Advertisement
১৫ জুলাই ২০২৪
Ashes 2023

এ বার কি ‘আন্ডার আর্ম’ বল করবেন? ইংরেজ সাংবাদিকের খোঁচা খেয়ে পাল্টা জবাব অসি অধিনায়কের

অ্যাশেজে উত্তাপ বেড়েই চলেছে। এ বার তাতে যোগ দিয়েছে সংবাদমাধ্যম। প্যাট কামিন্সকে কঠিন প্রশ্নের মুখে ফেলেন এক ইংরেজ সাংবাদিক। তাঁকে পাল্টা জবাব দেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক।

Pat Cummins

অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক প্যাট কামিন্স। —ফাইল চিত্র

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
শেষ আপডেট: ০৪ জুলাই ২০২৩ ১২:০৯
Share: Save:

অ্যাশেজে বিতর্ক কমার নাম নেই। বরং তা বেড়েই চলেছে। এ বার তাতে ঢুকে পড়েছে সংবাদমাধ্যমও। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক প্যাট কামিন্সকে সাংবাদিক বৈঠকে কঠিন প্রশ্নের মুখে ফেলার চেষ্টা করেছেন ইংরেজ সাংবাদিকেরা। তার পাল্টা জবাবও দিয়েছেন কামিন্স।

লর্ডসে দ্বিতীয় টেস্ট জেতার পরে সাংবাদিক বৈঠকে ইংরেজ সংবাদমাধ্যমের মূল প্রশ্ন ছিল জনি বেয়ারস্টোর উইকেট নিয়ে। অস্ট্রেলীয়দের দাবি, নিয়মের মধ্যে থেকেই বেয়ারস্টোকে আউট করেছেন তাঁরা। সাংবাদিক বৈঠকে কামিন্সকে এক ইংরেজ সাংবাদিক সেই নিয়মের দোহাই দিয়ে খোঁচা মারেন। প্রশ্ন করেন, ‘‘এর পর তা হলে কি আন্ডার আর্ম (হাত না ঘুরিয়ে বল ছোড়া) বল করবেন আপনারা? না কি মাঁকড়ীয় (বল করার সময় নন-স্ট্রাইকার ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে গেলে বোলারের হাতে রান আউট) আউট করবেন?’’

জবাবে পাল্টা খোঁচা দিয়ে কামিন্স বলেন, ‘‘সেটা করতেও পারি। সবটাই নির্ভর করছে বাকি টেস্টগুলোতে উইকেট আরও কত পাটা হচ্ছে তার উপর।’’ ইংল্যান্ডের প্রথম দুই টেস্টের উইকেট নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রাক্তন ক্রিকেটারেরা। আগের থেকে উইকেট অনেক মন্থর। অসমান বাউন্স দেখা যাচ্ছে। অনেকে জানিয়েছেন, বাজ়বল (ইংল্যান্ডের কোচ ব্রেন্ডন ম্যাকালামের ডাকনাম বাজ়। তাঁর সময়ে ইংল্যান্ড যে আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে খেলছে সেটার এই নাম দেওয়া হয়েছে।) খেলার জন্যই উইকেটে বদল করা হয়েছে। সেই উইকেট নিয়েই এ বার পাল্টা খোঁচা দেন কামিন্স।

আসলে নিয়মে থাকলেও ‘আন্ডার আর্ম’ বল করে অতীতে বিতর্কে জড়িয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। ১৯৮১ সালে নিউ জ়িল্যান্ডের বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ার এক দিনের ম্যাচে এই বিতর্ক হয়। জেতার জন্য শেষ বলে নিউজিল্যান্ডের দরকার ছিল ৬ রান। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক গ্রেগ চ্যাপেলের নির্দেশে তাঁর ভাই ট্রেভর চ্যাপেল ‘আন্ডার আর্ম’ বল করেন। ফলে নিউ জ়িল্যান্ডের ব্যাটার ব্রায়ান ম্যাকেশনি সেই বলে বড় শট মারতে পারেননি। ম্যাচ জিতে যায় অস্ট্রেলিয়া। অধিনায়ক চ্যাপেলের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে বিতর্ক হয়েছিল।

মাঁকড়ীয় আউটের সঙ্গেও যুক্ত ইংল্যান্ড। আইপিএলে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে খেলার সময় ইংল্যান্ডের ব্যাটার জশ বাটলার ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ায় তাঁকে আউট করেন পঞ্জাব কিংসের স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। সেই ঘটনা নিয়েও বিতর্ক হয়েছিল। পরে অবশ্য মাঁকড়ীয় আউটকে ক্রিকেটের নিয়মে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। যদিও খেলার স্পিরিটের কথা মাথায় রেখে অনেক বোলার এ ভাবে আউট করতে চান না।

বেয়ারস্টোর উইকেট নিয়ে নিজের দলের উইকেটরক্ষক অ্যালেক্স ক্যারেকে সমর্থন করেছেন কামিন্স। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক বলেন, ‘‘ওই ওভারে আগেও ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে যাচ্ছিল বেয়ারস্টো। ক্যারে সেটা লক্ষ্য করেছিল। তাই সঙ্গে সঙ্গে উইকেটে মারে। ক্রিকেটের নিয়মের মধ্যে থেকেই সব করেছে ক্যারে। আমাদের মতে ও কোনও ভুল করেনি।’’

ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসে ক্যামেরন গ্রিনের বাউন্সার থেকে মাথা বাঁচিয়ে নেওয়ার পর বেয়ারস্টো ভুলেই গিয়েছিলেন বল কোথায়। ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি। উইকেটরক্ষক ক্যারে সঙ্গে সঙ্গে বল ছুড়ে উইকেট ভেঙে দেন। রান আউট হয়ে যান বেয়ারস্টো। কিছু ক্ষণ ক্রিজে দাঁড়িয়ে থাকার পরে সাজঘরে ফেরেন ইংরেজ ব্যাটার। বেয়ারস্টোর এই আউট হওয়ার ধরন নিয়ে ক্ষোভ ইংল্যান্ডের। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটীয় স্পিরিট নিয়ে প্রশ্ন তুলছে তারা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Ashes 2023 Pat Cummins australia cricket
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE