Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

ধোনি ছন্দে ফেরায় সুবিধে ভারতের, বলছেন ধওয়ন

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১৮ জানুয়ারি ২০১৯ ০৫:৪৫
সুবিধের পাশাপাশি একটা সমস্যার কথাও বলেছেন ধওয়ন।

সুবিধের পাশাপাশি একটা সমস্যার কথাও বলেছেন ধওয়ন।

‘মিশন অস্ট্রেলিয়া’র শেষ পর্বে এসে এক অভিনব রেকর্ডের সামনে দাঁড়িয়ে বিরাট কোহালির ভারত। অস্ট্রেলিয়ার মাটি থেকে টেস্ট এবং ওয়ান ডে সিরিজ জয়। দ্বিপাক্ষিক কোনও ওয়ান ডে সিরিজ এর আগে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে জেতেনি ভারত। মেলবোর্নে সেই ইতিহাস গড়ার সামনে দাঁড়িয়ে কোহালিরা। জিতলে অস্ট্রেলিয়ায় এই প্রথম ‘গোল্ডেন ডাবল’ হবে ভারতের।

বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে এসে শিখর ধওয়ন বলে গেলেন, ‘‘এই ওয়ান ডে সিরিজটা জিততে পারলে সেটা দারুণ ব্যাপার হবে। আমরা ইতিমধ্যেই টেস্ট সিরিজ জিতেছি। এ বার ওয়ান ডে সিরিজটা জিততে পারলে এমন একটা কীর্তি হবে, যা ভোলা কঠিন। সে দিকেই তাকিয়ে আছি আমরা।’’ যে ম্যাচে নামার আগে বৃহস্পতিবার টেনিস বলে প্র্যাক্টিস সারলেন ধওয়ন। পরে তিনি বলেন, ‘‘ওপেনার হিসেবে নিজের রিফ্লেক্সটা ঠিক রাখার জন্যই টেনিস বলে অনুশীলন করলাম। অস্ট্রেলিয়ার বেশ কয়েক জন ফাস্ট বোলার আছে। পিচে বাউন্সও থাকে। তাই শর্ট বলের মোকাবিলায় এই অনুশীলন।’’

শেষ ম্যাচে জয় পাওয়ায় যে ভারতের আত্মবিশ্বাস অনেক বেড়ে গিয়েছে, সেটা স্পষ্ট। অ্যাডিলেডে দলগত পারফরম্যান্সের প্রশংসা করে ধওয়ন বলেন, ‘‘দল হিসেবে অ্যাডিলেডে আমরা খুব ভাল খেলেছি। দু’টো ম্যাচেই ধোনি খুব ভাল খেলেছে। ধোনি ছন্দ ফিরে পাওয়ায় আমরা সবাই খুশি। ধোনি এক দিকে থাকলে উল্টো দিকের ব্যাটসম্যানদের আত্মবিশ্বাস অনেক বেড়ে যায়।’’ ভারতীয় ওপেনার আরও বলেছেন, ‘‘আমাদের দলে ধোনির মতো অনেক পরিণত ক্রিকেটার আছে। অভিজ্ঞতার কমতি নেই দলে। সবাই ফিটও আছে, ছন্দে আছে। যেটা আমাদের বড় সুবিধে।’’

Advertisement

তবে সুবিধের পাশাপাশি একটা সমস্যার কথাও বলেছেন ধওয়ন। সেটা হল, হার্দিক পাণ্ড্যের না থাকাটা। ধওয়নের মন্তব্য, ‘‘হার্দিক দলে থাকা মানে দলের ভারসাম্যটা ঠিক থাকে। যেটা আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’’ অলরাউন্ডার হার্দিক দলে না থাকলেও আর এক জন অলরাউন্ডার ভারতের দলে আছে। যদিও তিনি প্রথম দুই ম্যাচে খেলেননি। তিনি কেদার যাদব। যাঁকে নিয়ে ধওয়ন বলেছেন, ‘‘কেদার যখন খেলে, তখন ওর অফস্পিনটা আমাদের খুব কাজে লাগে। ও দু’-তিনটে ওভার করে দেয়। সেটা খুব গুরুত্বপূর্ণ হয়ে যায়। কেদার আমাদের কাছে ম্যান উইথ দ্য গোল্ডেন আর্ম। ও যখনই বল করতে আসে, উইকেট পায়। অনেক বড় বড় পার্টনারশিপ ভেঙেছে ও। টেস্ট হোক কী ওয়ান ডে, অলরাউন্ডারের গুরুত্ব সব সময়ই আলাদা।’’ যদিও কেদার শেষ ওয়ান ডে-তে খেলবেন কি না, ঠিক নেই।

অস্ট্রেলিয়া সফরের শুরুতে টি-টোয়েন্টি সিরিজে খেলেছিল ভারত। তার পরে ধওয়ন ক্রিকেটে থেকে দূরেই ছিলেন। যা নিয়ে সুনীল গাওস্করের মতো প্রাক্তন ক্রিকেটাররা প্রশ্ন তুলেছিলেন। ধওয়ন অবশ্য মনে করছেন, এতে তাঁর কোনও সমস্যা হয়নি। বরং টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার ফলে ছন্দ হারাননি। ‘‘মাঝে ৫-৬ সপ্তাহ সময় পেয়েছিলাম। ওই সময় ট্রেনিংয়ে জোর দিয়েছিলাম। বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে বলব, কিছুটা সময় ক্রিকেট থেকে দূরে থাকায় সুবিধে হয়েছে। এখন আবার দলে ফিরতে পেরে ভাল লাগছে।’’ ওয়ান ডে সিরিজে প্রথম ম্যাচে রান না পেলেও দ্বিতীয় ম্যাচে সাবলীল দেখিয়েছে ধওয়নকে। এই বাঁ-হাতি ওপেনারের মন্তব্য, ‘‘ভালই ব্যাটে-বলে হচ্ছে। ছন্দেই আছি। মাঝের এই বিশ্রাম পাওয়ায় ভালই হয়েছে। অনেক তরতাজা অবস্থায় মাঠে নামতে পারব। আমরা ক্রিকেটারেরা তো এ রকম বিশ্রাম খুব একটা পাই না।’’

আরও পড়ুন

Advertisement