Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied

খেলা

আজ দলে এতগুলি পরিবর্তন? দেখে নিন ভারতের সম্ভাব্য একাদশ

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০৬ অগস্ট ২০১৯ ১১:৩১
টি২০-তে যতই শক্তিশালী হোক ওয়েস্ট ইন্ডিজ, তাদের হেলায় হারিয়ে ইতিমধ্যেই সিরিজ পকেটে পুরেছে ভারত। তিন ম্যাচের সিরিজে আজ নেহাতই নিয়মরক্ষার ম্যাচ। তবু বিশ্বকাপের পর প্রথম এই সিরিজ ৩-০ করে সসম্মানে জিততে চাইবে ভারত। তাই দেখে নেওয়া যাক এই ম্যাচে কেমন হতে পারে ভারতের প্রথম একাদশ।

সিরিজ শুরুর আগেই ক্যাপ্টেন কোহালি জানিয়ে দিয়েছিলেন, এই সিরিজ নতুনদের প্রমাণ করার মঞ্চ। ইতিমধ্যে সেই কাজটা অনেকটাই করে দেখিয়েছেন ওয়াশিংটন সুন্দর, নবদীপ সাহানি, খলিল আহমেদরা। এ বার কি সেই আস্থার পথে হেঁটেই দল সাজাবে টিম ম্যানেজমেন্ট?
Advertisement
শিখর ধওয়ন: চোটের কারণে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন শিখর। চোট কাটিয়ে ফিরে এই সিরিজের প্রথম ম্যাচে সফল না হলেও রান পেয়েছেন দ্বিতীয় ম্যাচে। ১৬ বলে ২৩ করলেও শিখরের ব্যাট থেকে রান আসতে শুরু করায় কিছুটা স্বস্তিতে ভারতের থিঙ্ক-ট্যাঙ্ক। তৃতীয় ম্যাচেও ওপেনার হিসেবে তাঁকে ফর্মে ফেরার আর একটা সুযোগ দেওয়া হতেই পারে।

রোহিত শর্মা: আগের ম্যাচেই প্রমাণ দিয়েছেন, কেন তিনি এখনও ভারতীয় টিমে অন্যতম সেরা ও অপরিহার্য। ৫১ বলে তাঁর মারকুটে ৬৭-ই আগের দিন দলের মধ্যে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান। ডাকওয়র্থ লুইস নিয়মে বিপাকে পড়তে পারত ভারত, যদি রোহিত নিজ মহিমায় না থাকতেন। কাজেই তাঁর জায়গা নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষার কোনও অবকাশই নেই।
Advertisement
বিরাট কোহালি: ভারতীয় ক্যাপ্টেনের ব্যাটের উপর ভরসা করে বহু ম্যাচ জিতেছে দল। যদিও টি২০-তে এখনও সে ভাবে ভয়ঙ্কর হয়ে জ্বলে উঠতে দেখা না গেলেও বিরাটের উপস্থিতি ভারতীয় দলের কাছে অন্যতম সহায়। তিনি একটু বড় রান গড়ে দিয়ে গেলেই মিডল অর্ডারের ব্যর্থতাও অতটা প্রভাবিত করবে না।

ঋষভ পন্থ: দল তাঁকে যথেষ্ট গুরুত্ব দেয় বলেই অভিজ্ঞতা কম থাকলেও গত বিশ্বকাপে দলে ঠাঁই পেয়েছিলেন তিনি। অদূর ভবিষ্যতে দলের চার নম্বর জায়গাটায় যে তাঁকেই ভাবছে দল, তা দিনে দিনে স্পষ্ট হচ্ছে। যদিও এখনও সেই ভাবনাকে যোগ্য মর্যাদা দিয়ে উঠতে পারেননি ঋষভ। তবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য এখনও কিছু সুযোগ তিনি পাবেন বলেই মত বিশেষজ্ঞদের।

লোকেশ রাহুল বা শ্রেয়স আইয়ার: ধাবাবাহিকতার অভাবে ভুগতে থাকা মনীষের জায়গায় আজ দলে আসতে পারেন লোকেশ বা শ্রেয়শ। দুই ম্যাচেই মোটের উপর ব্যর্থ মনীশকে বসিয়ে আরও দুই তরুণ তাস লোকেশ বা শ্রেয়সের উপর আজ ভরসা দেখাতেই পারে ভারতীয় দল। মিডল অর্ডারকে শক্ত করাই এর উদ্দেশ্য।

ক্রুণাল পাণ্ড্য: ব্যাট হোক বা বল— দুই বিভাগেই নিজের দক্ষতার প্রমাণ দিয়ে দলে অপরিহার্য হয়ে ওঠার ছাপ রাখছেন ক্রুণাল। আর একটু ধৈর্য বাড়ালে ও ধীরস্থির হলেই ক্রুণালের পারফরম্যান্স আরও পরিণত হতে পারে বলে মত ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের। কাজেই আজ ম্যাচে তাঁর বাদ যাওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই।

রবীন্দ্র জাডেজা: এই মুহূর্তে ভারতীয় দলে তাঁর মতো ব্যালান্সড ক্রিকেটার প্রায় নেই। ফিল্ডিং থেকে শুরু করে ব্যাটিং বা বোলিং— সব ক্ষেত্রেই তাঁর দক্ষতা ‘থ্রি ইন ওয়ান’ প্যাকেজে পরিণত করেছে তাঁকে। ৩০ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার তাই ভারতীয় দলে আস্থার মুখ। কাজেই তাঁর জায়গা দলে খুবই যথার্থ।

রাহুল চাহার: কোনও ম্যাচে দরকারের সময় তিন-তিনটে ৬ মেরে চলেছেন তো কোনও ম্যাচে বলের কায়দায় আটকে দিচ্ছেন প্রতিপক্ষের রানের স্বপ্ন। ক্যাপ্টেন থেকে কোচ সকলেই তাঁর প্রশংসায় মুখর। তবু আজ তাঁকে বিশ্রাম দিয়ে আর এক তরুণ মুখ রাহুল চাহারকে সুযোগ দেওয়া হতে পারে। সিরিজ পকেটে বলেই এই পরীক্ষানিরীক্ষা।

ভুবনেশ্বর কুমার: দলের অভিজ্ঞতম বোলার। নতুন বোলারদের সঙ্গে নিয়ে বোলিং স্কোয়াড পরিচালনার ভার তাঁর কাঁধেই। কাজেই বোলিং বিভাগের এই স্পেশালিস্টের দিকে আজও তাকিয়ে থাকবে দল।

দীপক চাহার: ভারতের পেস ব্যাটারির অন্যতম ভবিষ্যৎ অস্ত্র হয়ে উঠতেই পারেন খলিল আহমেদ। বাঁ হাতি এই পেসার উইকেটও পেয়েছেন একটি ম্যাচে। কিন্তু  তাঁর জায়গায় আজ দলে আসতে পারেন দীপক চাহার। ভারতীয় বোলিংয়ে একটু পরীক্ষানিরীক্ষার অবকাশ আজ আছে বলেই তরুণ এই মুখকে আজ দেখা যেতে পারে মেন ইন ব্লু-য়ের সারিতে।

নবদীপ সাইনি: ঝকঝকে তরুণ মুখ। কিন্তু এই সিরিজে এখনও পর্যন্ত সেরা বোলার বললে অত্যুক্তি হয় না। তাঁর বলের ধরন ও কৌশল কোনওটাই বোধগম্য হচ্ছে না ক্যারিবিয়ানদের। আজও নবদীপ-ম্যাজিকের দিকে তাকিয়ে থাকবে ভারতীয় শিবির।