝতে পেরেছি যে, ভালই শট নিতে পারছি। যত বেশি শট নিতে পারব, আত্মবিশ্বাস দ্রুত ফিরে আসবে।’’ 

রাজস্থান রয়্যালস তারকা জানিয়েছেন, শরীর এবং মনের দিক থেকে নিজেকে সুস্থ রাখতে যেমন নেটফ্লিক্সে দেখেছেন জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘বিলিয়নস’, তেমনই পেশির জোর বাড়াতে সাঁতারও কেটেছেন। স্মিথের কথায়, ‘‘শরীরের সঙ্গে মনকেও শান্ত রাখা প্রয়োজন। দু’টো দিকেই আমাকে বিশেষ গুরুত্ব দিতে হয়েছে। আশা করছি তার সুফল অবশ্যই পাব আইপিএলে।’’

 তবে স্মিথ সব চেয়ে বেশি রোমাঞ্চ অনুভব করছেন ইংল্যান্ডের উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান জস বাটলারের সঙ্গে ব্যাটিং করবেন বলে। গত মরসুমে টানা পাঁচটি হাফসেঞ্চুরি করেছিলেন বাটলার। সেই প্রসঙ্গ টেনে স্মিথ বলেছেন, ‘‘বিশ্বক্রিকেটে বাটলারের মতো বিধ্বংসী ক্রিকেটার খুব কম রয়েছে। এ বার ওর সঙ্গে ব্যাটিং করার সুযোগ পাব, সেটা আমার কাছে বড় প্রাপ্তি। আশা করছি, ওর সঙ্গে খেলে আমিও অনেক বেশি আগ্রাসী হয়ে উঠতে পারব। রয়্যালস-ভক্তদের কাছে অনুরোধ, আমাদের প্রতি আস্থা রাখুন। রাজস্থান এ বার দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলবে।’’