Advertisement
২৫ জুন ২০২৪

চিনে শেষ আটে সিন্ধু-সাইনারা, বিদায় কিদম্বির

আর একটা ম্যাচ জিততে পারলে ভারতীয় ব্যাডমিন্টন তারকারা চিনের নানজিং থেকে চারটি পদক নিশ্চিত করে ফেলবেন। 

সফল: বিশ্বমঞ্চে এ বার কঠিন লড়াই সিন্ধু, সাইনার। —ফাইল চিত্র।

সফল: বিশ্বমঞ্চে এ বার কঠিন লড়াই সিন্ধু, সাইনার। —ফাইল চিত্র।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৩ অগস্ট ২০১৮ ০৩:২৩
Share: Save:

বিশ্ব ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়শিপে বৃহস্পতিবারটা ভারতের জন্য ভাল-মন্দ মেশানো। আর একটা ম্যাচ জিততে পারলে ভারতীয় ব্যাডমিন্টন তারকারা চিনের নানজিং থেকে চারটি পদক নিশ্চিত করে ফেলবেন।

ব্যতিক্রম শুধু কিদম্বি শ্রীকান্ত। পুসারলা বেঙ্কট সিন্ধু, সাইনা নেহওয়াল, অশ্বিনী পোনাপ্পা-সাত্বিকসাইরাজ রানকিরেড্ডিরা প্রতিযোগিতার কোয়াটার্র ফাইনালে উঠলেও সহজ সূচি পেয়ে তা কাজে লাগাতে পারলেন না শ্রীকান্ত। তাঁকে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে স্ট্রেট সেটে হারিয়ে দিলেন বিশ্বের ৩৯ নম্বর খেলোয়াড় মালয়েশিয়ার ডারেন লিউ। বিশ্ব ক্রমতালিকায় ৬ নম্বরে থাকা ভারতীয় শ্রীকান্ত হেরে গেলেন ১৮-২১, ১৮-২১ ফলে।

ঘটনাচক্রে সাইনা এই নিয়ে টানা আট বার বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলেন। বৃহস্পতিবার তাঁর খেলা ছিল প্রাক্তন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন রাতচানক ইন্তানন সঙ্গে। দ্বিতীয় গেমে সামান্য কিছুটা সময় বাদ দিলে ম্যাচে নিয়ন্ত্রণ ছিল সাইনারই। খেলা শেষ হয়ে গেল ৪৭ মিনিটে। সহজে প্রথম গেম জেতার পরে দ্বিতীয় গেমেও সাইনা ১৮-১৩ এগিয়ে ছিলেন। এই সময়টায় রাতচানক টানা চারটি পয়েন্ট জেতেন ঠিকই কিন্তু শেষ পর্যন্ত সাইনাই মাথা ঠান্ডা রেখে গেম ও ম্যাচ বের করে নেন। সাইনার পক্ষে ফল ২১-১৬, ২১-১৯। এ বার অবশ্য তাঁর কাজটা কঠিন। কোয়ার্টার ফাইনালে সাইনাকে খেলতে হবে অলিম্পিক্সে সোনাজয়ী ও দু’বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন স্পেনের ক্যারোলিনা মারিনের সঙ্গে।

পাশাপাশি মজা হচ্ছে সহজে ২১-১০, ২১-১৮ গেমে দক্ষিণ কোরিয়ার জি হিউন সাংকে হারিয়ে সিন্ধুকে আবার সেই খেলতে হবে তাঁর ‘চিরশত্রু’ জাপানের নজোমি ওকুহারার বিরুদ্ধে। দিনের আর একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা মিক্সড ডাবলসে ভারতীয় জুটি অশ্বিনী-সাত্বিকের কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠা। তাঁরা চমকে দিয়েছেন সপ্তম বাছাই মালয়েশীয় জুটি সেভন জেমি লাই-গো সুন হাউতকে ২০-২২, ২১-১৪, ২১-৬ গেমে হারিয়ে। এ দিকে সাই প্রণীতও বেশ দাপট নিয়ে হারিয়েছেন ডেনমার্কের হান্স ক্রিশ্চিয়ান ভিটিগাসকে। ফল ২১-১৩, ২১-১১। শুক্রবার তাঁর প্রি-কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচ। প্রতিপক্ষ জাপানের কেনতো মোমোতা।

রাতচানককে হারিয়ে এ দিন সাইনা বলেছেন, ‘‘খুব ভাল ভাবে জিতেছি। রাতচানকের খেলার বৈশিষ্ট্য হচ্ছে ও কী করবে সব সময় বোঝা যায় না। কিন্তু দ্বিতীয় গেমে আজ ১৮-১৪ এগিয়ে থেকে মনে হচ্ছিল আমি ঠিক যে ভাবে চেয়েছি সে ভাবেই খেলা গড়িয়েছে। ভাল আক্রমণ করেছি। কয়েকটা কঠিন রিটার্ন সামলেছি। তবে একটা সময় ওর যেন মনে হয়েছিল ম্যাচ বেরিয়ে যাচ্ছে। তাই মরিয়া হয়ে খেলতে শুরু করে। ফল তো ১৯-১৯ হয়ে গেল। পার্থক্য গড়ে দেওয়ার শেষ দুটি পয়েন্ট জিতে মনে হচ্ছিল কৃতিত্বটা গোপী স্যরের (পুল্লেলা গোপীচন্দ)। এই সময় স্ট্র্যাটেজিটাই আসল। স্যর যে ভাবে বলেছেন সে ভাবে খেলেই আমি ওই পয়েন্ট দুটো পেয়েছি।’’ মারিনের সঙ্গে পরের ম্যাচ নিয়ে সাইনার মন্তব্য, ‘‘ও অত্যন্ত দ্রুত আর আক্রমণাত্মক ব্যাডমিন্টন খেলে। তা ছাড়া বহু দিন ওর বিরুদ্ধে খেলিওনি। তাই এই ম্যাচটা সহজ নয়।’’

কোরীয় প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে দারুণ খুশি সিন্ধুও। যদিও বলেছেন, ‘‘দ্বিতীয় গেমে ২-৭ পিছিয়ে ছিলাম। তবে হাল ছাড়িনি। জানতাম এই সময় প্রত্যেকটা পয়েন্ট গুরুত্বপূর্ণ। সে ভাবেই খেলেছি।’’ কিন্তু কোয়ার্টার ফাইনালে সেই ওকুহারার সঙ্গেই আবার সিন্ধুকে খেলতে হবে। যা নিয়ে গোপীচন্দের অন্য ছাত্রীর কথা, ‘‘আপাতত বিশ্রাম নিয়ে তৈরি হওয়াই লক্ষ্য। হালফিলে প্রায়ই ওর সঙ্গে খেলতে হচ্ছে। কালকের ম্যাচটাতেও বেশ লম্বা একটা লড়াই হতে যাচ্ছে।’’

কোয়ার্টার ফাইনালে বেশ কঠিন অশ্বিনীদের লড়াইটাও। তাঁদের সামনে এই বিভাগে শীর্ষ বাছাই চিনের সিওয়েই ঝেং-ইয়াকুইয়ং হুয়াং। অশ্বিনী বললেন, ‘‘ম্যাচটার জন্যই নিখুঁত ভাবে তৈরি হয়েছিলাম। সেটা কাজেও দিয়েছে।’’ আর সাত্বিকের মন্তব্য, ‘‘জানি কোয়ার্টার ফাইনালে লড়াইটা কঠিন। তবে আমরা ওদের খেলা দেখেছি। মনে হচ্ছে যে ভাবে খেলছি কালও জিতেই ফিরব।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE