• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নতুন প্রজন্মের পেস বিভাগের খোঁজ শুরু

Umesh ishant shami
বদল: ইশান্ত-শামিদের উত্তরসূরি খোঁজার বার্তা অধিনায়কের। ফাইল চিত্র

নিউজ়িল্যান্ডের কাছে সিরিজ হারের পরে পেস বোলিং বিভাগে যুগ পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছেন বিরাট কোহালি। বলে দিয়েছেন, পরের প্রজন্মের ফাস্ট বোলিং বিভাগকে তৈরি করার দিকে নজর দিতে হবে টিম ম্যানেজমেন্টকে। 

মনে করা হচ্ছে, এই ভারতীয় দলে যশপ্রীত বুমরা এখনও অনেক দিন পেস বোলিং বিভাগকে নেতৃত্ব দিতে পারবেন। বুমরার এখন বয়স ২৬। মহম্মদ শামির বয়স ২৯ এবং আশা করা যায়, তিনিও অন্তত চার-পাঁচ বছর খেলতে পারবেন। তবে চিন্তা থাকতেই পারে উমেশ যাদব (৩৩ বছর) এবং ইশান্ত শর্মাকে (৩২ বছর) নিয়ে। ইশান্তকে চোট থেকে তড়িঘড়ি মাঠে ফেরানো হয়েছে। নিউজ়িল্যান্ডে প্রথম টেস্টের পরেই তাঁকে ফিরিয়ে আনতে হয়েছে দেশে। যা নিয়ে দল মোটেই প্রসন্ন হয়নি এবং বেঙ্গালুরুর জাতীয় অ্যাকাডেমির দিকে ফের আঙুল উঠেছে।  

কোহালি দলের ফাস্ট বোলারদের সম্পর্কে বলছেন, ‘‘ওদের বয়স কমছে না, তাই আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। নতুন ছেলেরা যাতে দ্রুত উঠে আসতে পারে, সেটা দেখতে হবে। তাদের তৈরি রাখতে হবে।’’ গত দু’বছরে বুমরা এবং শামির উপর অত্যাধিক ধকল গিয়েছে। ইশান্ত এবং উমেশের বয়স হচ্ছে। ভুবনেশ্বর কুমার চোটের জন্য খেলতেই পারছেন না। নিউজ়িল্যান্ডের সুইং এবং সিমিং পরিবেশেই সব চেয়ে বেশি করে দরকার ছিল তাঁকে। কিন্তু জাতীয় অ্যাকাডেমিতে ভুবির রিহ্যাব যেন শেষই হচ্ছে না। 

কোহালির কথাবার্তা থেকে মনে হচ্ছে, বছরের শেষে অস্ট্রেলিয়া সফরের আগে তিনি নবদীপ সাইনির মতো তরুণদের সম্ভবত তৈরি রাখতে চাইছেন। ‘‘আমরা বুঝতে পারছি, তিন-চার জনকে তৈরি রাখা দরকার। হঠাৎ করে শূন্যতা যাতে তৈরি না হয়,’’ বলে কোহালি যোগ করছেন, ‘‘ক্রিকেটে সে রকমই হয়। সব সময় ছোটখাটো যুগ বদল চলছে।’’ সাইনির নাম করেই তিনি এর পর বলেন, ‘‘সাইনি এসে গিয়েছে। আরও তিন-চার জন রয়েছে, যাদের উপর আমাদের চোখ রয়েছে।’’ অধিনায়ক চান, নতুন যাঁরা আসবেন তাঁরা যেন ইশান্ত, উমেশদের সাফল্যের পুনরাবৃত্তি ঘটাতে পারেন।   

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন