• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অলিম্পিক্স নিয়ে ‘কেলোর কীর্তি’ করেই চলেছেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী

Vijay Goel

অলিম্পিকের আসর থেকে ফিরে আসার পরও ‘আমোদ’ আর বিতর্ক ছড়িয়ে চলেছেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী বিজয় গোয়েল। এর আগে দীপা কর্মকারকে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে ভুল নাম লিখেছিলেন টুইটারে। এ বার শ্রাবণী নন্দকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ছবি দিলেন দ্যূতি চন্দের।

গতকাল মেয়েদের ২০০ মিটার দৌড়ে নেমেছিলেন শ্রাবণী। আর দ্যূতি গত ১২ অগস্ট ১০০ মিটারের হিটে নেমে সাত নম্বরে শেষ করেন। শ্রাবণীর দৌড়ের আগে তাঁকে টুইটারে শুভেচ্ছা জানান কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী। কিন্তু সেখানে ছবি দিয়ে দেন দ্যূতির। হইচই, বিতর্ক, হাসাহাসি, মস্করা শুরু হয়। তাড়াতাড়ি পুরনো টুইট তুলে নেন বিজয়। আবার নতুন করে টুইট করেন শ্রাবণীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে। আবারও ‘কেলোর কীর্তি’। কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী যখন শ্রাবণীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে পোস্ট করছেন, তার  আগেই শ্রাবণী ইভেন্ট থেকে ছিটকে গেছেন। ২০০ মিটারের হিটে সব মিলেয়ে ৫৫ নম্বরে ছিলেন তিনি।

এর আগে দীপা কর্মকারকে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়েও বিভ্রাট ঘটিয়েছিলেন মন্ত্রী। দীপা কর্মকারের বদলে লেখেন ‘দীপা কর্মনাকর’। তুমুল সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল তাঁকে।

রিও অলিম্পিকের আসরে গিয়েও বিধি ভেঙে আয়োজকদের রোষের মুখে পড়তে হয়েছিল ভারতের ক্রীড়ামন্ত্রীকে। অভিযোগ,  বৈধ প্রবেশাধিকার নেই এমন অনেককে নিয়ে তিনি মূল মঞ্চে ঢোকার চেষ্টা করেছিলেন। এ জন্য তাঁর প্রবেশাধিকার বা ‘অলিম্পিক অ্যাক্রেডিটেশন’ বাতিলের হুমকিও দেয় আয়োজক কমিটি। দেশে ফিরে অবশ্য সে অভিযোগ মানতে চাননি বিজয় গোয়েল। ‘কিছু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল’—এমনই দাবি করেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন